শীতের স্পেশাল রান্নায় পটল রাঁধুন এইভাবে, সবজি যে খায় না সেও খাবে আঙুল চেটে

খেতে মজা বানাতেও সোজা, পটল এইভাবে রাঁধলে তারিফ রাখার জায়গা পাবেন না

potol pasinda 3

শীত, গ্রীষ্ম, বর্ষা যাই হোক, বাজারে পটল হল চেনা সবজি। পটলের নানা ধরনের পদ বানানোর রেসিপি পাওয়া যায় বাংলার হেঁশেলে। তবে একঘেয়ে পটলের রান্না খেতে খেতে অনেক সময় মুখে অরুচি ধরে যায়। তাই আজ এই প্রতিবেদনে রইল শীতের স্পেশাল পটল রান্নার এক বিশেষ রেসিপি। রেসিপির নাম পটল পসিন্দা (Potol Pasinda)। চেনা রান্না ভুলে এইভাবে রান্না করলে আপনার রান্নার তারিফ করবে সবাই। চট করে শিখে নিন রান্নাটা।

পটল পসিন্দা বানানোর জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ : এই বিশেষ রান্নার জন্য প্রয়োজন হবে কচি পটল, পেঁয়াজ কুচি, কাঁচা লঙ্কা, টমেটো পেস্ট, আদা রসুন বাটা, হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কা গুঁড়ো, কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো, জিরে গুঁড়ো, গরম মশলা গুঁড়ো, ছোট এলাচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, কাজু বাদাম, দুধ, পরিমাণ মত নুন, রান্নার জন্য তেল।

potol pasinda

পটল পসিন্দা বানানোর পদ্ধতি : প্রথমে কচি পটল বাজার থেকে কিনে এনে খোসা ছাড়িয়ে ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। এবার একটা ছুরির সাহায্যে পটলের গায়ে অল্প চিরে দিতে হবে। তারপর পটলের মধ্যে সামান্য নুন এবং হলুদ মাখিয়ে কিছুক্ষণের জন্য রেখে দিন। এবার কড়াইতে তেল গরম করে তার মধ্যে পটলগুলো দিয়ে ভেজে তুলে নিন।

রান্নার পরের ধাপে পটল ভাজা হয়ে গেলে ওই তেলের মধ্যেই ছোট এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ ফোড়ন দিয়ে দিন। তারপর কিছুক্ষণের জন্য নেড়ে চেড়ে নিয়ে কড়াইয়ের মধ্যে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভাল করে ভেজে নিন। পেঁয়াজ ভাজা হয়ে এলে কড়াইতে সামান্য কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো দিয়ে মিশিয়ে নিন। এবারের মধ্যে দিতে হবে টমেটো বাটা। টমেটো বাটা দিয়েও কিছুক্ষণ নেড়েচেড়ে নিতে হবে।

potol pasinda 1

এরপর একে একে আদা-রসুন বাটা, পরিমাণ অনুসারে হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কার গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো, জিরেগুঁড়ো, নুন দিয়ে সমস্ত উপকরণ মিডিয়াম আঁচে কষিয়ে নিতে হবে। যতক্ষণ না পর্যন্ত তেল ছেড়ে আসছে ততক্ষণ পর্যন্ত ভাল করে মশলা কষিয়ে নিন। এবার কড়াইয়ের মধ্যে ভেজে রাখা পটল দিয়ে দিন। তারপর সামান্য জল দিয়ে পটল এবং মশলা ভালভাবে মিশিয়ে নিয়ে রান্না হতে দিন।

potol pasinda 2

এবার মিক্সিতে কিছুটা কাজুবাদাম এবং হাফ কাপ দুধ দিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। তারপর এই পেস্ট কড়াইতে দিয়ে আঁচ কমিয়ে কয়েক মিনিট কষিয়ে নিয়ে জল দিয়ে ফুটতে দিন। ঝোল ফুটে উঠলে চিনি, গরম মশলা গুঁড়ো ও দুটো কাঁচা লঙ্কা দিয়ে ৫-৭ মিনিট রান্না হতে দিতে হবে। ৫ মিনিট পর ঢাকনা খুলে এক চামচ ঘি দিয়ে আরও ২ মিনিট রান্না করে নামিয়ে নিন। এবার গরম গরম ভাত রুটির সঙ্গে সপরিবারে জমিয়ে খান পটলের এই দুর্দান্ত রেসিপি।