কোন কোন তারকা প্রার্থীর মাথায় উঠলো জয়ীর শিরোপা, রইলো সম্পূর্ণ তালিকা

726

একুশের নির্বাচনী প্রেক্ষাপটে রাজ্যজুড়ে স্লোগান উঠেছিল “খেলা হবে”। এতদিন ধরে যে খেলা চলছিল, গতকালের নির্বাচনী ফলাফল প্রকাশে সেই খেলা সাঙ্গ হলো। বাংলার ভোটের রিপোর্ট কার্ড প্রকাশ করলো নির্বাচন কমিশন। ২৯৪টি আসনের মধ্যে থেকে ২১৩টি আসনে জয়লাভ করেছে তৃণমূল। এইভাবে ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করায় আরও পাঁচ বছরের জন্য মমতা রাজ কায়েম হলো বাংলায়।

একুশের নির্বাচনী লড়াইয়ের ময়দানে তৃণমূল দল ত্যাগ করে বহু নেতাকর্মীকে বিজেপি শিবিরের দিকে পা বাড়াতে দেখা গিয়েছে। তবে হার মানেননি তৃণমূল সুপ্রিমো। তারকা প্রার্থীদের ম্যাজিক কাজে লাগিয়ে বাংলার মসনদ ধরে রাখার নতুন চ্যালেঞ্জ নেন তিনি। উল্লেখ্য, তৃণমূলের আমল থেকেই অবশ্য ভোট বাজারে তারকা প্রার্থীদের ম্যাজিক দেখতে শুরু করেছে রাজ্য রাজনীতি।

এই লড়াইয়েও তার অন্যথা হয়নি। দলের পুরনো এবং নতুন তারকা প্রার্থীদের সারথি করে মমতারথ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে নবান্নের দিকে। এই লড়াইয়ে জয়ী প্রার্থীদের তালিকা একবার দেখে নিন-

রাজ চক্রবর্তী : টলিউড পরিচালক রাজের রাজনীতিতে হাতেখড়ি হয়েছে একুশের এই বিধানসভা নির্বাচনে পেক্ষাপটে, তৃণমূলের হাত ধরে। ব্যারাকপুর বিধানসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের হয়ে প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। আগামী পাঁচ বছরের জন্য ওই কেন্দ্রের বিধায়ক হিসেবে মানুষ তাকে নির্বাচন করেছেন।

অদিতি মুন্সি : তৃণমূলের এই তারকা সৈনিক রাজারহাট-গোপালপুর কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছিলেন। মানুষ তাকে ফিরিয়ে দেননি। অদিতি মুন্সি বিরোধী বিজেপি প্রার্থীকে হারিয়ে দিয়ে জয়লাভ করেছেন।

লাভলী মৈত্র : সোনপুর দক্ষিণ কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের হয়ে প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়ে ছিলেন লাভলী। তিনিও তার প্রতিপক্ষদের হারিয়ে দিয়েছেন এই লড়াইয়ে।

কাঞ্চন মল্লিক : উত্তরপাড়া বিধানসভা কেন্দ্র থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়ে ছিলেন কাঞ্চন। তিনিও মানুষের সমর্থন পেয়েছেন। ওই কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছেন কাঞ্চন।

জুন মালিয়া : মেদিনীপুর কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের হয়ে প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছিলেন জুন। তিনিও জয়ী হয়েছেন।

সোহম চক্রবর্তী : তৃণমূলের অতি পুরাতন সদস্য সোহম। চন্ডিপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থী যশ দাশগুপ্তের প্রবল প্রতিপক্ষ হিসেবে লড়াইয়ের ময়দানে ছিলেন সোহম। যশকে টেক্কা দিয়ে এই লড়াইয়ে এগিয়ে গিয়েছেন তিনি।

চিরঞ্জিত চক্রবর্তী : বারাসাত বিধানসভা কেন্দ্র থেকে তৃণমূল প্রার্থী চিরঞ্জিত চক্রবর্তীও একুশের লড়াইয়ে জয়ী হয়েছেন।

আরও পড়ুন : পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির হারের জন্য দায়ী এই ৫টি কারণ

ব্রাত্য বসু : তৃণমূলের এই বহু পুরাতন সদস্য তথা রাজ্য মন্ত্রিসভার বিদায়ী মন্ত্রী ব্রাত্য বসু দমদম কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছেন।

মনোজ তিওয়ারি : শিবপুর কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছেন তৃণমূলের তরফে তারকা ক্রিকেটার প্রার্থী মনোজ তিওয়ারি।

আরও পড়ুন : এই ১০টি কারণে তৃণমূলকে হারাতে পারলো না বিজেপি

উল্লেখ্য এই লড়াইয়ে বিজেপির তরফের মুষ্টিমেয় দুইজন তারকা প্রার্থী রয়েছেন, যারা জয়লাভ করতে পেরেছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন –

অগ্নিমিত্রা পাল : বাংলার নামকরা ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা বিজেপির একজন হেভিওয়েট নেত্রী। এই নেত্রীকে কিন্তু টপকাতে পারেননি তৃণমূল প্রার্থী সায়নী ঘোষ। আসানসোল কেন্দ্রে জয়ী হয়েছেন অগ্নিমিত্রা।

আরও পড়ুন : নামেই তারকা প্রার্থী, খাতা খুলতে পারলেন না যে ১৪ টলিউড সেলিব্রিটিরা

হিরণ চট্টোপাধ্যায় : বিজেপির নবাগত সদস্য হিরণ খড়গপুর সদর বিধানসভা কেন্দ্রটি থেকে জয়লাভ করেছেন।