মৃত্যুমুখে মিঠাইকে দেখে দারুন খুশি ভক্তরা, এই কারনে ওমিকে জানাচ্ছে অশেষ ধন্যবাদ

মিঠাই গুলি খাওয়ায় আনন্দে আত্মহারা ভক্তরা, কারণ জানলে চমকে যাবেন

কখনও দাদু-ঠাম্মির ঝামেলা, কখনও ছেলে vs মেয়ের লড়াই, কখনও বাবার বিয়ে আর এখন নিপার বিয়ে, দর্শকদের বিনোদন দিতে মিঠাইতে একের পর এক নতুন চমক আসছেই। তবে এবার এই ধারাবাহিকে মৃত্যুর মুখে পড়ে নতুন চমক দেবে মিঠাই (Mithai) রানী। সদ্য জি বাংলার (Zee Bangla) তরফ থেকে শেয়ার করা ধারাবাহিকের প্রোমো তেমনটাই জানাচ্ছে।

মিঠাই এবং সিদ্ধার্থের হস্তক্ষেপে অবশেষে রুদ্র এবং নিপার বিয়েটা হতে চলেছে। অনুরাধা-সমরেশের বিয়ের পর রুদ্র-নিপার বিয়ে দেখানোর দাবি তুলছিলেন দর্শকরা। কিন্তু এদিকে বিয়ের আসরেই সিদ্ধার্থকে প্রাণে বাঁচাতে গিয়ে ওমির গুলিতে মৃত্যুর মুখে পড়েছে মিঠাই।

তবে মিঠাই রানীকে এই বিপদে দেখে কিন্তু দর্শকদের একাংশ উদ্বিগ্ন হওয়ার বদলে বেজায় খুশি হয়েছেন। কারণ তাদের বক্তব্য এবার অন্তত মিঠাইতে আবার সিদ্ধার্থ এবং মিঠাইয়ের গল্প ফিরবে। এতদিন ধারাবাহিকে শুধুই অন্য ট্র্যাক দেখে দেখে ক্লান্ত আর বিরক্ত হয়ে পড়েছিলেন তারা।

মিঠাই ভক্তরা এতদিন মিঠাই আর সিদ্ধার্থের রোমান্স মিস করছিলেন। যে কারণে তারা চাইছেন যেভাবেই হোক ধারাবাহিকে আবার সিধাইয়ের প্রেম দেখানো হোক। তবেই বাড়বে টিআরপি। অবশেষে তাদের দাবি পূরণ করলো ওমি। ওমি আগারওয়াল জেল থেকে ছাড়া পেতেই মোদক বাড়িতে চড়াও হয় এবং সিদ্ধার্থকে গুলি করতে গিয়ে মিঠাইকে গুলি করে বসে।

রুদ্র-নিপার বিয়ের আসরেই ঘটে যায় এই দুর্ঘটনা। এই প্রোমো দেখে দর্শকরা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন। উৎসাহিত হয়ে কেউ লিখলেন, “যাক বাবা! এবার অন্তত সিড-মিঠাইয়ের ট্র্যাক দেখতে পাব। বাবার বিয়ে, নিপার বিয়ে দেখে হাঁফিয়ে উঠেছিলাম।”

কেউ কেউ কটাক্ষ করেও লিখলেন, “ওমি দা উই লাভ ইউ। এমনিতেই লিডদের কোনও রোল ছিল না। তুমি গুলি করে আমাদের উদ্ধার করে দিলে। বাঁচিয়েছ। থ্যাঙ্ক ইউ।” কেউ লিখেছেন, “এরকমই একটা প্রোমোর জন্য অপেক্ষা করছিলাম। থ্যাঙ্ক ইউ।”