নামমাত্র মশলায় সুস্বাদু নিরামিষ এই সবজির সঙ্গেই উঠে যাবে এক থালা ভাত, আঙ্গুল না চাটলে পয়সা ফেরত

পেঁয়াজ-রসুন ছাড়া সম্পূর্ণ নিরামিষ এই চচ্চড়ি দিয়ে উঠে যাবে এক থালা ভাত, খেলে আঙ্গুল চাটবে সবাই

শীতকাল মানে বিভিন্ন ধরনের সবজির মরসুম। উচ্ছে, বেগুন, পটল, আলু ছেড়ে বাঙালির পাতে ওঠে ফুলকপি, মটরশুটি, বাঁধাকপি, সীম, মুলোর নানা ধরনের পদ। আজ এই প্রতিবেদনে রইল নামমাত্র মশলা দিয়ে শীতের সমস্ত সবজি দিয়ে পালং শাকের এমন একটি সুস্বাদু চচ্চড়ির (Palong Saker Chochhori Pure Veg Recipe) রেসিপি যা ভাত কিংবা রুটির সঙ্গে অনায়াসে খেতে পারবেন। বাড়িতে একবার বানিয়েই দেখুন এই রেসিপি, ৮ থেকে ৮০ সবাই আঙুল চেটে খাবে।

শীতের সবজি দিয়ে চচ্চড়ি বানানোর জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ : শীতের সব ধরনের সবজি দিয়ে বানানো যায় এই রেসিপি। আর রান্নার উপকরণ বলতে খুব একটা বেশি মশলাও লাগে না। কম সময়ের মধ্যে সুস্বাদু, স্বাস্থ্যকর পদ যদি বানাতে চান তাহলে তার জন্য লাগবে আলু, পটল, মুলো, পালং শাক, মটরশুঁটি, বেগুন, মিষ্টি কুমড়ো, বড়ি, কাঁচা লঙ্কা, পাঁচফোড়ন, গোটা শুকনো লঙ্কা, টমেটো, লবণ, হলুদ, সরষের তেল, চিনি, লঙ্কার গুঁড়ো।

palong saker chochori veg recipe

শীতের সবজির চচ্চড়ি বানানোর পদ্ধতি : প্রথমে সমস্ত সবজিগুলোকে খুব ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে যাতে একটুও ময়লা না থাকে। এবার একটু বড় বড় করে সবজিগুলোকে কেটে নিতে হবে। এবার কড়াইতে তেল গরম করে প্রথমে বড়িগুলোকে ভেজে তুলে নিতে হবে। বিউলির ডালের বড়ি হলে এই রান্নাটা খেতে সবথেকে ভাল হয়।

বড়ি ভেজে তুলে নেওয়ার পর ওই তেলের মধ্যেই প্রথমে আলু এবং বেগুন লাল করে ভেজে তুলে নিন। এবার সামান্য তেল দিয়ে তার মধ্যে এক চা চামচ পরিমাণ পাঁচফোড়ন এবং গোটা শুকনো লঙ্কা ফাটিয়ে ফোড়ন দিন। তেলের মধ্যে ফোড়ন পড়ে যখন খুব সুন্দর গন্ধ বের হবে তখন বাকি সবজিগুলো এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে।

কড়াইতে আলু, কুমড়ো, পটল, মুলো, ফুলকপি, সীম দিয়ে ভেজে নিন একসঙ্গে। ভেজে নেওয়ার সময় অল্প একটু লবণ মিশিয়ে নিলে সবজিটা তাড়াতাড়ি সেদ্ধ হয়ে যাবে। এরপর এর মধ্যে একটা টমেটো কুচি, কাঁচা লঙ্কা, পালং শাক, ভেজে রাখা বড়ি, হলুদ গুঁড়ো ও লঙ্কার গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এবার গ্যাসের আঁচ কমিয়ে ১০ মিনিট ঢাকা চাপা দিয়ে রান্না হতে দিন।

palong saker chochchori recipe 1

এই রান্নাতে আলাদা করে জল ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়ে না। সবজি থেকে যে জল বের হবে তাই দিয়েই রান্নাটা হয়ে যাবে। ১০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে ভেজে রাখা আলু এবং বেগুন দিয়ে সামান্য চিনি ছড়িয়ে নিন। এবার জল শুকিয়ে মাখোমাখো হয়ে এলেই নামিয়ে নিন আর গরম গরম ভাত কিংবা রুটির সঙ্গে পরিবেশন করুন এই সুস্বাদু রেসিপি।