Jio-কে ধূলিসাৎ করে দ্রুততম ইন্টারনেট পরিষেবা আনছেন বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি

582

বিশ্বের সবথেকে ধনী ব্যাক্তিদের তালিকায় আগেই মুকেশ আম্বানিকে (Mukesh Ambani) ছাপিয়ে গিয়েছেন টেসলা (Tesla) ও স্পেসএক্স’র (Space X) মালিক এলন মাস্ক (Elon Musk)। বর্তমানে অ্যামাজনের প্রধান কর্মকর্তা জেফ বেজোস (Jeff Bezos) কে টপকে তিনিই বিশ্বের ধনীতম ব্যাক্তি। এবার তিনি তৈরি হচ্ছেন পুরো বিশ্বে ইন্টারনেট বিপ্লব ঘটানোর জন্য।

বিশ্বের ইন্টারনেট বাজারে এলন মাস্ক ‘মহাপ্লান (Mahaplan)’ নিয়ে হাজির হতে তৈরি। ইতিমধ্যেই আমেরিকা এবং ভারত সহ বিশ্বের বেশ কিছু দেশে এই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। তবে যদি সত্যিই এই মহাপ্লান ভারতে চালু হয় তবে বিপুল ক্ষতির মুখে পড়তে পারে আম্বানির জিও সহ ভারতের বাকি টেলিকম সংস্থাগুলি।

পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করে মহাকাশে থাকা এক চতুর্থাংশ স্যাটেলাইটের মালিক এলন মাস্ক। আরো অনেক স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠাতে চলেছেন তিনি। তার টার্গেট, এর মধ্যে ১২০০০ স্টারলিংক স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠাবেন তিনি।এর ফলে পৃথিবী থেকে আরো অনেক দ্রুত ইন্টারনেট পরিষেবা পাওয়া যাবে।

এলন মাস্ক পৃথিবীর বাইরে মহাকাশে যে সমস্ত স্যাটেলাইট পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করছে তার মোট পরিমানের এক চতুর্থাংশের মালিক। আর প্রতিনিয়ত আরো বেশি করে স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠাচ্ছেন এলন। এবার আগামী কয়েক বছরের  মধ্যেই ১২০০০ স্টারলিংক স্যাটেলাইট পাঠানোর টাগেট নিয়েছেন এলন মাস্ক। যদি তা হয়, তাহলে পৃথিবী থেকে স্যাটেলাইট হয়ে সিগন্যাল ফিরে আসার সময় অনেক কমে যাবে। ফলে অনেক দ্রুত গতির ইন্টারনেট পরিষেবা পাওয়া যাবে।

তবে এই একই রকম পরিকল্পনা নিয়েছেন বিশ্বের দ্বিতীয় ধনী ব্যক্তি জেফ বেনজোর। যত বেশি সংখ্যক স্যাটেলাইট যারা আয়ত্তাধীন থাকবে সে তার ক্ষমতা ততো বেশি থাকবে। সেই কারণেই স্যাটেলাইট নিয়ে এদের দুজনের মধ্যে একটি প্রতিযোগিতা হতেই পারে।

এই স্যাটেলাইট গুলি যদি একবার পরিষেবা দেওয়া শুরু করে দেয় তাহলে ভারতে প্রবল চাপের মুখে পড়তে হবে মুকেশ আম্বানি কে। কারণ বর্তমানে ভারতে সবচেয়ে সস্তা ৪জি ইন্টারনেট পরিষেবা দিচ্ছেন মুকেশ আম্বানি। ফলে সবথেকে বেশি লাভ করছে তার সংস্থা। ভারতের 5g পরিষেবা চালু করার কথা ভাবছেন তিনি। এমন অবস্থায় যদি এলন মাস্কের মহাপ্ল্যান শুরু হয়ে  যায় সেক্ষেত্রে ভারতের টেলিকম কোম্পানি গুলো প্রায় উঠে যেতে বসবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।