শিবলিঙ্গে কনডম পড়িয়ে ভোটের টিকিট, সায়নী কে কটাক্ষ সোশ্যাল মিডিয়ায়

গতকালই প্রকাশিত হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের (TMC) বিধানসভা ভোটের প্রার্থী তালিকা। এই তালিকা অনুযায়ী আসানসোল দক্ষিণের তৃণমূল প্রার্থী হলেন সায়নী ঘোষ (Sayoni Ghosh)। এই ঘোষণার পরই অতীতের কনডম প্রসঙ্গ তুলে বঙ্গ বিজেপির তরফ থেকে আক্রমণ করা হলো সায়নীকে। অভিনেত্রীর প্রোফাইল থেকে পুরনো টুইটের স্ক্রিনশট নিয়ে নিজের টুইটার প্রোফাইলে “বঙ্গ বিজেপি” লেখে “আসানসোল দক্ষিণে পিসির প্রার্থী, আপনারাই বিচার করুন।”

ছবির নিচে লেখা হয়েছে “একজন মহিলা যিনি শিবলিঙ্গে কনডম পরানো একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন।” ছবির ক্যাপশনে সায়নী ঘোষকে কটাক্ষ করে লেখা “এই সায়নীই শিবলিঙ্গে মহিলা কন্ডোম পরিয়ে দিচ্ছেন এমন ছবি পোস্ট করে বিতর্কের সৃষ্টি করে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত হেনেছিলেন! তার পুরস্কার হিসেবেই কি টিকিট দেওয়া হল?” প্রসঙ্গত উল্লেখ্য সায়নীর এই ট্যুইটটি ৫ বছর আগের। এখানে দেখা গিয়েছিল এইডস সচেতনতার বিজ্ঞাপনের ম্যাসকট ‘বুলাদি’ কন্ডম পড়াচ্ছেন শিবলিঙ্গে। পাশাপাশি পোস্টের ক্যাপশন ছিল “এর থেকে বেশি কার্যকরী হতে পারেন না ঈশ্বর।”

 

অবশ্য এর উত্তরে অভিনেত্রী দাবি করেছেন ২০১৫ সালে তার টুইটার একাউন্ট হ্যাক হয়ে গিয়েছিল।পরবর্তীকালে তিনি দেখতে পেয়ে নিজেই পোস্টটি ডিলিট করে দিয়েছিল। অবশ্য এই প্রসঙ্গ নিয়ে বহুদিন বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছিল সায়নীকে ঘিরে, এমনকি খুন এবং গণ ধর্ষণের হুমকি পর্যন্ত পেয়েছিলেন তিনি।

বর্তমানে পুরনো দিন পেছনে ফেলে আসানসোল কেন্দ্রের মানুষের মন জয় করাই এখন তার একমাত্র উদ্দেশ্য। নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় আসানসোলের একটি ছবি পোস্ট করে তিনি লেখেন  “আসানসোল এবার একসঙ্গে, ভালোবাসে, একে অপরের পাশে থেকে, চলো কিছু করে দেখাই।” প্রার্থী ঘোষণার পরই তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কোনও সময় নষ্ট না করে মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়াতে চান তিনি।