৭৫-এর বর, ৫০-এর কনে, ২২ বছর সহবাস করে আজ সুখী দীপঙ্কর ও দোলন

এক জনের বয়স ৭৫। অন্য জনের বয়স প্রায় ৫০। বয়সের বিশাল ফারাক থাকলেও বিশিষ্ট অভিনেতা দীপঙ্কর দে ও অভিনেত্রী দোলন রায়ের ভালোবাসা ছিল অটুট। চলচ্চিত্র জগতে যা বিরল।

0
Dipankar Dey and Dolon Roy Love Story

পথচলা শুরু হয়েছিল আজ থেকে প্রায় এক যুগ আগে। দীপঙ্কর দে (Dipankar Dey) এবং দোলন রায়ের (Dolon Roy) সম্পর্ক নিয়ে টলিউডে (Tollywood) বহু গুঞ্জন (Gossip), বহু বিতর্ক দানা বেঁধেছে। হাঁটুর বয়সী একটি মেয়েকে বিয়ে করার জন্য দীপঙ্কর দেকে কম সমালোচিত হতে হয়নি। দোলনকেও শুনতে হয়েছে বহু কুমন্তব্য। ঘরে-বাইরে নিন্দার পাত্রী হতে হয়েছে দোলন রায়কে।

Dipankar Dey and Dolon Roy Love Story

তবুও তিনি প্রিয় মানুষটির হাত কখনও ছাড়েননি। তিনি দীপঙ্কর দের যোগ্য জীবনসঙ্গিনী যে! শত বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে, নিন্দা-সমালোচনা মাথায় করে নিয়ে মনের মানুষের সঙ্গেই তিনি কাটিয়ে দিয়েছেন ১২টি বছর। এক মুহূর্তের জন্যেও দীপঙ্কর দেকে একা ছাড়তে রাজি নন তিনি। স্ত্রী হিসেবে, জীবনসঙ্গী হিসেবে দীপঙ্করের পাশে থেকে তাকে সামলাচ্ছেন দোলন।

১২ বছর একসঙ্গে থাকার পর আইনত বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন দীপঙ্কর এবং দোলন। আইনের চোখে নিজেদের সম্পর্ককে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য তারা রেজিস্ট্রি ম্যারেজও করেন। তারপর থেকেই দোলন রায় হয়ে উঠেছেন দীপঙ্কর দের ঘরনী-গৃহিণী। ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে তাদের বিবাহ হয়। টলিউডে কার্যত তারাই প্রথম প্রমাণ করলেন, বিয়ের ক্ষেত্রে বয়সটা কোনো ফ্যাক্টর নয়। দুটি মানুষ যদি একে অপরের সঙ্গেই সুখে থাকেন, তাহলে তাদের আলাদা করবে এমন সাধ্যি কার?

Dipankar Dey and Dolon Roy Love Story

বিয়ের পরপরই ১৪ই ফেব্রুয়ারি প্রেম দিবসে প্রিয়তমকে একগোছা গোলাপ ফুল উপহার দিয়েছিলেন নববধূ দোলন। সেদিন রাতে বাইরে ডিনারের প্ল্যানও ছিল তাদের। তবে কাজের চাপে তা আর হয়ে উঠলো না। তাতে কী? দীপঙ্কর দে ওই প্রেম দিবসেই প্রিয়তমাকে উপহার দিয়ে প্রেম নিবেদন করেন। জানলে হয়তো অবাক হবেন, দীপঙ্করের থেকে দোলন বয়সে ২৬ বছরের ছোট! একে অপরের প্রতি অটুট ভালোবাসা না থাকলে আজও তারা একসঙ্গে থাকতে পারতেন না।

নিন্দা যতদূর এড়ানো যায়, এই ভেবেই কার্যত দীপঙ্কর এবং দোলন নিজেদের সম্পর্ককে যতদূর সম্ভব লোকচক্ষুর আড়ালে সযত্নে লুকিয়ে রেখেছিলেন। তবে এখন আর লুকিয়ে রাখার মতো কিছুই নেই। এখন তারা আর শুধু প্রেমিক-প্রেমিকা নন, আইনত স্বামী-স্ত্রী। দীপঙ্করের আপদে-বিপদে পাশে দাঁড়ানোর জন্য দোলনকে তাই এখন আর সম্পর্কের অছিলা খুঁজতে হয় না। সম্প্রতি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন দীপঙ্কর দে। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে হসপিটালে ভর্তি করতে হয়েছিল।

Dipankar Dey and Dolon Roy Love Story

সেই সময় ছায়াসঙ্গীর মতোই দীপঙ্করের পাশে এসে দাঁড়িয়েছিলেন তার জীবন সঙ্গিনী। একা হাতে রোগীকে নিয়ে হসপিটাল, বাড়ি, ডাক্তার, ওষুধের ব্যবস্থা করেছেন দোলন। দীপঙ্করের হৃদযন্ত্রের গোলমাল রয়েছে। দোলন যদি সেই সময় সঠিকভাবে তার যত্ন না নিতেন, তাহলে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যেত। চিকিৎসকের প্রতিটি পরামর্শ অক্ষরে অক্ষরে মেনেছেন দোলন। স্বামীর যত্নে কোনও ত্রুটি তিনি হতে দেননি।

Dipankar Dey and Dolon Roy Love Story

চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে প্রথম বিবাহ বার্ষিকী উদযাপন করেছেন দীপঙ্কর এবং দোলন। বাড়িতেই কেক কেটে হয়েছে নবদম্পতির প্রথম বিবাহ বার্ষিকীর সেলিব্রেশন। দীপঙ্করকে তার পছন্দের খাবার রেঁধে খাওয়ান দোলন। আজ এত বছর পেরিয়ে এসেও তারা সুখী দম্পতি। টলিউডে আজকাল কান পাতলে শুধুই বিবাহ বিচ্ছেদের খবর পাওয়া যায়। সেখানে দীপঙ্কর দে এবং দোলন রায়ের সম্পর্কের এই মূল্যবোধ সত্যিই টলিউড সম্পর্কে মানুষের চিন্তা-ধারা বদলায়।