অবশেষে এলো স্বস্তির খবর, করোনামুক্ত রেকর্ড সংখ্যক মানুষ, বাড়ছে সুস্থতার হার

কোরোনা ভাইরাস নিয়ে নিত্য দিনই পরিসংখ্যান ও তথ্য প্রকাশ করা হচ্ছে দেশের বিভিন্ন মহল থেকে। বুধবার সকালেই কেন্দ্রীয় সাস্থ্যমন্ত্রক কোরোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা ব্যাক্তিদের পরিসংখ্যান প্রকাশ করলো যা বেশ ইতিবাচক। বুধবার প্রকাশ করা এই রেকর্ডে দেখা যাচ্ছে ভারতে এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪,১৮৩ জন।

শুধু তাই নয় বুধবার প্রকাশ করা এই তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় এই রেকর্ড সর্বাধিক। গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ এক দিনের মধ্যেই ভারতবর্ষে ১৪৫৭ জন মানুষ করোনা মুক্ত হয়ে উঠেছেন।

বর্তমানে সুস্থতার হার বিচার করলে দেখা যাচ্ছে ভারতে মোট আক্রান্ত রুগীদের ২৮.৭ শতাংশ। মঙ্গলবার পর্যন্ত এই হার ছিল ২৭.৪ শতাংশ কিন্তু মঙ্গলবার থেকে বুধবার একদিন কোরোনা মুক্তির সংখ্যা উল্লেখযোগ্য ভাবে বেড়ে যায়।

বুধবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থমন্ত্রক যে তথ্য প্রকাশ করেছে তাতে দেখা যাচ্ছে ভারতে কোরোনা আক্রান্তের সংখ্যা যে হারে বাড়ছে তার থেকে বেশী হারে বাড়ছে সুস্থতার হার। গত ২৪ ঘণ্টায় ৬.৩ হারে দেশ জুড়ে মানুষ আক্রান্ত হন কোরোনা ভাইরাসে, অন্যদিকে কোরোনা মুক্তির হার ১১.৪। এই পরিসংখ্যান আশা দেখাচ্ছে চিকিৎসকদের।

সুস্থতার নিরিখে কোন রাজ্য কতটা এগিয়ে

সুস্থতার হারের নিরিখে প্রথমেই আছে কেরল। এই রাজ্যে ৫০২ জন রোগীর মধ্যে ৪৬২ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। অর্থাৎ এই দেশে সুস্থতার হার ৯২ শতাংশ, যা দেশের মধ্যে সর্বাধিক। সুস্থতার হার রাজস্থানে ৪৮.২ শতাংশ। উল্লেখ্য ৩১৫৮ জন রোগীর মধ্যে সেখানে এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন

তামিলনাড়ু তে আগে সুস্থতার হার ৫০ শতাংশের কাছাকাছি থাকলেও বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় সুস্থতার হার এখন ৩৬ শতাংশ। দিল্লিতে সুস্থতার হার ২৮.৭ শতাংশ। উল্লেখ্য রাজধানীতে ইতিমধ্যে ১৪৬৮ জন করোনা মুক্ত হয়েছেন ১৫২৫ জন।

গুজরাটে সুস্থতার হার ২২.২ শতাংশ। এখনও পর্যন্ত সেখানে ১৩৮১ জন কোরোনা মুক্ত হয়েছেন। বাংলায় সুস্থতার হার ১৯.৬ শতাংশ।

আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে দেশের মধ্যে প্রথম স্থানে আছে মহারাষ্ট্র। সেখানে সুস্থতার হার পূর্বের থেকে কিছুটা বেড়ে বর্তমানে ১৮.১ শতাংশ হয়। উল্লেখ্য বর্তমানে মহারাষ্ট্র ২৮১৯ জন কোরোনা মুক্ত।