রাজা ও মাম্পি’র মিলন না হলে বয়কট হবে ধারাবাহিক, সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব দর্শকরা

সন্ধে ৬.৩০ মানেই বাংলার ঘরে ঘরে “দেশের মাটি’র সুর শোনা যাবে। ধারাবাহিকপ্রেমীদের কাছে বিগত বেশ কয়েকদিন ধরেই “স্টার জলসা’র “দেশের মাটি’ ধারাবাহিকটির জনপ্রিয়তার তুঙ্গে উঠেছে। আট থেকে আশি, ধারাবাহিকটি এখন সকলেরই বেশ প্রিয়। সন্ধ্যে ৬.৩০টা বাজলেই তাই চ্যানেলের মোড় ঘুরে যাচ্ছে। যারা “স্টার জলসা”র ঠিক ততটাও অনুরাগী নন, তাদেরও এক সূত্রে বেঁধে রেখেছে “দেশের মাটি’র টান।

ধারাবাহিকটির মূল আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছে “রাজা-মাম্পি’র জুটি। এই জুটির প্রেম, মন ভাঙ্গা-গড়ার পর্ব, “মাম্পি’র প্রেমে “রাজা’র ধরা দেওয়া এবং সর্বোপরি বিরহ, আপাতত দর্শক বেশ উপভোগ করছেন। আপাতত ধারাবাহিকে “রাজা-মাম্পি’র প্রেম-বিরহ পর্ব চলছে। এই পর্বে “রাজা-মাম্পি’ জুটির বিরহের অনুভূতিতে যেন একাত্ম হয়ে পড়েছেন দর্শক। ধারাবাহিকের প্রধান দুই চরিত্র, “নোয়া’ এবং “কিয়ান’ এর কেমিস্ট্রি যেন “রাজা-মাম্পি’ জুটির কাছে অনেকখানিই ফিকে হয়ে গিয়েছে।

“দেশের মাটি’ জুড়ে এখন শুধুই বিরহের সুর বাজছে। “রাজা-মাম্পি’র সম্পর্কের টানাপোড়েন তো ছিলই, এখন আবার “নোয়া’র থেকে “কিয়ান’এরও বিদায় নেওয়ার পালা এসে গিয়েছে। বিয়ের পর “নোয়া’কে স্বরূপনগরে রেখেই বিদেশে পাড়ি দিতে যাচ্ছে “কিয়ান’। এদিকে পরিবারের ষড়যন্ত্রের শিকার “রাজা-মাম্পি’র প্রেম সম্পর্কও। যার ফলে “মাম্পি’কেও “রাজা’র কাছ থেকে বিদায় নিয়ে স্বরূপনগর ছেড়ে চলে যেতে হচ্ছে।

Raja and Mulpi Desher Maati Serial

ঠিক এই মর্মেই এই ধারাবাহিকের প্রোমো সম্প্রতি প্রকাশ করেছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। যেখানে “নোয়া-কিয়ান’ এবং “রাজা-মাম্পি’ জুটির বিচ্ছেদের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। তবে এই প্রোমোকে কেন্দ্র করে নেটদুনিয়ায় সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। “রাজা-মাম্পি’র অনুরাগীরা কার্যত ধারাবাহিকের গল্পের মোড় নিয়ে বেশ আপত্তি জানাচ্ছেন। বিশেষত “নোয়া-কিয়ান’ জুটির বিচ্ছেদের সঙ্গে “রাজা-মাম্পি’ জুটির বিচ্ছেদকে একই পাল্লায় রাখাকে কেন্দ্র করেও নেটদুনিয়ায় প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।

ধারাবাহিকের এই প্রোমোর ক্যাপশনে লেখা হয়েছে “কিয়ানের বিদায়বেলায় মন মানছে না নোয়ার’! প্রোমোতে “কিয়ান’কে “নোয়া’ বিদেশ থেকে তাড়াতাড়ি ফিরে আসতে বলছে। এদিকে “মাম্পি’ও চাইছে না “রাজা’কে ছেড়ে স্বরূপনগর থেকে অন্য কোথাও চলে যেতে। তবে নিজের সিদ্ধান্তে অটল “রাজা’র বক্তব্য, “যদি সত্যি আমাকে ভালোবাসো, তবে ফিরে যাও’। “রাজা’র কথা শুনে “মাম্পি’ও চোখের জলে ভাসতে ভাসতে ঘর ছেড়ে বেরিয়ে যায়। তখন “রাজা’ “মাম্পি’কে উদ্দেশ্য করে বলে, “ভালো থেকো’!

Mumpi in Desher Maati Serial

ধারাবাহিকের প্রোমো এবং গল্পের গতি বিবেচনা করে স্বভাবতই দর্শকের মনে প্রশ্ন ওঠে, তবে কি “রাজা’-“মাম্পি’র সম্পর্কের এখানেই ইতি হতে চলেছে? চ্যানেল কর্তৃপক্ষের তেমন কোনও পরিকল্পনা থাকলে কিন্তু ধারাবাহিক বয়কট করার হুমকিও দিয়েছেন নেটিজেনদের একাংশ! তাদের মতে  “রাজা-মাম্পি’র জুটি এতটাই সুন্দর যে তারাই এই ধারাবাহিকের নায়ক নায়িকা হওয়ার দাবী রাখে। প্রোমো দেখে বহু নেটাগরিক জানিয়েছেন, “রাজা’ “মাম্পি’র মিলন না হলে ধারাবাহিকটি দেখাই বন্ধ করে দেবেন তারা!

ধারাবাহিকের প্রোমোর ক্যাপশন নিয়েও আপত্তি জানিয়েছেন নেটাগরিকদের একাংশ। তাদের দাবি এই ধারাবাহিকের বর্তমান প্রোমোর ক্যাপশন হওয়া উচিত ছিল “রাজা-মাম্পি’ নির্ভর। “রাজা মাম্পি’ জুটির এক অনুরাগী লিখেছেন, “সব থেকে যদি কষ্টের কিছু হয়ে থাকে সেটা হল রাজা-মাম্পির এই প্রেমের বিষয়টা। ওরা সারাজীবনের মতো আলাদা হয়ে যাচ্ছে, কিয়ান আর নোয়ার সাথে এক তো হল না। তিনি দাবি করেন ক্যাপশনটা রাজা-মাম্পিকে নিয়ে করা উচিত ছিল। আচ্ছা, আপনারা দুটি জুটিকে একচোখে দেখলে কীসের সমস্যা আছে বলুন তো?’

প্রসঙ্গত, দর্শকদের একাংশের মতে “দেশের মাটি” ধারাবাহিকে “রাজা-মাম্পি’ জুটির জনপ্রিয়তা “নোয়া-কিয়ান’ জুটির জনপ্রিয়তার চেয়ে ঢের বেশি। এই নিয়ে সম্প্রতি “নোয়া’র চরিত্রের অভিনেত্রী শ্রুতি দাসকে ট্রোল করেছিলেন নেটিজেনরা। “ধারাবাহিকে তো তোমরা আর নায়ক-নায়িকা রইলে না!’ মন্তব্য করেছিলেন জনৈক নেটিজেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে শ্রুতি সঙ্গে সঙ্গে জানিয়েছিলেন, দেশের মাটি ধারাবাহিকটি নায়ক-নায়িকা নির্ভর নয়। “নোয়া-কিয়ান’ নির্ভর নয়। এই ধারাবাহিকের প্রতিটি চরিত্রই নায়ক-নায়িকার মতো গুরুত্ব পাওয়ার দাবি রাখে।