ভারতের করোনা আক্রান্ত ২০ জনপ্রিয় সেলিব্রেটি ও রাজনীতিবিদ

বর্তমানে আতঙ্কের ওপর নাম করোনা। চিন থেকে ছড়িয়ে এই ভাইরাসের ত্রাসে এখনো কাঁপছে গোটা বিশ্ব। দেখতে দেখতে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে ১৮ লক্ষ। আর এই ১৮ লক্ষ করোনা আক্রান্তের খাতায় ধীরে ধীরে নাম উঠতে শুরু করে দেশের জনপ্রিয় সেলিব্রিটিদের। রাজনৈতিক এবং অভিনেতা ও অন্যান্য মিলিয়ে এখনো পর্যন্ত ২০-এর বেশি সেলিব্রেটি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যাদের মধ্যে ২০ জন অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব।

১) অমিত শাহ :- ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ গত রবিবার করোনা আক্রান্ত হন। তিনি নিজে করোনা আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি দেশের মানুষকে জানান তার টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করে। বর্তমানে তার শরীরে তেমন কোনো উপসর্গ না থাকলেও চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

২) শিবরাজ চৌহান :- সদ্য করোনা আক্রান্ত হন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ চৌহান। মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ চৌহানকে নিয়ে ইতিমধ্যে উদ্বেগ শুরু হয়েছে। কারণ তার শরীরে উপসর্গ দেখা দিয়েছে। তিনি করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর টুইটারে পোস্ট করে সকলকে জানান।

৩) ঐশ্বর্য রাই বচ্চন :- বচ্চন পরিবারের গৃহবধূ ঐশ্বর্য রাই বচ্চন আক্রান্ত হয়ে মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এরপর তিনি জুলাই মাসের ২৭ তারিখ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন।

৪) অমিতাভ বচ্চন :- জুলাই মাসের ১১ তারিখ রাত্রিবেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি হন বলিউডের অন্যতম অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন। সদ্য আগস্ট মাসের ২ তারিখ তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

৫) দুলারী খের :- বলিউডের অন্যতম অভিনেতা অনুপম খের-এর মা দুলারী খের জুলাই মাসে করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। দুলারী খের-এর শরীরে মৃদু সংক্রমণ লক্ষ্য করা গিয়েছিল। বর্তমানে তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

৬) অভিষেক বচ্চন :- বলিউড শাহেনশাহ অমিতাভ বচ্চনের সাথে করোনা আক্রান্ত হয়ে একই দিনে নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি হন বচ্চন পুত্র অভিষেক। তিনি এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

৭) জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া এবং মাধবী রাজে সিন্ধিয়া :- বিজেপির অন্যতম নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া এবং তার মা মাধবী রাজে সিন্ধিয়া করোনা আক্রান্ত হয়ে দিল্লির ম্যাক্স সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল চিকিৎসাধীন ছিলেন। তারা দুজনেই বর্তমানে সুস্থ।

৮) কিরণ কুমার :- ৭৪ বছর বয়সী অভিনেতা কিরণ কুমার করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন মে মাসের ১৪ তারিখ। বর্তমানে তিনি সুস্থ।

৯) কনিকা কাপুর :- গায়িকা কনিকা কাপুর ভারতের প্রথম কোন সেলিব্রিটি যিনি করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। বেশ কয়েকদিন হাসপাতালে চিকিৎসা করানোর পর তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন।

১০) এস এস রাজামৌলি :- তেলেগু ফিল্ম মেকার এস এস রাজামৌলি এবং তার পরিবার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। বাহুবলী সিনেমা এই নির্মাতা তার টুইটার হ্যান্ডেলে করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানান।

১১) শ্রেনু পারিখ :- টিভি সিরিয়াল অভিনেত্রী শ্রেনু পারিখ আক্রান্ত হয়েছিলেন। তিনি বেশ কয়েকটি টিভি সিরিয়ালে অভিনয়ের জন্য খ্যাত।

১২) পার্থ সামথান :- কসৌটি জিন্দেগি কি সিরিয়ালের অন্যতম মুখ পার্থ সামথান করোনা আক্রান্ত হন।

১৩) চেতন চৌহান :- ভারতের অন্যতম প্রাক্তন ক্রিকেটার চেতন চৌহান করোনা আক্রান্ত হন জুলাই মাসের ১২ তারিখ। তিনি ভারতের প্রথম কোন প্রাক্তন ক্রিকেটার হিসেবে করোনা আক্রান্ত হন।

১৪) মহঃ সেলিম :- সিপিআইএম পলিটব্যুরো সদস্য মহঃ সেলিম আগস্ট মাসের ৩ তারিখ করোনা আক্রান্ত হয়ে কলকাতার বাইপাসের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। শরীরে জ্বর, পেট খারাপের মতো উপসর্গ রয়েছে।

১৫) কমলারানী বরুণ :- দিন কয়েক আগে অরণ্য আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের কারিগরি শিক্ষা মন্ত্রী কমলারানী বরুণ। দেশের অন্যান্য সেলিব্রেটিরা করোনা আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেও এই মন্ত্রীর আর বাড়ি ফেরা হয়নি। গত রবিবার অর্থাৎ আগস্ট মাসের ২ তারিখ তিনি করোনাই প্রাণ হারান।

১৬) লকেট চট্টোপাধ্যায় :- পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সদ্য তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। তিনি তার করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছিলেন।

১৭) সুজিত বসু :- পশ্চিমবঙ্গের দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। পশ্চিমবঙ্গের কোন মন্ত্রী হিসেবে তিনিই প্রথম কোন আক্রান্ত হন। বর্তমানে তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

১৮) অশোক ভট্টাচার্য :- সিপিআইএমের অন্যতম বর্ষিয়ান নেতা তথা শিলিগুড়ির প্রাক্তন চেয়ারম্যান অশোক ভট্টাচার্য করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বর্তমানে তিনি সুস্থ।

১৯) শ্যামল চক্রবর্তী :- সিপিআইএমের আরও এক বর্ষীয়ান নেতা শ্যামল চক্রবর্তী করোনা আক্রান্ত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার শারীরিক পরিস্থিতি খুব একটা ভালো নেই বলে সূত্রের খবর।

২০) তমোনাশ ঘোষ :- তৃণমূল বিধায়ক তমোনাশ ঘোষ আক্রান্ত হয়ে বেশ কয়েকদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিলেন। তবে তৃণমূল এই বিধায়কের আর বাড়ি ফেরা হয়নি। রাজ্যের প্রথম কোন বিধায়ক হিসাবে তিনি করোনাই প্রাণ হারান।