বিশ্বের ১০টি মহামূল্যবান সম্পদ যা কেবলমাত্র মুকেশ আম্বানির কাছেই আছে

ভারতের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি  মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani)।তার ধনের যা পরিমান তা দিয়ে আমাদের দেশের ২০ দিনের মোট খরচ মেটানো যাবে।আর তাই ফোর্বস পত্রিকার হিসেবে টানা ১১ বছর ধরে তিনি ভারতের শীর্ষ ধনীর স্থান অধিকার করে আছেন। বর্তমানে তার মোট সম্পত্তির পরিমান ৪০.১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ,যা ভারতীয় টাকায় হিসাব করলে দাঁড়ায় ২,৬০,৬৬২ কোটি টাকা।আর তাই তার কাছে যে এমন কিছু থাকবে যা অন্যের কাছে পাওয়া যাবে না, তা নিয়ে কোনো সন্দেহের অবকাশ নেই। আসুন জেনে নিন বিশ্বের মহামূল্যবান এই ১০টি সম্পদ আছে মুকেশ আম্বানির  কাছে।

রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ : মুকেশ আম্বানির মালিকানায় আছে ভারতের সবচেয়ে অর্থবান কোম্পানি রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ।এই ব্র্যান্ড নামের ছাত্রছায়ায় আছে পেট্রোকেমিকাল, বস্ত্র, প্রাকৃতিক গ্যাস, শক্তি ও টেলি কমিউনিকেশন ও রিটেল ব্যবসার  ভান্ডার। এই কোম্পানি সারা বিশ্বের উল্লেখযোগ্য ৫০০ টি  কোম্পানির  মধ্যে  ২০৩ নাম্বারে আছে ফরচুন গ্লোবালের হিসাবে।যদিও এই কোম্পানির জন্মদাতা মুকেশ আম্বানির  প্রয়াত পিতা ধীরুভাই আম্বানি।এই কোম্পানির মোট কর্মচারীর সংখ্যা ২,৫০,০০০ হাজার। এই কোম্পানির বাৎসরিক আয়ের পরিমান ৪৭০০ কোটি মার্কিন ডলার।এই কোম্পানির ৪৪.৭% শেয়ারের মালিক মুকেশ আম্বানি নিজে।

মুকেশ আম্বানির বাড়ি, আন্টিলিয়া : পৃথিবীর মধ্যে ধনী ব্যক্তিদের একক ব্যক্তিগত বাড়ির মধ্যে শীর্ষ স্থান অধিকার করেছে এই ভারতীয় ধন কুবেরের বাড়ি। দক্ষিণ মুম্বাইয়ের কাম্বালা হিলের আলতামাউন্ট রোডে অবস্থিত এই বাড়ি যেন মুকেশ আম্বানির ধন ও ঐশ্বর্যকেই প্রতিফলিত করে।

২৭ তল্লা বিশিষ্ট এই বাড়ি তৈরি করতে আনুমানিক খরচ হয়েছে ২০০ কোটি মার্কিন ডলার।এখানে বাস করেন শুধু মুকেশ আম্বানির পরিবার। মুকেশ আম্বানি ও তার স্ত্রী নীতা আম্বানি ও তাদের দুই পুত্র  অনন্ত ও আকাশ ও এক কন্যা ঈশা।এই বাড়ির মোট ক্ষেত্রফল ৪,০০,০০০ বর্গ ফুট।

এই বাড়িতেই আছে জিম, স্পা, জাকুজি, যোগা ও নৃত্যের জন্য সবরকম আধুনিক কক্ষ।এছাড়াও এই বাড়িতেই সুইমিং পুলও আছে।এছাড়াও ৫০ আসন বিশিষ্ট একটি  আধুনিক মাল্টিপ্লেক্সও আছে।এই বহুতলে ১৬০ টি গাড়ি রাখার মতো ভুনিম্নস্থ পার্কিং গ্যারাজও আছে।এই বহুতলেই আছে ৯টি  আলাদা এলিভেটর।তবে অতিথি ও পরিবারের লোকজনদের জন্য যা আলাদা।

এছাড়াও আছে তিনটি হেলিপ্যাড। তথ্য অনুযায়ী  ২০১০ সালে এই বহুতলের একবছরের বিল প্রায় ২ কোটি টাকার কাছাকাছি হয়েছিল। এই বহুতল রিখটার স্কেলে ৮ মাত্রার ভূমিকম্প প্রতিরোধ  করার ক্ষমতা রাখতে পারে।এই বাড়িতে শুধুমাত্র যে ৫ জন আম্বানির পরিবার থাকে তা নয়, এই বাড়ির রক্ষনাবেক্ষন ও পরিচর্যায় ৬০০ জন কর্মচারী ২৪ ঘন্টাই নিয়োজিত।

একটি ৮.৫ কোটি টাকা মূল্যের গাড়ি : ‘বিজনেস ইনসাইডার ‘নামক পত্রিকার খবর অনুযায়ী মুকেশ আম্বানি যাতায়াত করেন  তার পছন্দের গাড়ি  BMW760Li তে যা ভারতের মধ্যে সবচেয়ে দামি গাড়ি।যদিও এই গাড়ি একটি সাধারণ BMW760Li এর মডেল গাড়ি।

কিন্তু মুকেশ আম্বানি যিনি একমাত্র ভারতীয় শিল্পপতি যিনি  জেড ক্যাটাগরি নিরাপত্তা পান,তাই এই গাড়িতে করা হয়েছে নিরাপত্তাজনিত বেশ কিছু সংস্করণ। আর তাই এই গাড়ির আমদানি শুল্ক অনেক বেশি হয়ে গিয়েছে।ফলে এই গাড়ির দাম হয়েছে ৮.৫ কোটি টাকা।

ফ্যালকন ৯০০  উড়োজাহাজ : মুকেশ আম্বানির কাছে আছে একটি ফ্যালকন ৯০০  উড়োজাহাজ  যা ১৪ আসন বিশিষ্ট।সূত্রের অনুযায়ী এই উড়োজাহাজ একটানা  ৮,৩৪০ কিমি উড়তে পারে। বর্তমানে একটি ফ্যালকন ৯০০ উড়োজাহাজের  মূল্য  ৪৩০ লক্ষ মার্কিন ডলার।

এয়ারবাস ৩১৯  উড়োজাহাজ : ‘DNA’  এর তথ্য অনুযায়ী মুকেশ আম্বানির কাছে আছে  ১৮০ আসন বিশিষ্ট  এয়ারবাস  ৩১৯  নামের উড়োজাহাজ। এই আধুনিক সুবিধাযুক্ত উড়োজাহাজের বর্তমান মূল্য প্রায়  ২৩০ কোটি টাকা।

বোয়িং বিজনেস জেট -২ : ভারতের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির কাছে আছে সবচেয়ে আরামদায়ক ও আধুনিক সুবিধাসম্পন্ন বহু মূল্যবান ব্যক্তিগত জেট বিমান বোয়িং বিজনেস জেট -২। এই জাহাজের বর্তমান মূল্য  ৭৩০ লক্ষ মার্কিন ডলার।

আরও পড়ুন : শুধুমাত্র জল বেচে আম্বানিকে পেছনে ফেলে এশিয়ার ১ নম্বর ধনী এই ব্যবসায়ী

মেইবেচ ৬২ : মুকেশ আম্বানির অনেক প্রিয় গাড়ির মধ্যে এই গাড়ি অন্যতম। ভারতের মধ্যে তিনিই প্রথম ব্যক্তি যিনি এই গাড়ি কেনেন। এই গাড়িতে আছে সবরকম আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার যেমন ভিডিও কনফারেন্সিং। ৫৫১৩সি সি  ইঞ্জিন বিশিষ্ট  এই গাড়ির সবচেয়ে বেশি গতি ঘন্টায় ২৫০ কিমি। ০ থেকে ১০০ কিমি গতি তুলতে এই গাড়ির সময় লাগে ৫.৪ সেকেন্ড।

আরও পড়ুন : মুকেশ আম্বানির গাড়ির ১০টি বিশেষত্ব যা আপনাকে চমকে দেবে

মার্সিডিজ বেনজ এস গার্ড : মার্সিডিজ বেনজ এস গার্ড এই বিশেষ গাড়ি  আসলে এস ৬০০ মডেলের গাড়ির আধুনিক সংস্করণ।এই গাড়ির মধ্যেই রয়েছে জেড  ক্যাটাগরি নিরাপত্তার সকল আধুনিক ব্যবস্থা।মার্সিডিজ বেনজ কোম্পানির মতে এই গাড়ি পৃথিবীর অন্যতম সুরক্ষিত ও নির্ভরযোগ্য গাড়ি।আর মুকেশ আম্বানি হল প্রথম ভারতীয় যিনি এই গাড়ির মালিক।

আরও পড়ুন : মুকেশ আম্বানির ড্রাইভারের বেতন দেখে লজ্জায় মাথা নামবে বড় বড় কর্পোরেট সংস্থার কর্মীদরা

আস্টন মার্টিন রাপিড : ধনকুবের মুকেশ আম্বানির দুর্মূল্য গাড়ির কালেকশনে আরেকটি সংযোজন হল আস্টন মার্টিন রাপিড(Aston Martin Rapide)।এই মূল্যবান গাড়ির মূল্য ৪.৫ কোটি টাকা।যদিও এই গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়েন ২০১৩ সালে।

আরও পড়ুন : কীভাবে মুকেশ আম্বানি নিজের গাড়ির জন্য ড্রাইভার বাছে? ড্রাইভারের বেতন কত?

রোলস রয়েল ফ্যান্টম : এই বিরল গাড়ি ভারতের মধ্যে প্রথম কেনেন মুকেশ আম্বানি।পরবর্তীতে বলিউড শাহেনশাহ অমিতাভ বচ্চনও এই মূল্যবান গাড়ি কেনেন।