ভেঙে ফেলা হচ্ছে অমিতাভ বচ্চনের সাধের বাংলো, অবৈধ নির্মাণ নাকি ষড়যন্ত্র

সম্প্রতি বলিউড (Bollywood) অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের মুম্বাইয়ের অফিসটি অবৈধ নির্মাণের অভিযোগ তুলে ভেঙে দেয় বৃহন্মুম্বাই পুরসভা (BMC)। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কম তরজা চলেনি। পরে অবশ্য আদালতে বৃহান্মুম্বাই পুরসভাকেই দোষী সাব্যস্ত করে রায় প্রদান করা হয় কঙ্গনার পক্ষেই। আদালতের রায় অনুসারে কঙ্গনাকে ক্ষতিপূরণের টাকা দেবে বৃহন্মুম্বাই পুরসভা। এবার বলিউডের সুপারস্টার অভিনেতা অমিতাভ বচ্চনকেও (Amitabh Bachchan) বাড়ি ভাঙার নোটিশ ধরালো বিএমসি।

মুম্বাইয়ের সন্ত দানেশ্বর মার্গ রোডের কাছেই অবস্থিত অমিতাভ বচ্চনের পুরনো বাড়ি ‘প্রতীক্ষা’ (Pateeksha)। এখানেই কার্যত অমিতাভের ছোটবেলা কেটেছে। বাবা হরিবংশ রাই বচ্চন এবং মা তেজী বচ্চনের সঙ্গে এখানেই থাকতেন অমিতাভ। এমনকি তার দুই সন্তান অভিষেক এবং শ্বেতার বিবাহ অনুষ্ঠানের আসর বসেছিল প্রতীক্ষাতেই। স্বভাবতই এই বাড়িটির সঙ্গে বচ্চন পরিবারের অনেক পুরনো দিনের স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে। যে স্মৃতি আপাতত ভাঙ্গনের মুখে।

শোনা যাচ্ছে, ২০১৭ সালেই ‘প্রতীক্ষা’র একটি অংশ ভেঙে ফেলা সংক্রান্ত নোটিশ এসে পৌঁছেছিল অমিতাভ বচ্চনের হাতে। সেখানে বিএমসির তরফ থেকে লিখিতভাবে বচ্চন পরিবারকে জানানো হয়েছিল যে সন্ত দানেশ্বর মার্গ রোডের সম্প্রসারণ কার্যের জন্য ‘প্রতীক্ষা’র বেশকিছু অংশ ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুরসভা। ঠিক তারপরেই মুম্বই সাবআর্বান কালেক্টর সিটি সার্ভে অফিসিয়্যালদের উদ্দেশ্যে বিএমসির তরফ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয় যে ঠিকমতো সমীক্ষা করে প্রতীক্ষা বাংলোর ঠিক কতখানি অংশ ভাঙার প্রয়োজন রয়েছে, সেই সংক্রান্ত রিপোর্ট যেন পেশ করা হয় সংশ্লিষ্ট বিভাগের কাছে।

তবে প্রায় ৪ বছর আগে নোটিশ পাঠানো হলেও এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। আর এতেই কার্যত পুরসভার প্রতি প্রশ্ন তুলেছেন মিউনিসিপ্যাল কাউন্সিলর তথা বিশিষ্ট আইনজীবী তুলিপ বরিয়ান মিরান্ডা। তার দাবি, “রাস্তা সম্প্রসারণ নীতি অনুযায়ী ২০১৭ সালে অভিনেতা অমিতাভ বচ্চনকে নোটিশ পাঠিয়েছিল বিএমসি। কিন্তু শুধুমাত্র অমিতাভ বচ্চনের বাংলো আছে বলে রাস্তা সম্প্রসারণের কাজ হঠাৎ করে থেমে গেল”।

তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, “যখন নোটিশ দেওয়া হল তখন কেন জায়গাটার দখল নেওয়া হল না? সাধারণ মানুষের জায়গা হলে তো সঙ্গে সঙ্গেই নিয়ে এই দখল নিয়ে নেওয়া হত পুর আইনের ২৯৯ ধারায়। সেখানে স্পষ্ট বলা আছে – এখনই কাজ শুরু করা যবে দ্বিতীয়বার আপিলের সুযোগ দেওয়ার প্রয়োজন নেই”। তিনি আরও বলেন যে, এই ঘটনা প্রসঙ্গে যখন তিনি লোকাযুক্তের কাছে অভিযোগ করার হুমকি দেন, তখন তাকে এই বিবৃতি দেয় বিএমসি।

ওই আইনজীবীর দাবি, ওই রাস্তার সম্প্রসারণ অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। কারণ ওই এলাকায় দুটি স্কুল, হাসপাতাল, ইস্কনের মন্দির রয়েছে। যাতায়াতের সুবিধার জন্য অমিতাভ বচ্চনের বাড়ি প্রতীক্ষার কিছুটা অংশ ভেঙে ফেললেই রাস্তার সম্প্রসারণ সম্ভব। তিনি আরও জানিয়েছেন যে তার উদ্যোগেই কার্যত বিএমসি আবার নড়েচড়ে বসেছে এবং শেষমেষ এই কাজের জন্য প্রয়োজনীয় উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়ার কাজ শুরু করেছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৭৬ সালে অমিতাভ বচ্চন বাংলোটি কিনেছিলেন। এই বাংলোর নামকরণ করেছিলেন তার বাবা হরিবংশ রাই বচ্চন। মুম্বইয়ের জুহুর ১০ নম্বর রাস্তার কোনাকুনি অবস্থিত ‘প্রতীক্ষা’ বাংলোটি বেশ মনোরম। এই বাংলোটিকে অমিতাভের মা নিজের হাতে সাজিয়েছিলেন। বচ্চন পরিবার ‘জলসা’ নামের নতুন বাংলোতে উঠে যাওয়ার আগে সকলে মিলে এখানেই বসবাস করতেন। অমিতাভের বাবা-মায়ের মৃত্যু এই বাড়িতেই হয়েছে। আজও সময়-সুযোগ পেলেই বচ্চন পরিবার ছুটি কাটাতে ছুটে আসেন ‘প্রতীক্ষা’তে।