ভিটামিন সি করোনা আবহে কতটা জরুরি, প্রতিদিন কতটা ভিটামিন সি প্রয়োজন

করোনা আবহে  ভিটামিন সি এর ওপরই ভরসা রাখছেন অনেক মানুষ। ভিটামিন সি শরীরে রোগ ভাইরাসের প্রকোপ কমাতে সাহায্য করে ঠিকই কিন্তু ভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধ করতে পারেনা। করোনা সংক্রমন একপ্রকার ভাইরাল ফ্লু হওয়ায় তা ঠেকাতে অনেকেই লেবু জাতীয় ফল, সকালে ঘুম থেকে উঠে গরম জলে লেবু ইত্যাদি খাওয়া শুরু করেছেন।প্রথম থেকেই মানুষের মধ্যে এইপ্রকারের ধারণা ছিল ঠিকই কিন্তু “চাইনিজ জার্নাল অফ ইনফেকশাস ডিজিজ’ – এ প্রকাশিত একটি প্রবন্ধ নজরে আসার পড়ে এই ধারণা মানুষের মনে আরও গেঁথে যায়।

‘চাইনিজ জার্নাল অফ ইনফেকশাস ডিজিজ’এর প্রবন্ধ কী বলছে?

করোনা সংক্রমন নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া কোনো রোগীকে যদি শিরার মাধ্যমে কিছুটা ভিটামিন সি দেওয়া যায় তবে সেই রোগীর ফুসফুসের কার্যকারিতা বৃদ্ধি পেতে পারে এমনকি ভেন্টিলেশন এর প্রয়োজনও কম হতে পারে। আরও জানা গেছে ভিটামিন সি শরীরে প্রবেশ করানো সম্ভব হলে আক্রান্ত ব্যাক্তির কেঁয়ার ইউনিটে ভর্তি থাকার প্রয়োজনীয়তা ৮% এবং ভেন্টিলেশনে থাকার প্রয়োজনীয়তা ১৮% হ্রাস পেতে পারে। তবে এও জানা যায় ভিটামিন সি এর মাধ্যমে চিকিৎসা করার পদ্ধতিটি নিয়ে এখনও পরীক্ষা চলছে। মানুষের ওপর এখনও ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে করা হচ্ছে।

গবেষণা যা বলছে

জানা যাচ্ছে শিরার মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন সি শরীরে প্রবেশ করানো গেলে সোয়াইন ফ্লু সহ যেসব ভাইরাস সংক্রমণের ফুসফুসে প্রভাব বিস্তার করে প্রদাহ সৃষ্টি করে তার প্রকোপ কিছুটা হ্রাস পায়। তবে এই স্টাডি টিও ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল এর পর্যায় আছে এবং পোধুদ্র পরে মানব শরীরে তার প্রতিক্রিয়া যাচাই করার পর্ব চলছে। করোনা সংক্রমণের ক্ষেত্রে এই পদ্ধতি কার্যকর হবে কিনা সেই সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি।

চিকিৎসকরা কী বলছেন

সুস্থ থাকা কালীন করোনা সংক্রমন রুখতে বেশী পরিমাণে ভিটামিন সি খাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। কারণ এটি শরীরে সঞ্চিত থাকেনা। প্রতিদিনের প্রয়োজন অনুসারে এটি খেলে এটি ইউড়িনের সাথে শরীরের বাইরে বেরিয়ে যায়। অনেকের আবার অতিরিক্ত ভিটামিন সি খেলে পেটের গোলযোগ হয়। সেই কারণে যতটুকু প্রয়োজন ততটুকুই ভিটামিন সি খাওয়ার।

মানুষের শরীরে কতটা ভিটামিন সি প্রয়োজন?

একজন সাধারণ প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যাক্তির দিনে ৯০ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি খাওয়া প্রয়োজন। তবে ব্যাক্তির ধূমপানের অভ্যেস থাকলে বা সন্তান মায়ের দুধ খেলে সেই পরিমাণটি আরও ৩০-৫ মিলিগ্রাম বেড়ে যায়।

কোথায় কতটা ভিটামিন সি থাকে?

১. একটা মাঝারি মাপের কমলালেবুতে ভিটামিন সি থাকে – ৭৭%

২. এক কাপ রান্না করা ব্রকোলি তে ভিটামিন সি থাকে – ১১০%

৩. ভাত খাওয়ার সময় একটা কাচা লঙ্কা খেলে ভিটামিন সি পাওয়া যাবে- ১২১%

৪. একটা পেয়ারা তে ভিটামিন সি এর পরিমাণ -১৪০%

৫. আধ কাপ হলুদ বেলপেপারে ভিটামিন সি এর পরিমাণ – ১৫২%

৬. পাতিলেবুর রসে ভিটামিন সি থাকে -৯০%

অর্থাৎ সুষম খাবার খেলে প্রতিদিনের মতন প্রয়োজনীয় ভিটামিন সি শরীরে চলে যায় এবং তার জন্য আলাদা করে এটি খাওয়ার প্রয়োজন হয় না। অকারণ বেশী পরিমাণে ভিটামিন সি খেলে তা অন্য দিক থেকে শরীরের ক্ষতি করতে পারে।