তলানিতে টিআরপি, প্রাইম স্লট থেকে সরে গেল ‘মোহর’, ক্ষোভের মুখে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ

স্টার জলসায় রাত ৮টার স্লটে দীর্ঘদিন ধরে যে সিরিয়ালটি দর্শকদের মন জিতে নিয়েছিল, সেটি হল ‘মোহর’ (Mohor)। এই সিরিয়ালে নাম ভূমিকায় আছেন সোনামনি সাহা (sonamoni Saha), আর নায়িকার বিপরীতে আছেন প্রতিক সেন (Pratik Sen)। পর্দায় সোনামণি আর প্রতিকের অভিনীত চরিত্রের নাম হল মোহর আর শঙ্খদীপ। মোহদীপের এই জুটি দীর্ঘদিন ধরে ‘মোহর’ সিরিয়ালকে রাত ৮ টার স্লটে সর্বোচ্চ টিআরপি দিয়ে  এসেছে।

কিন্তু বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরে এই সিরিয়ালের টিআরপি একেবারেই কমে গেছে। টুইস্টের পর টুইস্ট এনেও  ধারাবাহিকের টিআরপি আর কিছুতেই বাড়ছে না তাই শেষমেষ এই সিরিয়ালের ব্যাপক রদবদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। ৫ এপ্রিল থেকে স্টার জলসার পর্দায় চিরপরিচিত মোহর ধারাবাহিকের সেই বদল বদল চোখে পড়বে।

উচ্চশিক্ষিত হয়ে স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে শহরে ছুটে এসেছিল ‘মোহর’। বিয়ে নয় জীবনে ‌ কিছু করে দেখানোই ছিল তার লক্ষ্য , যে কারণে পরিবারের বিরুদ্ধে গিয়ে বিয়ে ভেঙে সে ছুটে এসেছিল। তার এই লড়াই তার পাশে ছিল কেবল তার একজন শিক্ষিকা যিনি আবার শঙ্খদীপের মা। পরবর্তীতে শঙ্খ দ্বীপের কলেজে ভর্তি হয় মোহর আর শঙ্খদীপের সঙ্গে তার  বিয়ে হয়। জীবনের নানা উত্থান-পতনে শঙ্খ মোহরের পাশে থাকলেও ‘শ্রেষ্ঠা ’ও ‘ছোটকা’র ষড়যন্ত্র বারবার তাদের দাম্পত্যকে বিঘ্নিত করেছে আর সকল বাধা বিঘ্ন পেরিয়ে মোহদীপের মিল ঘটেছে বারবার।

কিছুদিন আগে ধারাবাহিকে দেখানো হয়েছে যে শ্রেষ্ঠা ও ছোটকার ষড়যন্ত্রের ফাঁদে পা দিয়ে মোহরের চরিত্র সম্পর্কে খারাপ কথা বলে শঙ্খ আর দুজনের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। ধারাবাহিকের এই চলতি ট্রাক কিছুতেই পছন্দ হচ্ছিল না দর্শকদের। এমনকি সিরিয়ালের মোড় ঘোরাতে মোহরের ‘আত্মহত্যার চেষ্টা’ দেখিয়ে ভক্তদের দাবি মেনে দুজনকে কাছেও আনা হয়। কিন্তু তবুও জি বাংলার ‘মিঠাই’ এর কাছে স্লট হেরে যাচ্ছিল ‘মোহর’ তাই মোড় ঘোরাতে গল্পের নতুন টুইস্ট আনা হলো এবার।

সম্প্রতি স্টার জলসা একসময়ের টিআরপি টপার মোহরের প্রোমো বার করেছে, যার ট্যাগ লাইন হল, ‘টাটকা দুপুরে টাটকা মোড়’। এই পর্বে দেখা যাচ্ছে যে মোহর আর ছাত্রী নেই,তার উচ্চশিক্ষা গ্রহণ সমাপ্ত হয়েছে। নিজে অধ্যাপিকা হয়ে সে ফিরে এসেছে তার সেই কলেজে যেখান থেকে তার জীবনের গল্প শুরু হয়েছিল। প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে শাড়ি পড়ে কলেজের গেট খুলছে মোহর, আর তার মুখে শোনা যাচ্ছে  নতুন পথচলার গল্প, “লক্ষ্য ছিল পড়াশোনা করে জীবনে প্রতিষ্ঠিত হবো। সেই লক্ষ্য পূরণ করতে পেরেছি আজ এই কলেজের শিক্ষিকা হয়ে আমার এক নতুন পথ চলা শুরু।”

মোহরের নতুন লক্ষ্য পূরণের পথে আবার ও কাঁটার মতো দাঁড়িয়ে আছে শ্রেষ্ঠা, নিজের শিক্ষার্থীদের নিয়ে মোহরের উদ্দেশ্যে ‘গো ব্যাক’স্লোগান দিচ্ছে সে,পুরো পরিস্থিতির সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে শঙ্খ‌ও। মোহরের নতুন এই পথ চলার লড়াইতে মোহর পাশে পাবে তো শঙ্খ কে এই নিয়ে শুরু হচ্ছে ধারাবাহিকের নতুন ট্র্যাক? তবে এ ছাড়াও আরো একটি বড় রদবদল হয়েছে ধারাবাহিকের।

৫ এপ্রিল থেকে এই ধারাবাহিক দেখানো হবে দুপুর ২ টোর স্লটে অন্যদিকে রাত ৮ টার দিকে আসছে নতুন ধারাবাহিক ‘বরণ’। এই খবর শুনে মোহদীপের ভক্তরা অবশ্য বেজায় চটেছেন, স্টার জলসার পেজে তারা রীতিমতো বাক্যবাণ দিয়ে ভরিয়ে দিয়েছেন পাশাপাশি চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে স্লট হারানোর মতো হুমকিও দিয়েছেন। সোনামণি সাহা ও প্রতীক সেনের মতো তারকা জুটির কাছে এটা ঘোর অপমানের, দাবি ভক্তদের। তাই মোহরের জন্য একদিকে সুবিচার চেয়ে #JusticeforMohor হ্যাশট্যাগে চ্যানেলের ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামের পেজ ভরিয়ে দিচ্ছে ভক্তরা, অন্যদিকে মোহর-এর জায়গায় রাত ৮টায় শুরু হতে চলা ‘বরণ’ ধারাবাহিক বয়কটের ডাক দিয়েছে।

এক নেটিজেন লিখেছেন, ‘যেই জুটি আপনাদের এত সম্মান আর নাম এনে দিয়েছে তাদের সাথে এমন অন্যায় করতে আপনাদের রুচিতে বাধলো না। ছি ছি আর কতো নিচে নামবেন আপনারা?’ অপর একজন লেখেন, ‘মোহরের স্থান থেকে মোহরকে সরিয়ে বরণকে বরণ করেছেন। আমরা মোহর প্রেমীরা মরে যাবো তাও বরণ দেখবো না। আপনারা আমাদের সাথে যে অন্যায় যে অবিচার করেছেন তার দাম আপনাদের দিতে হবে। আপনারা কি করে ভাবতে পারলেন যে সময়ে আমরা টিভির সামনে বসে মোহর দেখতাম আর সেখানে মোহর না দেখে বরণ দেখবো ? এই জীবনে এই আশা অন্তত করবেন না। আপনারা প্লিজ ভাবুন মোহরকে রাতে মোহরের জায়গায় নিয়ে আসার জন্য তাহলে আমরা জলসার সাথে থাকবো’।