জন্মদিনে চরম সিদ্ধান্ত নিলেন অমিতাভ বচ্চন, ভক্তদের জন্য করলেন বড় ঘোষণা

0
Amitabh Bachchan walks away from Pan Masala Ad

সম্প্রতি জনপ্রিয় এক পান মশলা প্রস্তুতকারক সংস্থার প্রচারের মুখ হয়ে উঠেছিলেন অমিতাভ বচ্চন (Amitabh Bachchan)। তবে অমিতাভের এই উদ্যোগ কার্যত মেনে নিতে পারেননি তার অনুরাগীরা। পান মশলার মতো শরীরের পক্ষে ক্ষতিকর তামাকের ব্যবহারের স্বপক্ষে বলিউডের শাহেনশাহ প্রচার চালাবেন! এমনটা আশা করেননি নেটিজেনরা।

এই নিয়ে উন্মাদনা যখন তুঙ্গে তখনই কার্যত নিজের ভুল বুঝতে পেরে যথোপযোগী ব্যবস্থা নিলেন অমিতাভ বচ্চন। সদ্য ৭৯ তম জন্মদিন গিয়েছে তার। জন্মদিনেই কার্যত বিজ্ঞাপন থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন অমিতাভ বচ্চন। টুইটার, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম মারফত বিজ্ঞাপনের চুক্তি বাতিল করার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন তিনি।

অমিতাভ বচ্চন এর অফিশিয়াল কার্যালয় থেকে রবিবার রাতে একটি ব্লগ পোস্ট করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে সবদিক বিবেচনা করে বিজ্ঞাপন থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অমিতাভ। শুধু তাই নয়, বিজ্ঞাপন বাবদ তিনি যে অর্থ নিয়েছিলেন সেই অর্থও ওই সংস্থাকে ফেরত দিয়ে দিয়েছেন অমিতাভ বচ্চন।

ওই ব্লগে জানানো হয়েছে যে, “বিজ্ঞাপনটি প্রচারিত হওয়ার কয়েক দিন পরে বচ্চন স্যর ওই সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তার পরেই গত সপ্তাহে বিজ্ঞাপন থেকে সরে যান তিনি”। ব্লগে আরও লেখা আছে, অমিতাভ বচ্চন জানতেন না এই বিজ্ঞাপনটি আদতে তামাকজাত পণ্যের বিজ্ঞাপন। যখন তিনি জানতে পারেন এই তামাকজাত পণ্য স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর তখনই তিনি চুক্তি বাতিল করেছেন।

উল্লেখ্য, বলিউডের এক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, অমিতাভ বচ্চনের বিজ্ঞাপনটি প্রকাশ্যে আসার পরপরই গত মাসে জাতীয় স্তরের একটি তামাকবিরোধী সংস্থা অমিতাভের কাছে একটি আবেদন পাঠিয়েছিল। সেখানে অমিতাভ বচ্চনকে পান মসলার বিজ্ঞাপন প্রচারের অংশ না হওয়ার আবেদন জানানো হয়েছিল। তারপরেই কার্যত এমন সিদ্ধান্ত নিলেন অমিতাভ। উল্লেখ্য, সমালোচনা সত্ত্বেও অবশ্য অজয় দেবগন এবং শাহরুখ খানকে পান মশলার বিজ্ঞাপনের প্রচারের মুখ হিসেবে দেখা যায়।

এরপর যখন অমিতাভ বচ্চনও সেই বিজ্ঞাপনের মুখ হয়ে ওঠেন তখন তার জনৈক অনুরাগী তাকে উদ্দেশ্য করে সমাজমাধ্যমে লেখেন, “হ্যালো স্যার! আপনাকে আমার একটা প্রশ্ন করার আছে। আপনার কি প্রয়োজন পান মশলার বিজ্ঞাপন করার? তাহলে ছোট অভিনেতাদের সঙ্গে আপনার পার্থক্য কোথায়?”

উত্তরে অমিতাভ লেখেন, “কেন আমি এর সঙ্গে জড়িত? এটা যদি একটা ব্যবসা হয়, তাহলে তো আমাদেরও নিজেদের ব্যবসা নিয়ে ভাবতে হবে। যদি কোনও একটি জিনিস বাজারে ভালো চলে, তাহলে আমি কেন এটা করছি প্রশ্ন করার তো জায়গাই আসে না। এবার আপনার মনে হচ্ছে আমি কেন একাজ করছি, কারণ আমি এটার জন্য টাকা পাচ্ছি। আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে আরও অনেকেই আছেন যাঁরা কাজ করলে টাকা পান। পাশাপাশি দয়া করে ‘ততপুঞ্জিয়া’র মতো শব্দ ব্যবহার করবেন না।এটা আপনার মুখে মানায় না, যেমন আমাদের ইন্ডাস্ট্রিকে কাজ করা অভিনেতাদের সাথেও যায় না।”