বস্তাপচা একঘেয়ে গল্প, কোনও সিরিয়ালের মাথামুণ্ডু নেই, বাংলা সিরিয়াল বয়কটের ডাক সোশ্যাল মিডিয়ায়

গল্পের কোনও মাথামুণ্ডু নেই, স্টার জলসা থেকে জি বাংলা সব সিরিয়াল বয়কটের ডাক সোশ্যাল মিডিয়ায়

বাংলা ধারাবাহিক (Bengali Mega Serial) মানে দর্শকদের বিনোদনের জায়গা। সারাদিনের ব্যস্ততার ফাঁকে মন ভাল রাখার জন্য সন্ধ্যে থেকে রাত অব্দি এই টাইমটুকু বরাদ্দ রাখেন বাংলার মানুষ। তবে দিন প্রতিদিন বাংলা ধারাবাহিকের সিরিয়ালের মান নিচে নামছে। গল্পের কোনও সারবত্তা নেই, টিআরপি সর্বস্ব হয়ে উঠছে চ্যানেলগুলো। লোভের বসে ধারাবাহিকের গল্পে প্রথম থেকেই ঢুকে যাচ্ছে আজব আজব মোড়।

আগে যেমন সিরিয়ালে প্রথমে নায়ক-নায়িকার আলাপ হত, কিছুদিন গল্প এগোনোর পর তবেই বিয়ের পরিস্থিতি তৈরি হত। এখন তো নায়ক-নায়িকার বিয়ে দিয়েই শুরু হচ্ছে গল্পের কাহিনী। সাহেবের চিঠি নবাব নন্দিনী, মাধবীলতা, থেকে শুরু করে হরগৌরী পাইস হোটেলের গল্প একইভাবে এগোচ্ছে। এসব দেখে বেজায় হতাশ হয়ে যাচ্ছেন দর্শকরা।

সিরিয়ালের নির্মাতারা যেন বেশ বুঝে গিয়েছেন ধারাবাহিকে কেবল বিয়ের মরসুমেই টিআরপি ভাল ওঠে। নতুন পুরনো নির্বিশেষে সব ধারাবাহিকেই তাই জোর করে গল্পের মধ্যে নায়ক-নায়িকার বিয়ের ট্র্যাক আনা হচ্ছে। অপেক্ষাকৃত পুরনো ধারাবাহিকগুলিতে নায়ক-নায়িকার বারবার বিয়ে দেখানোটাই এখনকার ট্রেন্ড। এদিকে জি বাংলা, স্টার জলসাতে যে এক গুচ্ছ নতুন ধারাবাহিক এসেছে তারা তো কার্যত সব সীমা অতিক্রম করে ফেলছে প্রথম সপ্তাহেই।

সাহেবের চিঠিতে যেমন কয়েকদিনের মধ্যেই সাহেব আর চিঠির বিয়ে হয়ে গেল। অন্যদিকে নবাবনন্দিনীতেও তেমনটাই হয়েছে। ১-২ সপ্তাহের মধ্যেই নবাব-নন্দিনীর বিয়ে হয়ে গিয়েছে। একই বিষয় লক্ষ্য করা গিয়েছে স্টার জলসার মাধবীলতাতেও। এখানে তো গল্প শুরুই হয়েছিল নায়কের বিয়ের কথাবার্তা দেখিয়ে। তার মধ্যেই নায়ক-নায়িকার বিয়ে হয়ে গেল। অবশ্য, এতে কিন্তু টিআরপিতে ভাল ফলাফল করেছে মাধবীলতা।

টিআরপি উঠলে কী হবে? মাধবীলতাকে ইতিমধ্যেই ট্রোল করতে শুরু করেছেন দর্শকরা। গাছের প্রতি নায়িকার প্রেম দিয়ে শুরু হয়েছিল ধারাবাহিকের গল্প। এখন সেসব অতীত। নায়িকা এখন শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে কুটকাচালি সামলাবে! দর্শকরা তাই কটাক্ষ করে লিখছেন, ‘শেষ হল গাছের কাহিনী, এবার শুরু হবে সংসারের কাহিনী’।

এখন তো নতুন কোনও ধারাবাহিক এলেই দর্শকরা ধরেই নিচ্ছেন প্রথম সপ্তাহ কাটতে না কাটতেই বিয়ের ট্র্যাক দেখিয়ে শুরু হয়ে যাবে পারিবারিক কুটকাচালি। এমনিতেই সব ধারাবাহিকের মধ্যে একঘেয়ে গল্প দেখতে দেখতে তারা বিরক্ত। এখন নতুন সব ধারাবাহিকের শুরুটাও হচ্ছে একইভাবে। স্টার জলসার নতুন ধারাবাহিক ‘হরগৌরী পাইস হোটেল’ও এরই মধ্যে শংকর-ঈশানীর বিয়ের প্রোমো দেখিয়ে দিল। বাদ যায়নি জি বাংলার জগদ্ধাত্রীও। সব দেখেশুনে তাই চটে যাচ্ছেন দর্শকরা।