প্রয়াত প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়, শোকের ছায়া রাজনৈতিক মহলে

বাথরুমে পড়ে গিয়ে মাথায় চোট নিয়ে আগস্ট মাসের ১০ তারিখ হাসপাতালে ভর্তি হন দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পাশাপাশি জানা যায় তিনি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তারপর দিল্লির আর্মি হাসপাতাল তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়। করা হয় অপারেশন।

তবে তার পর থেকেই তাঁর শারীরিক স্থিতিশীলতা নিয়ে উদ্বেগ দেখা যায়। এমনকি মাঝে একবার রটেও যায় যে তিনি পরলোক গমন করেছেন। তবে সেবার তা সত্য না হলেও অবশেষে সোমবার খবর এলো দেশের প্রাক্তণ রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি প্রয়াত।

সোমবার বাবার মৃত্যুর খবর ট্যুইট করে জানিয়েছেন প্রণব মুখার্জীর ছেলে অভিজিৎ মুখার্জি। তিনি টুইট করে জানান, “খুবই দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, সেনা হাসপাতালের চিকিৎসকদের প্রাণপ্রণ প্রচেষ্টা, সারা ভারতের মানুষের প্রার্থনা সত্ত্বেও এইমাত্র আমার বাবা শ্রী প্রণব মুখোপাধ্যায় মারা গেলেন। আমি আপনাদের সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।”

গত আগস্ট মাসের ১০ তারিখ হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সময় জানা যায় প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির মস্তিষ্কে রক্ত জমাট বেঁধে রয়েছে। তারপরেই জরুরী ভিত্তিতে তার অপারেশন করা হয়। তবে তার পর থেকেই ভেন্টিলেশনে ছিলেন তিনি।

ভেন্টিলেশনে থাকা অবস্থায় মাঝেমধ্যেই খবর আসছিল তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতি নিয়ে। আবার মাঝেমধ্যেই খবর আসছিল অবস্থার অবনতি নিয়ে। প্রণব মুখার্জি সুস্থতা কামনায় দেশজুড়ে প্রার্থনা শুরু হয়। তাঁর জন্মস্থান বীরভূমের মিরাটিতে শুরু হয় হোম যজ্ঞ।

একইভাবে বীরভূমের পাঁচটি সতীপীঠ প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির আরোগ্য কামনায় শুরু হয় পূজা অর্চনা। আর সোমবার তাঁর প্রয়াত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়তেই শোকের ছায়া নেমে এসেছে দেশজুড়ে। ১৯৩৫ সালের ১১ই ডিসেম্বর প্রণব মুখার্জি জন্মগ্রহণ করেছিলেন বীরভূমের মিরাটি গ্রামে। প্রয়াণকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।