‘কোই মিল গেয়া’র ছোট্ট টিনা এখন কেমন দেখতে, গুণে গুণে দশ গোল দিচ্ছে নায়িকাদের

‘কোই মিল গেয়া’র ছোট্ট টিনা এখন দারুণ সুন্দরী, অভিনেত্রী এখন করছেন এই কাজ

‘কোই মিল গেয়া’তে (Koi Mil Gaya) এক ঝাঁক খুদে ছিল হৃত্বিক রোশনের (Hrithik Roshan) বন্ধু। মানসিকভাবে পিছিয়ে থাকা রোহিতকে তার সমবয়সী কেউ বন্ধু হিসেবে মানতে চাইত না। বরং সকলে তাকে হেনস্থা করত। সেই সময় তার ক্লাসের বন্ধুরা অবশ্য তার পাশে ছিল। তাদের মধ্যেই ছিল ছোট্ট একটি মেয়ে, টিনা (Tina)। রোহিতের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব ছিল খুব গভীর।

টিনা-রোহিত এবং বাকি বাচ্চারা সবাই মিলে ভিনগ্রহের এলিয়েন ‘জাদু’কে রক্ষা করার মিশনে নেমেছিল। ছবিতে ঋত্বিক রোশন, প্রীতি জিন্টা, রেখা, প্রেম চোপড়া, রজত বেদির পাশাপাশি ছোট্ট এই মেয়েটিও কিন্তু নজর কেড়েছিল। তার আসল নাম হংসিকা মোতওয়ানি (Hansika Motwani)। ছবি মুক্তির পর দেখতে দেখতে পেরিয়ে গিয়েছে প্রায় ২ দশক। ছোট্ট সেই মেয়েটি কিন্তু এখন অনেক বড় হয়ে গিয়েছে।

হংসিকা এখন বছর একত্রিশের যুবতী। সে এখন এতটাই বড় হয়ে গিয়েছে যে ইন্ডাস্ট্রিতে তার বিয়ের তোড়জোড় চলছে। শোনা যাচ্ছে আপাতত তার পরিবার তার বিয়ের জন্য পাত্র খুঁজছে। পাত্রের সম্পর্কে বিশদে কিছুই জানা যায়নি। কিন্তু বিয়েটা যে হচ্ছে এবং এই বছরের ডিসেম্বর মাসেই যে বলিউডে আবার বিয়ের সানাই বাজবে তা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে। এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক হংসিকা এতদিন কী করছিলেন।

বলিউডে সেভাবে দেখা না গেলেও এই সুন্দরী এখন তামিল এবং তেলেগু ইন্ডাস্ট্রিতে চুটিয়ে কাজ করছেন। ‘শাকালাকা বুম বুম’ নামের একটি হিন্দি টেলিভিশন সিরিজ দিয়ে শুরু হয়েছিল তার অভিনয় যাত্রা। ২০০১ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত শিশু অভিনেত্রী হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। এরপর ‘কিস দেশ মে নিকলা হোগা চাঁদ’ সিরিয়ালে তিনি অভিনয় করেন। তারপরেই তার হাতে আসে হৃত্বিক রোশনের সঙ্গে ‘কোই মিল গেয়া’ ছবিতে অভিনয় করার সুযোগ।

HANSIKA MOTWANI

মাত্র ১৫ বছর বয়সে একটি তেলেগু ছবিতে নায়িকা হিসেবে তার নতুন করে যাত্রা শুরু হয়। ইতিমধ্যেই তিনি প্রায় ৫০টিরও বেশি ছবিতে অভিনয় করে ফেলেছেন। দক্ষিণে জুনিয়র এনটিআর, জয়ম রবি, সুদীপ কিষানদের মত সুপারস্টারদের বিপরীতে তিনি অভিনয় করেন। এখন আপাতত কেরিয়ার সামলানোর পাশাপাশি সংসার জীবনেও প্রবেশ করবেন নায়িকা।

শোনা যাচ্ছে জয়পুরের প্রায় ৪৫০ বছরের পুরনো একটি ঐতিহ্যবাহী দুর্গে মহা ধুমধাম করে তার বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে। বিয়ের কার্ড ছাপানো হয়ে গিয়েছে। সেখানে স্থানের জায়গাতে মুন্ডোটা ফোর্ট এন্ড প্যালেসের নাম লেখা রয়েছে। হংসিকার বিয়ে উপলক্ষে এই দুর্গকে সুন্দর করে সাজানোর কাজ চলছে। তার জন্য বিশেষ কারিগর এবং সজ্জা শিল্পীদের ডেকে নেওয়া হয়েছে।