আপনার জেলায় করোনায় মৃত্যু আর সুস্থতার হার কেমন, দেখে নিন তালিকা

প্রতিনিয়ত লাফিয়ে চলা কোরোনা আক্রান্তের সংখ্যা ভয় ধরাচ্ছে মানুষের মনে। শুক্রবার অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে কোরোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৪৯৬ জন। এটিই ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে আশার আলো দেখাচ্ছে ক্রবর্ধমান সুস্থতার হার।

বর্তমানে রাজ্যে গড় সুস্থতার হার ৬৯% এবং অন্যদিকে রাজ্য জুড়ে মৃত্যুর হার কমেছে বেশ কিছুটা। জুন মাসে রাজ্যে মৃত্যুর হার ছিল ৪% এরও ওপরে কিন্তু বর্তমানে তা কমে হয়েছে ২.২৫%।

সমগ্র রাজ্যের নিরিখে মৃত্যুর হারের দিক থেকে এগিয়ে আছে সিটি অফ জয়, কলকাতা। তবে সেক্ষেত্রেও আশার আলো দেখাচ্ছে পরিসংখ্যান। মাস খানেক আগে কলকাতায় মৃত্যুর হার ছিল ৬ % এর ওপরে কিন্তু বর্তমানে সেই হার হ্রাস পেয়ে হয়েছে সাড়ে তিন শতাংশ।

অন্যদিকে সুস্থতা ও মৃত্যুর হারের দিক থেকে সবথেকে ইতিবাচক স্থানে আছে মালদা। শনিবার সকাল পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যের ওপর ভিত্তি করে রাজ্য জুড়ে জেলাগুলিতে সুস্থতা ও মৃত্যুর হার ক্রমানুসারে দেখে নেওয়া যাক

কলকাতা

  • মোট রোগী – ২১,৬৩৯
  • সুস্থতার হার – ৬৭.০৩ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ৩.৫১ শতাংশ

উত্তর ২৪ পরগণা

  • মোট রোগী – ১৫,১৩১
  • সুস্থতার হার – ৬৪.৯১ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ২.২৫ শতাংশ

হাওড়া

  • মোট রোগী – ৭,৭৫০
  • সুস্থতার হার – ৭৩.০৮ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ২.৫৬ শতাংশ

 দক্ষিণ ২৪ পরগণা

  • মোট রোগী – ৫,১৮২
  • সুস্থতার হার – ৭২.৫৩ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ১.৬৭ শতাংশ

হুগলি

  • মোট রোগী – ৩,৪১১
  • সুস্থতার হার – ৭০.১৫ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ১.৭৮ শতাংশ

মালদা

  • মোট রোগী – ২,২৮৭
  • সুস্থতার হার – ৮৫.১৩ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ০.৫২ শতাংশ

দার্জিলিং

  • মোট রোগী – ২,১৬৬
  • সুস্থতার হার – ৬৯.৮৯ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ১.০১ শতাংশ

পূর্ব মেদিনীপুর

  • মোট রোগী – ১,৫১৮
  • সুস্থতার হার – ৭২.৩৯ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ০.৮৫ শতাংশ

জলপাইগুড়ি

  • মোট রোগী – ১,৩১৪
  • সুস্থতার হার – ৭১.৫৩ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ০.৮৩ শতাংশ

পশ্চিম মেদিনীপুর

  • মোট রোগী – ১,১৮৩
  • সুস্থতার হার – ৭৩.৩৭ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ১.২৬ শতাংশ

উত্তর দিনাজপুর

  • মোট রোগী – ১,১৫৭
  • সুস্থতার হার – ৬৭.৪১ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ০.৬০ শতাংশ

দক্ষিণ দিনাজপুর

  • মোট রোগী – ১,১৫৫
  • সুস্থতার হার – ৭৮.৬১ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ০.৬০ শতাংশ

নদিয়া

  • মোট রোগী – ১,০১৬
  • সুস্থতার হার – ৬৭.৫১ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ০.৯৮ শতাংশ

পূর্ব বর্ধমান

  • মোট রোগী – ৮৬০
  • সুস্থতার হার – ৬০.৬৯ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ০.৪৬ শতাংশ

মুর্শিদাবাদ

  • মোট রোগী – ৮১৪
  • সুস্থতার হার – ৬৯.৪১ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ১.৩১ শতাংশ

পশ্চিম বর্ধমান

  • মোট রোগী – ৮০৮
  • সুস্থতার হার – ৬৪.৭২ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ১.১১ শতাংশ

বাঁকুড়া

  • মোট রোগী – ৭৩২
  • সুস্থতার হার – ৫৯.২৮ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – কারও মৃত্যু হয়নি

কোচবিহার

  • মোট রোগী – ৭০৯
  • সুস্থতার হার – ৬৯.৬৭ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – কারও মৃত্যু হয়নি

 বীরভূম

  • মোট রোগী – ৫৮৫
  • সুস্থতার হার – ৬৭.৩৫ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ১.০২ শতাংশ

 আলিপুরদুয়ার

  • মোট রোগী – ৩৪৭
  • সুস্থতার হার – ৬৭.১৪ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ০.৫৭ শতাংশ

পুরুলিয়া

  • মোট রোগী – ২৪১
  • সুস্থতার হার – ৬৬.৩৯ শতাংশ।
  • মৃত্যুহার – কারও মৃত্যু হয়নি।

কালিম্পং

  • মোট রোগী – ৮৯
  • সুস্থতার হার – ৭৯.৭৭ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – ১.১২ শতাংশ

ঝাড়গ্রাম

  • মোট রোগী – ২৮
  • সুস্থতার হার – ১০০ শতাংশ
  • মৃত্যুহার – কারও মৃত্যু হয়নি