মা হতে চলেছেন সোনালি, থালা সাজিয়ে বন্ধুকে সাধ খাওয়ালেন ভাস্বর

জি বাংলায় ‘অগ্নিপরীক্ষা’ ধারাবাহিকে স্বামী-স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করা ভাস্কর চ্যাটার্জি (Bhaswar Chatterjee) ও সোনালি চৌধুরী (Sonali Chowdhury) বাস্তবে খুব ভালো বন্ধু। ১৯৯৮ সালে প্রথম একসাথে ক্যামেরার সামনে আসেন সোনালি-ভাস্বর। তারপর একাধিক ধারাবাহিকে তারা জুটি হিসেবে কাজ করছেন আর সময়ের সাথে সাথে তাদের বন্ধুত্ব হয়েছে অটুট। তাই বন্ধুর জীবনের সবথেকে খুশির মুহূর্তে তার পাশে দাঁড়িয়েছেন ভাস্বরও।

২০২০ তে ‘কনে ব‌উ’ধারাবাহিকের শ্যুটিং এ ব্যস্ত থাকাকালীন নিজের মাতৃত্বের খবর  পেয়ে উচ্ছ্বসিত হয়ে ওঠেন সোনালী আর তার খেলোয়াড় স্বামী রজত ঘোষ দস্তিদার। সম্প্রতি মাতৃত্বকালীন ছুটি নিয়ে মায়ের বাড়িতে রয়েছেন অভিনেত্রী,আর ২৩ বছরের  বন্ধুকে সাধ খাওয়াতে তাই সোনালীর মায়ের বাড়ি ছুটে গেলেন ভাস্বর।

কাজের জগতে ভালো বন্ধু হয় না একথা সবাই কমবেশি বলেন কিন্তু সোনালি ভাস্বরের বন্ধুত্ব দেখলে বোঝা যায় যে এই ধারণাটা কত বড় ভুল। শুটিং করতে করতে কখন যে তারা এত ভালো বন্ধু হয়ে গেছেন তা নিজেরাও জানেননা। এই বন্ধুত্ব প্রসঙ্গে সোনালি বলেছেন,“সবাই বলেন কাজের দুনিয়ায় নাকি বন্ধুত্ব হয়না। কথাটা বোধহয় ঠিক নয়। তাহলে ভাস্বর এভাবে ছুটে আসতো না।”

তবে অভিনেত্রী আরও জানিয়েছেন যে ভাস্বরের মত টেলিভিশন জগতের দোলন রায় সহ একাধিক সহকর্মীও সোনালিকে সাধ  খাওয়ানোর ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। তবে ভাস্বরের বিষয়টি নিশ্চয়ই ব্যাতিক্রম। আসলে গর্ভবতী মহিলাদের সাধ খাওয়ানোর অনুষ্ঠানটি মূলত মহিলা কেন্দ্রিক হয়, কিন্তু একজন পুরুষের  সাধ খাওয়ানোর মতো এরকম ঘটনা খুব একটা দেখা যায় না, এই ঘটনা স্বাভাবিকভাবেই আধুনিক মানসিকতার পরিচায়ক।

সোনালি মিষ্টি খেতে খুব ভালোবাসেন বলে  মঙ্গলবার থালা ভর্তি মিষ্টি আর নোনতা নিয়ে সোনালির বাপের বাড়িতে গিয়ে পৌঁছে যান ভাস্বর চ্যাটার্জি আর অমলিন বন্ধুত্বের চিহ্ন স্বরূপ সেই মুহূর্তের ছবি ও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।অবশ্য বন্ধুকে সাধ খাইয়ে অভিনেতাও খালি মুখে ফেরেননি, অভিনেত্রীর মায়ের হাতের  লুচি, সাদা আলুর তরকারি আর মিষ্টি খেয়ে এসেছেন।

সোনালি আর রজতের জীবনের নতুন মানুষটি আগামী জুনেই ভূমিষ্ঠ হবেন বলে জানা যাচ্ছে। এই সময় অভিনেত্রী বিশ্রামে থাকার পাশাপাশি বই পড়া,গান শোনা, বন্ধুদের সাথে ঘরোয়া আড্ডা ইত্যাদি নিয়েই মেতে রয়েছেন আর চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চলছেন।