অসমের প্রতিযোগীকে ‘চাউমিন’, ‘মোমো’ বলে অপমান! রাঘবকে ধুয়ে দিলেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী

অসমের প্রতিযোগীকে চাইনিজদের সঙ্গে তুলনা! সঞ্চালক রাঘবকে তুলোধোনা করলেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী

Assam CM Himanta Biswa Sarma calls out dance reality show Dance Deewane for Racism

নাচের রিয়েলিটি-শো ‘ডান্স দিওয়ানে’কে (Dance Deewane) ঘিরে প্রতিবাদে সরব হয়ে উঠলেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা (Himanth Biswa Sarma)। অসমের মুখ্যমন্ত্রীর নজরে রয়েছেন এই প্রতিযোগিতার সঞ্চালক রাঘব জুয়াল (Raghav Juyal)। রাঘবের বিরুদ্ধে বর্ণবিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ তুললেন মুখ্যমন্ত্রী। অভিযোগ, প্রতিযোগিতা মঞ্চে অসমের এক প্রতিযোগীকে ‘মোমো’, ‘চাউমিন’ বলে সম্বোধন করেছেন রাঘব।

‘ডান্স দিওয়ানে সিজন ৩’ এ অংশগ্রহণ করেছে অসমের প্রতিযোগী গুঞ্জন সিং। বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে অসমের প্রতিযোগী গুঞ্জন সিংকে স্টেজে ডেকে আনার সময় চীনা ভাষায় কথা বলছেন রাঘব। সেসময় ‘চাউমিন’, ‘মোমো’ শব্দগুলির উল্লেখ করেছেন তিনি। অসমের মুখ্যমন্ত্রীর নজরে ভিডিওটি আসতেই তিনি রাঘবের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন।

ভিডিওটি টুইটারে তুলে ধরে অসমের মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, “গুয়াহাটির এক প্রতিযোগীকে একটি জনপ্রিয় শোয়ের হোস্ট বর্ণবিদ্বেষমূলক কথা বলেছে,সেই বিষয়টি আমার নজরে এসেছে। এই ঘটনা অত্যন্ত লজ্জাজনক এবং কখনও তা একেবারে গ্রহণযোগ্য নয়। বর্ণবিদ্বেষের কোনও স্থান আমাদের দেশে নেই। আমাদের সকলের এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো উচিত”।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কিরেন রিজিযুও ভিডিওটি সম্পর্কে রাঘবের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে লিখেছেন, “অসম-উত্তর পূর্বের বাসিন্দারা সমস্ত দিক থেকেই ভারতীয়”। ভিডিওটিকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে। TIPRA-র চেয়ারম্যান প্রদ্যোত মাণিক্য রাঘবকে উদ্দেশ্য করে টুইটারে লিখেছেন, “এই থার্ড গ্রেড কমেডিয়ান আমাদের উত্তর-পূর্বের বাসিন্দাদের চাইনিজদের সঙ্গে তুলনা করছে। কিন্তু, সামনে বসা দর্শকরাও এই বিরক্তিকর মন্তব্যে হাসছেন কীভাবে! কীভাবে হাততালি দিচ্ছেন! এরপরেও মানুষ আমাদের প্রশ্ন করে কেন আমরা অন্যান্যদের থেকে নিজেদের আলাদা মনে করি?”

বিভিন্ন রাজ্য এবং সমগ্র দেশের নেতাদের রোষানলে পড়ে শেষমেষ মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছেন রাঘব জুয়াল। বিতর্কিত ভিডিওটি সম্পর্কে তিনি সাফাই দিয়ে বলেন, “একটি ছোট দৃশ্যকে সামনে রেখে পুরো বিষয়টি বিবেচনা করা উচিত নয়। গুয়াহাটির প্রতিযোগী গুঞ্জনকে আমরা প্রথম দিনেই জিজ্ঞাসা করেছিলাম তোমার শখ কী? ও বলেছিল আমি চাইনিজ বলতে পারি। এরপর তাঁকে আমরা চাইনিজে কথা বলতে বলি। সেই থেকে এই বিষয়টি শুরু হয়। পুরো শোতেই এই নিয়ে মজা হয়েছিল। আমার অনেক বন্ধু নাগাল্যান্ড-অসমে থাকেন। তাঁদের কারও ভাবাবেগে আঘাত করতে আমি চাইনি। যদি আরও তাতে খারাপ লেগে থাকে আমি ক্ষমা চাইছি”।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Raghav Juyal (@raghavjuyal)