একের পর এক সিনেমা ফ্লপ, অবসাদে আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন উদয় চোপড়া

একের পর এক সিনেমা ফ্লপ, ব্যর্থ প্রেম, অবসাদে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন উদয় চোপড়া

বলিউডের (Bollywood) অভ্যন্তরে নেপোটিজম বিতর্ক নিয়ে বহু তরজা চলে। স্বজনপোষণের আড়ালে আসল প্রতিভা চাপা পড়ে যাচ্ছে! তারকা সন্তানরাই কেবল বলিউডে রাজত্ব করছেন! এমনতরো বহু অভিযোগ ওঠে বলিউডের দিকে। তবে সত্যিই কি তাই? তারকা সন্তানরা সকলেই কি বলিউডে নিজের জায়গা গড়তে পেরেছেন? বলিউডে এমন বহু তারকার আগমন ঘটেছে যারা ধূমকেতুর মতো আচমকাই ইন্ডাস্ট্রি থেকে হারিয়ে গিয়েছেন। উদয় চোপড়া (Uday Chopra) তেমনই এক নাম।

সিনে প্রেমীরা প্রায় প্রত্যেকেই এই নামটির সঙ্গে পরিচিত। বিশেষত ৯০ এর দশকের ছেলেমেয়েরা উদয় চোপড়াকে বেশ ভালোমতোই চেনেন। ‘মহব্বতে’র অভিনেতা বললে সকলের চোখের সামনে প্রথমেই ভেসে উঠবে তার মুখ। শাহরুখ খান, অমিতাভ বচ্চন, ঐশ্বর্য রাই, শমিতা শেট্টির সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করে রাতারাতি পরিচিতি অর্জন করেছিলেন যশ চোপড়ার কনিষ্ঠ পুত্র।

এরপর অবশ্য একের পর এক আরও অনেক ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পান তিনি। যশ চোপড়ার ব্যানারে বানানোর ছবি ‘মেরে ইয়ার কি সাদি হে’, ‘ধুম’, ‘ধুম টু’, ‘ধুম-থ্রি’, ‘হাম তুম’, ‘মুজসে দোস্তি কারোগে’, ‘এক থা টাইগার’ এর মতো একাধিক সুপারহিট ছবিতে অভিনয় করেছিলেন তিনি। তবে বেশিরভাগ ছবিতেই সাইড রোলে অভিনয়ের সুযোগ পেতে পেতে তিনি ক্রমশ ব্যাকফুটে চলে যেতে থাকেন।

যশ চোপড়ার কনিষ্ঠপুত্র, আদিত্য চোপড়ার ভাই হয়েও বলিউডে উদয় চোপড়ার নিজেকে সেভাবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেননি। অভিনয়ের পাশাপাশি দাদা আদিত্য চোপড়ার সঙ্গে মিলে সহ-পরিচালকের ভূমিকাও নিয়েছিলেন উদয়। ‘পরম্পরা’, ‘ডর’, ‘দিলতো পাগল হে’, ‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে’র মত সুপারহিট ছবিতে তিনি ছিলেন সহ পরিচালক। কিন্তু ক্যামেরার সামনে হোক বা আড়ালে, কোনওখানেই ঠিক জুত করতে পারেননি।

বলিউডে এ পর্যন্ত তার অভিনীত শেষ ছবিটি ছিল ‘ধুম ৩’। ২০১৩ সালে এই ছবির শুটিং শেষ হতেই আমেরিকায় পাড়ি দেন উদয় চোপড়া। সেখানে লস অ্যাঞ্জেলসে একটি বিলাসবহুল ভিলা কিনে নেন তিনি। কয়েক বছর যেতে না যেতেই সেই ভিলা বিক্রিও করে দেন উদয়। হঠাৎ মাত্র ২৫ কোটি টাকার বিনিময়ে তিনি কেন নিজের বিলাসবহুল ভিলা বিক্রি করে দিয়েছিলেন, তার কারণ এখনও অজানা।

একদিকে কেরিয়ারে যখন বারবার চড়াই-উৎরাইয়ের সম্মুখীন হতে হচ্ছিল তাকে, তখন ব্যক্তিগত জীবনেও ঝড়ঝাপটার সম্মুখীন হতে হচ্ছিল উদয় চোপড়াকে। মাঝে তার আভাস পাওয়া যায় তার সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে। অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে তিনি লিখেছিলেন, “আমি ভালো নেই আমি চেষ্টা করছি ভালো থাকার কিন্তু পারছিনা”।

এরপরেই আবার তিনি লেখেন, “আমি কয়েক ঘণ্টার জন্য ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছিলাম। আমার মনে হচ্ছিল যেন আমি মৃত্যুর মুখোমুখি হয়ে পড়েছি। আমার মনে হয় এটা আত্মহত্যা করার ভাল অপশন। আমি হয়তো বরাবরের জন্য সেটা করতেও পারি।’’ উদয়ের এই পোস্ট দেখে মুহূর্তের মধ্যেই উত্তাল হয়ে ওঠে নেট দুনিয়া। সকলেই তার জন্য চিন্তাগ্রস্ত হয়ে পড়েন। যদিও অভিনেতা পরে জানান তিনি মজা করছিলেন।

কেরিয়ারের পাশাপাশি প্রেমেও চূড়ান্ত ব্যর্থ উদয় চোপড়া। বলিউড অভিনেত্রী নার্গিস ফাকরির সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল। তবে একসময় একটি সাক্ষাৎকারে নার্গিসের বক্তব্য নিয়ে রীতিমতো অস্বস্তির মুখে পড়ে যান উদয় চোপড়া। ব্যাটসম্যান নাকি সুপারম্যান? কাকে পছন্দ নার্গিসের? প্রশ্নের জবাবে অভিনেত্রীর উত্তর ছিল, “যার পুরুষাঙ্গ ভালো তাকে পেলেই বেশি ভালো হয়”! এই নিয়ে বিতর্ক শুরু হওয়ার পরেই নাকি নার্গিস এবং উদয়ের সর্ম্পকে ভাঙ্গন ধরে।