১ বছর মাংস খাওয়া ছেড়ে দিলে মানুষের শরীরে কি কি পরিবর্তন হবে

১ বছর মাংস খাওয়া ছেড়ে দিলে মানুষের শরীরে কি কি পরিবর্তন হবে

বাঙালির খাদ্যতালিকায় মাংস একটি জনপ্রিয় পদ। তাই প্রতিদিন সারা বিশ্বে ৫৫ মিলিয়ন মাংস খাওয়া হয়। আমাদের মধ্যে অনেকেই এমন আছেন যারা মাছ-মাংস ছাড়া ভাত খেতেই পারেন না। কিন্তু ভেবে দেখেছেন কি, ১ বছর মাংস খাওয়া ছেড়ে দিলে মানুষের শরীরে কি কি পরিবর্তন হবে?

গবেষণায় দেখা যাচ্ছে যে অতিরিক্ত পরিমাণে মাংস খেলে হৃদরোগ স্ট্রোক এবং ক্যান্সার হবার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। ব্রিটেনে প্রতি তিনজনের একজন মাংস খাওয়া ছেড়ে দিয়েছেন কিংবা কমিয়ে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন :- রোজ পোস্ত খেলে কী কী উপকার পাবেন

এই সংখ্যাটাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি তিনজনে দু’জন। আসুন জেনে নিই এক বছর মাংস খাওয়া ছেড়ে দিলে শরীরে কি কি পরিবর্তন আসবে।

যদি কেউ এক বছর মাংস খাওয়া ছেড়ে তার তাহলে তার শরীরের ১০ কেজি ওজন কমে যাবে। তাই মাংস না খেয়ে শুধুমাত্র শাকসবজি জাতীয় খাবার কোনরূপ ব্যায়াম বা শরীরচর্চা ছাড়াই ওজন কমানো সম্ভব।

আরও পড়ুন :- এই ৯টি খাবার কখনোই খালি পেটে খাওয়া উচিত নয়

লোমা লিন্ডা ইউনিভার্সিটির এক গবেষণায় দেখা গেছে যে একই ক্যালরিযুক্ত নিরামিষ এবং আমিষ খাবার খেলে নিরামিষাশীদের ওজন বাড়ার সম্ভাবনা ৯.৪ শতাংশ এবং আমিষাশি দের ওজন বাড়ার সম্ভাবনা ৩৩.৩ শতাংশ।

আরও পড়ুন :- ভাত না রুটি ? সুস্থ থাকতে কোনটি খাবেন?

গবেষণায় দেখা গেছে নিরামিষাশীদের তুলনায় মাংস প্রেমীদের মধ্যে ডায়াবেটিসের সম্ভাবনা অনেক বেশি। এছাড়াও মাংস খাওয়া বন্ধ করলে রক্তচাপ এবং হৃদরোগের সম্ভাবনা অনেক কমে যাবে। শাকাহারী ব্যক্তিদের মধ্যে এইসব রোগের সম্ভাবনা খুবই কম।