করোনা সংক্রমণে আপনার জেলা কত নম্বরে, দেখুন জেলভিত্তিক তালিকা

সংক্রমণ কমার এখনো কোনো লক্ষণ নেই ভারত তথা রাজ্যে। পশ্চিমবঙ্গে গত ২৪ ঘন্টায় পশ্চিমবঙ্গে নতুন করে সংক্রামিত হয়েছেন ৪২৬ জন, আর যার পরেই রাজ্যের মোট সংক্রমণের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮ হাজার ৬১৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৬২ জন, এরপরে রাজ্যের মোট সুস্থের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩ হাজার ৪৬৫ জন। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে মৃত ৯, মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪০৫। বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের মোট অ্যাক্টিভ করোনা রোগীর সংখ্যা হল ৪৭৪৩।

রাজ্যে এই বিপুল পরিমাণ সংক্রমণে জেলাভিত্তিক বিচার করলে সংক্রমণের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে কলকাতা। যেখানে গত ২৪ ঘন্টায় বেড়েছে ১২৮ জন। মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৮৮৬ জন। সংক্রমণে দ্বিতীয় তালিকায় রয়েছে হাওড়া। যেখানে গত ২৪ ঘন্টায় বেড়েছে ৩৮ জন। মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪৫৭ জন।

সংক্রমণের তালিকায় তৃতীয় নম্বরে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। যেখানে গত ২৪ ঘন্টায় বেড়েছে ৫৫ জন। সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১৫৮ জন। এর পরেই চতুর্থ নম্বরে রয়েছে হুগলি। যেখানে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে সংক্রামিত হয়েছেন ১০ জন আর মোট সংখ্যা দাঁড়াল ৬০২ জন। পঞ্চম স্থানে রয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা। যেখানে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ১৩ জনের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এখানে মোট সংক্রমণ দাঁড়িয়েছে ২৯৫ জন।

 

বাকি জেলাগুলিতে মোট সংক্রমনের নিরিখে ৬ নম্বরে রয়েছে মালদা, যেখানে মোট সংক্রমণের সংখ্যা ২৩১। ৭ নম্বরে উত্তর দিনাজপুর, যেখানে মোট সংক্রমণ ২০৭। ৮ নম্বরে রয়েছে কোচবিহার ২০৫। ৯ নম্বরে রয়েছে বীরভূম ২০৪। ১০ নম্বরে রয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুর, যেখানে সংখ্যাটা হলো ১৭৮।

বাকি জেলাগুলি যথাক্রমে পূর্ব মেদিনীপুর ১৪৪, বাঁকুড়া ১৪০, নদিয়া ১৩৪, মুর্শিদাবাদ ১২৯, পূর্ব বর্ধমান ১২৫, দার্জিলিং ১০২, জলপাইগুড়ি ৯৫, পশ্চিম বর্ধমান ৮২, পুরুলিয়া ৬৩, দক্ষিণ দিনাজপুর ৪৪, আলিপুরদুয়ার ৩৭, কালিম্পং ১৮, ঝাড়গ্রাম ১১।

তবে দিন দিন সংক্রমণের সংখ্যা বাড়লেও তালে তাল মিলিয়ে বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা। এমনকি বেশ কিছু জেলার ক্ষেত্রে লক্ষ্য করা গিয়েছে সংক্রামিতরা দ্রুত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন, আর এখানেই আশার আলো দেখছে কোটি কোটি মানুষ। সুস্থ হয়ে ওঠার হার বাড়তে বাড়তে বর্তমানে রাজ্যে সুস্থতার পৌঁছে গেছে ৪০.২২ শতাংশে। আগামী দিন কয়েকে এই হার আরও বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে।