রাতারাতি মিঠাই ছাড়লেন ‘দিদিয়া’ কৌশাম্বী! ‘শ্রীনন্দা’র ভূমিকায় নতুন মুখ এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী

রাতারাতি বদলে গেল মিঠাইয়ের ‘দিদিয়া’র মুখ, কৌশাম্বীর বদলে ধারাবাহিকে আসছেন এই অভিনেত্রী

Audiences Are Demanding Prriyam Chakraborty To Come Back In Mithai

জি বাংলার (Zee Bangla) মিঠাই (Mithai) সিরিয়ালের জনপ্রিয়তা দিন প্রতিদিন কমেনি, বরং বেড়েছে। গত দুই বছর ধরে এই সিরিয়ালটি দর্শকদের বিনোদন যুগিয়ে এসেছে। এই সিরিয়ালে শুধু নায়ক-নায়িকা নয়, সিরিয়ালের প্রত্যেকটি চরিত্র দর্শকদের অতি পছন্দের। কিন্তু ইদানিং বেশ কিছু চরিত্রকে আর পর্দায় দেখা যাচ্ছে না। মিঠাইতে নতুন ট্র্যাক আসার পর থেকে একে একে সিরিয়াল ছেড়েছেন অনেকেই।

মিঠাইয়ের মৃত্যুর পর গল্প লিপ নিতেই বেশ কিছু চরিত্রকে ছেঁটে ফেলা হয়েছে। এখন মিঠাইয়ের শ্বশুর-শাশুড়ি থেকে শুরু করে সিদ্ধার্থের কাকা, কাকিমা, স্যান্ডি, পিঙ্কিজিদের দেখা মিলছে না। কয়েক মাস আগেই সিরিয়াল ছেড়েছেন পিসিমণিও। তবে এবার নাকি সিরিয়াল ছেড়ে দিচ্ছেন দিদিয়া ওরফে কৌশাম্বী চক্রবর্তী (Koushambi Chakraborty)। এই খবর প্রসঙ্গে সম্প্রতি তোলপাড় হল সোশ্যাল মিডিয়া।

‘দিদিয়া’ অর্থাৎ সিদ্ধার্থের দিদির ভূমিকাতে বর্তমানে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে কৌশাম্বী চক্রবর্তীকে। অবশ্য এই চরিত্রে আগেও একবার মুখ বদল হয়েছে। মিঠাই সিরিয়াল শুরু হওয়ার এক মাসের মধ্যেই সেটা ঘটেছিল। ‘দিদিয়া’ ওরফে ‘শ্রীনন্দা’ চরিত্রটিতে আগে অভিনয় করতেন প্রিয়ম চক্রবর্তী। কিন্তু সিরিয়াল চলাকালীন তিনি প্রেগন্যান্ট হয়ে পড়েন। যে কারণে মাঝপথে অভিনয় ছেড়ে দিতে হয় তাকে।

তবে প্রিয়ম চক্রবর্তী অভিনয় ছেড়ে দিলেও আজও তাকে পর্দাতে মিস করেন মিঠাই ভক্তরা। এতদিনে অবশ্য তার সন্তান পৃথিবীর আলো দেখেছে। অভিনেত্রী নতুনভাবে আবার পর্দাতে ফিরেও এসেছেন। এরই মধ্যে ‘লালকুঠি’ এবং ‘উড়ন তুবড়ি’ সিরিয়ালেও তাকে অভিনয় করতে দেখেছেন দর্শকরা। শোনা যাচ্ছে তিনিই নাকি এবার মিঠাই সিরিয়ালে আবার ফিরে আসতে চলেছেন।

সম্প্রতি মিঠাইয়ের একটি ফ্যান পেজের তরফ থেকে এই বিষয়ে আলোচনা চলছিল। সেখানে ভক্তরা নিজেদের মতামত রাখছিলেন। কারও কারও দাবি, দিদিয়া চরিত্রটিতে নাকি আগের নায়িকা প্রিয়মকেই বেশি মানাত। সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল শ্রীনন্দার চরিত্রে প্রিয়ম নাকি কৌশাম্বী, কাকে বেশি মানায়? এর জবাবে দর্শকরা নিজ নিজ মতামত রেখেছেন।

দর্শকদের একাংশের দাবী, দিদিয়ার চরিত্রে আবার প্রিয়মকে ফিরিয়ে আনা হলেই ভাল হত। কারণ কৌশাম্বীকে নাকি সিদ্ধার্থের দিদির চরিত্রে মানায় না। এমনিতেও বাস্তবে কৌশাম্বী ও আদৃতের মাঝে সম্পর্ক নিয়ে তুমুল জল্পনা রয়েছে। যদিও প্রকাশ্যে কখনও তা স্বীকার করেননি এই দুই সহকর্মী। দর্শকরাও মনে করেন, কৌশাম্বীর তুলনায় প্রিয়মকেই সিদ্ধার্থের দিদির চরিত্রে ভাল মানায়।