ছাত্রীকে বেডরুমে নিয়ে গিয়ে নোংরামি! জি বাংলার সিরিয়াল দেখে ছিঃ ছিঃ করছে সবাই

শিক্ষক-ছাত্রীর সম্পর্ক নিয়ে নোংরামি! ‘জঘন্য সিরিয়াল’ বন্ধের ডাক দিলেন দর্শকরা

বাস্তববাদী কাহিনী দেখিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছে গেছে জি বাংলা (Zee Bangla) -র কার কাছে কই মনের কথা (Kar Kachhe Koi Moner Kotha) ধারাবাহিকটি। মানালি দে (Manali Dey) -র প্রতিবাদী চরিত্র দর্শকদের মন কেড়ে নিলেও ধারাবাহিকের পরাগ দু’চোখের বিষ। আর এই নিয়েই টিআরপি তালিকায় ভালো খেল দেখাচ্ছে এই মেগা। কিন্তু এরপরেও বয়কটের মুখে পড়লো মানালির সিরিয়াল। জানেন কী কেনো এই সিরিয়াল বন্ধের ডাক দিল দর্শকমহল? চলুন জেনে নিন।

সাম্প্রতিক পর্বে দেখানো হয়েছে, পরাগের থেকে পাঁচ লাখ টাকা নেওয়ায় শিমুলকে প্রথমে সবাই ভুল বুঝেছিল। কিন্তু পুতুল সত্যিটা বলে দেওয়ার পর সবার ভুল ভাঙে। তখন সবাই শিমুলের কাছে হাত জোর করে ক্ষমা চেয়ে নেয়। আর এদিকে এক্সট্রা টাকা ইনকামের নাম করে নতুন নাটক শুরু করলো পরাগ। এবার থেকে সে নাকি বাড়িতে টিউশন পড়িয়ে টাকা রোজগার করবে।

Kar Kache Koi Moner Kotha

সেই কারণেই শিমুলের শশুর বাড়িতে হঠাৎ এসে হাজির হয়েছে পরাগের নতুন স্টুডেন্ট। শিমুল তাকে যখন জিজ্ঞেস করে সে কিসে পড়ে, মেয়েটি জানায় সে কলেজে পড়ে। শিমুল তাকে বলে, পরাগ তো অনেক আগে বিএসসি পাস করেছে, সে কি পারবে পড়াতে? তখন সেই মেয়েটি বলে সে শুধু অঙ্ক করবে। এরপর পরাগ এসে মেয়েটিকে নিজের ঘরে নিয়ে যেতে চাইলে শিমুল বাধা দেয়। কিন্তু পরাগ সেকথা না শুনে তার ছাত্রীকে নিয়ে ঘরের ভেতর চলে যায়।

এরপর দেখা যায় পড়ানোর নামে বন্ধ ঘরের ভিতর ছাত্রীর সাথে বেশ গল্প করতে থেকে পরাগ। ছাত্রী কি ভালোবাসে কি বাসেনা, সিনেমা দেখা হয় কিনা সব জানতে চায় পরাগ। শুধু তাই নয় নিজের সংসারে বউয়ের সঙ্গে ঝামেলা অশান্তি সবটাই ছাত্রের সঙ্গে ভাগ করে নেয় পরাগ। নিজেকে সে এমন ভাবে তার ছাত্রীর সামনে তুলে ধরে যেন বিয়ের পর তাকে একটুও শান্তি দেয়নি তার স্ত্রী।

Kar Kache Koi Moner Kotha

আরও পড়ুন : সরকারি চাকরি ছেড়ে অভিনয়! তাড়িয়ে দেয় পরিবার, কীভাবে ঘুরে দাঁড়ালেন খরাজ মুখার্জী

একসময় গল্প করতে করতে হাসিতে ফেটে পড়ে শিক্ষক এবং ছাত্রী। ঠিক সেই সময় ঘরে চলে আসে শিমুল। সে বলে এটাই কি পড়াশুনা হচ্ছে? আর ঠিক তখন পরাগের ছাত্রী শিমুলকে বলে তার এতই যখন ইনসিকিউরিটি তখন স্বামীর সঙ্গে থাকে না কেন শিমুল? বাইরের একটি মেয়ের এরকম সাহস দেখে অবাক হয়ে যায় শিমুল।

আরও পড়ুন : টাকার লোভে এমন ‘কুচুটে’ চরিত্রে অভিনয় করছেন! মুখ খুললেন শিমুলের শাশুড়ি মধুবালা

KAR KACHE KOI MONER KOTHA

আরও পড়ুন : বাস্তবেও মাথাগরম! অত্যাচার করেন স্ত্রীকে? স্বামীর কীর্তি ফাঁস করলেন পর্দার ‘পরাগে’র স্ত্রী

তবে দর্শকরা এই দৃশ্য একদমই ভালো ভাবে নেননি। তাদের মতে শিক্ষকতার মতো সম্মানীয় পেশাকে ছোট করা হচ্ছে। সমাজের কাছে শিক্ষকদের সম্পর্কে ভুল ধারণা পৌঁছাচ্ছে এই সিরিয়ালের মধ্য দিয়ে। যেমন একজন দর্শক বলেছেন, “এই ধারাবাহিকে এবার শিক্ষকতা পেশাকে কলঙ্কিত করা হচ্ছে। অবিলম্বে এই ধারাবাহিক বন্ধ করা উচিত।” অন্য একজন লিখেছেন, “ছিঃ একজন শিক্ষক এমন হলে মানুষ নাটক দেখে কি শিখবে।” এখন দেখার দর্শকদের বয়কটের মুখে পড়ে কী সিদ্ধান্ত নেই ধারাবাহিকটির নির্মাতারা। গল্পের প্লট পরিবর্তন করেন? নাকি নিয়ে আসবেন অন্য কোনো টুইস্ট।

আরও পড়ুন : রাতারাতি বদলে গেল নায়িকা! ‘লাভ বিয়ে আজকাল’র নতুন নায়িকা এবার এই অভিনেত্রী