রিকি পন্টিং নাকি মহেন্দ্র সিং ধোনি, সেরা অধিনায়ক কে

১৫ই আগস্ট স্বাধীনতা দিবসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। নীল রংয়ের জার্সি গায়ে আর দেখা যাবে না ক্যাপ্টেন কুলকে। গত বছর বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে শেষবার নীল জার্সি গায়ে নেমেছিলেন। তারপর থেকে একপ্রকার স্বেচ্ছাবসরেই রয়েছেন।

দীর্ঘদিন ধরে ক্যাপ্টেন কুলের অবসর নিয়ে নানা জল্পনা-আলোচনা-সমালোচনার অবসান এমন নিমেষে! দ্য ফিনিশার ধোনি যেন এক্ষেত্রেও একেবারে ‘ফিনিশ’ করলেন সমস্ত বাদানুবাদ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে চিরবিদায় ঘোষণা করলেন ভারতীয় প্রাক্তন অধিনায়ক।

বিশ্ব ক্রিকেট সাক্ষী থেকেছে অসাধারণ অধিনায়কদের নেতৃত্বের। এরকমই দুজন অন্যতম অধিনায়ক রিকি পন্টিং এবং মহেন্দ্র সিং ধোনি।দুজনই নিজেদের নেতৃত্বের মাধ্যমে নিজেদের দেশকে শীর্ষ আসনে বসিয়েছেন। এই দুই কিংবদন্তি অধিনায়কের মধ্যে সেরা কে?  প্রশ্নটির উত্তর খুবই মুশকিল। কিন্তু তবুও তাদের মধ্যে একজন কে সেরা বেছে নিলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি।

আফ্রিদির টুইটারে একজন ভক্ত তাকে জিজ্ঞেস করেন পন্টিং ও ধোনির মধ্যে শ্রেষ্ঠ অধিনায়ক কে? এর উত্তরে আফ্রিদি বলেন তিনি মহেন্দ্র সিং ধোনি কে রিকি পন্টিংয়ের থেকে কিছুটা ওপরে রাখবেন কারন তার কথায় ভারতীয় প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি তরুণ খেলোয়াড়দের নিয়ে একটি ভালো দল তৈরি করেছিলেন। আফ্রিদি বলেন পন্টিং একটি বিখ্যাত দল পেয়েছিলেন কিন্তু ধোনি একটি বিখ্যাত দল নিজে গড়েছিলেন।

১৯৯৯,২০০৩ এবং ২০০৭ সালে পরপর তিনবার অস্ট্রেলিয়া বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের খেতাব পায়। ১৯৯৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক ছিলেন স্টিভ ওয়। তার কাছ থেকেই অধিনায়কত্ব পান পন্টিং। সেই সময় সেই দলে ছিল ভুরি ভুরি ম্যাচ উইনার খেলোয়াড়।

অস্ট্রেলিয়ার দলে ওপেনে ম্যাথু হেডেন ও অ্যাডাম গিলক্রিস্ট এর অসামান্য খেলা, মিডল অর্ডারে ডেমিয়েন মার্টিন, অ্যান্ড্র সাইমন্ডস, মাইকেল ক্লার্কের মতো কিংবদন্তি খেলোয়াড়রা থাকতেন এবং রিকি পন্টিং নিজেও ছিলেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। অস্ট্রেলিয়ার সেই দলে শুধু ব্যাটসম্যান নয় বরং শেন ওয়ার্ন, ব্রেট লি, জেসন গিলেসপি, গ্লেন ম্যাকগ্রার মতো বোলিং তারকারাও ছিলেন। অস্ট্রেলিয়ান দলের রিসার্ভ বেঞ্চের তারকারাও ছিলেন প্রতিভাসম্পন্ন।

আরও পড়ুন :- সেরা অধিনায়ক কে ধোনি নাকি সৌরভ, দেখুন বিশেষজ্ঞরা কী বলছেন

মহেন্দ্র সিং ধোনি যখন সৌরভ গাঙ্গুলির থেকে ভারতীয় দলের দায়িত্ব নেন তখন দলে বেশ কিছু কিংবদন্তি খেলোয়াড় (বীরেন্দ্র সেহওয়াগ, শচীন তেণ্ডুলকর, গৌতম গম্ভীর, যুবরাজ সিং, হরভজন সিং, আশিস নেহরা, জাহির খান) ছিলেন ঠিকই তবে বাকি সবাই ছিলেন নতুন খেলোয়াড়। পরবর্তীকালে ভালো ভালো ব্যাটসম্যান (রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, সুরেশ রায়না) ও বোলার ( রবিচন্দ্রন অশ্বিন, রবীন্দ্র জাদেজা, ভুবনেশ্বর কুমার বা মহম্মদ শামিদ প্রমুখ) দের খুঁজে তাদের প্রতিভা তুলে ধরার ক্ষেত্রে ধোনির পরিশ্রমও ছিল। তারপর এই খেলোয়াড়দের নিয়ে তিনি বিশ্ব সেরা দল গড়ে তোলেন। ধোনির ক্ষেত্রে এই বিষয়টি পন্টিং এর থেকে তুলনামূলক ভাবে বেশী কঠিন ছিল।