বদলে গেল কোরোনা রোগীদের হাসপাতাল থেকে ছাড়ার নিয়ম

দেশে প্রতিনিয়ত লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যেই কোরোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬০ হাজার। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে হাসপাতাল থেকে কোরোনা নেগেটিভ হওয়ার পর যখন কোনো ব্যক্তি ছাড়া পাচ্ছেন, তার পরে পুনরায় তার শরীরে করোনা ভাইরাসের খোজ পাওয়া যাচ্ছে। তাহলে কি হাসপাতাল থেকে কোনো ব্যাক্তিকে ছাড়া দাওয়ার নিয়মের মধ্যেই গাফিলতি রয়ে গেছে?

এই পরিস্থিতিতে শনিবার এক নতুন বিজ্ঞপ্তি জাতীয় করলো কেন্দ্রীয় সাস্থ্য মন্ত্রক। শনিবার কোরোনা আক্রান্ত ব্যাক্তিদের হাসপাতাল থেকে ছাড়া দাওয়ার বিষয় নতুন গাইডলাইন জারি করল কেন্দ্রীয় সাস্থ্য মন্ত্রক।নয়া বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, তাঁদের প্রতিদিন তাপমাত্রা পরীক্ষা করতে হবে। এছাড়াও তার অক্সিজেনের মাত্রাও পরীক্ষা করে দেখতে হবে।

১০ দিন পরই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হবে সেই রোগীকে। তবে পরপর তিনদিন ওই রোগীর জ্বর আসছে কি না, তা খেয়াল রাখতে হবে। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর ওই রোগীকে সাতদিন বাড়িতে আইসোলেশনে থাকতে হবে।

যে রোগী তিন দিনেই সুস্থ হয়ে যাচ্ছেন এবং অক্সিজেনের মাত্রা ৯৫ শতাংশ, তাঁদেরটি ‘মডারেট কেস’ হিসাবে গণ্য করা হবে। তাঁদের আগামী ১০ দিনের মধ্যে ছেড়ে দেওয়া হবে। নয়া গাইডলাইন অনুযায়ী এখন আর তাঁদের হাসপাতাল থেকে ছাড়ার আগে পরীক্ষা করার কোনও প্রয়োজনীয়তা নেই।

অত্যন্ত সংকটজনক করোনা রোগী এবং যদি তাঁর অন্য কোনও রোগ থাকে সেক্ষেত্রে এতদিন হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়ার আগে দু’বার পরীক্ষা করা হত। দু’টি রিপোর্ট নেগেটিভ হলে তবেই হাসপাতাল থেকে ছাড়া হচ্ছিল রোগীদের। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের নয়া গাইডলাইন অনুযায়ী, একবার পরীক্ষা রিপোর্ট নেগেটিভ হলে ছেড়ে দেওয়া যেতে পারে রোগীকে। যে সমস্ত রোগীর জ্বর পরপর তিনদিন আসছে এবং অক্সিজেনের মাত্রাও ঠিক নয়, তাঁদের ক্ষেত্রে জ্বর কমা এবং অক্সিজেনের মাত্রা পুরোপুরি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত কোনও রোগীকে ছাড়া যাবে না।