কলা পাতা থেকে বিদ্যুৎ তৈরি করে NASA যাচ্ছে ভারতীয় যুবক

কলাপাতা কিংবা কলা গাছের কান্ড থেকে বিদ্যৎ আবিষ্কার করা যায়, শুনেছেন কোনোদিন! এবার এই অসম্ভবকেই সম্ভব করলো দশম শ্রেনীর ছাত্র। ভাগলপুরের গোপাল জি। দশম শ্রেনীতে পড়ছে। এই বয়সে তাক লাগিয়ে দিল সে। কলাপাতা বা কলাগাছের কান্ড থেকে বিদ্যুৎ তৈরী করে দেখালো। ডাক আসছে দেশ বিদেশ থেকে। ১৯ বছরেই অবাক করে দিয়েছে গোটা বিশ্বকে। ভারতের মাটি থেকে একের পর এক বিস্ময় মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে। এবার সেই তালিকায় নাম জুড়ল গোপালের।

কৃষক পরিবারের ছেলে গোপাল। বাবা পেশায় কৃষক।গোপাল পড়াশোনা করছে সরকারি স্কুলে।কিন্তু কোনো কিছুই বাধ সাধতে পারেনি গোপালের তীক্ষ্ণ মস্তিস্কে। দশম শ্রেনীতে পড়তে পড়তে অবাক কান্ড ঘটিয়ে দিল সে। কলা গাছের কান্ড হোক কিংবা কলাপাতা অনায়াসে বিদ্যুৎ আবিষ্কার করলো তাতে। খবর ছড়িয়ে পড়লো দেশে বিদেশে। মাত্র ১৯ বছর বয়সেই ‘গবেষকের’ তকমা জুড়লো তাঁর নামের সাথে। কলাপাতা বা কলা গাছের কান্ড থেকে আলো জ্বালিয়ে দেখালো সে।

২০১৭ সালে নরেন্দ্র মোদীর সাথে দেখা হয় গোপালের। গোপাল ও প্রধানমন্ত্রীর বেশ কিছুক্ষন কথা হয়। এরপর গোপাল আমেদাবাদের National Innovation Foundation থেকে কাজ করার ডাক পায়। মাত্র ১৯ বছরে পায় Inspire Award। সম্প্রতি তাইওয়ান একটি অনুষ্ঠান আয়োজন করেন সেখানে এক্সিবিশনের জন্য ১০টি দেশের স্টার্ট আপ সংস্থাকে আমন্ত্রন জানানো হয়। গোপালকেও তার কর্মকান্ডের জন্য আমন্ত্রন জানানো হয়।

বর্তমানে বেশ কিছু বিষয় নিয়ে গবেষনা করছে এই বিস্ময় বালক। সের সাথে সাথেই বিজ্ঞান বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোকপাত করতে স্কুল পড়ুয়াদের উদ্দেশ্যে বক্তৃতা দিচ্ছে গোপাল। আমেরিকা থেকে বিজ্ঞানীরা এসে গোপালের সাথে দেখা করে গিয়েছেন। এমনকি নাসা থেকে আমন্ত্রন জানানো হয়েছে গোপালকে। দুবাই থেকে একটি কনফেরেন্সে ডাকা হয় গোপালকে। গোপালই সেখানের প্রধান বক্তা।গোপালের ইচ্ছে ভবিষ্যতে পিএইচডি করবে। বিদেশ থেকে ডাক এলেও গোপালের ইচ্ছে যে মাটিতে তার জন্ম, সেই মাটিতেই ছড়িয়ে দেবে তার সৃষ্টিকার্য।