অমিতাভ থেকে ঐশ্বর্য, একের পর এক কেচ্ছায় নাম ডুবিয়েছে বচ্চন পরিবার

অমিতাভ থেকে ঐশ্বর্য, বচ্চন পরিবারের প্রত্যেক সদস্যের জীবনে রয়েছে একাধিক কেচ্ছা

ব্যক্তিগত জীবন যতই লুকিয়ে রাখার চেষ্টা করুন না কেন, যতই পাপারাজ্জিদের ক্যামেরা দেখলেই তেড়ে আসুন না কেন, বচ্চন পরিবারের (Bachchan Family) কীর্তিকলাপ বারবার প্রকাশ্যে এসেছে। খোদ অমিতাভ বচ্চন (Amitabh Bachchan) থেকে শুরু করে জয়া ভাদুড়ি (Jaya Bhaduri), অভিষেক বচ্চন (Abhishek Bachchan) এমনকি তাদের পুত্রবধূ ঐশ্বর্য রাই বচ্চনের (Aishwarya Rai Bachchan) সম্পর্কেও কানাঘুষাতে অনেক কলঙ্কের কথা শোনা যায়। আজ এই প্রতিবেদনে রইল বচ্চন পরিবারের সদস্যদের তেমনই কিছু কেচ্ছা (Bachchan Family’s Darty Secrets) যা প্রকাশ্যে এসে পরিবারের নাম ডুবিয়েছে।

অমিতাভ বচ্চন বি গ্রেড ছবিতে কাজ করতেন : একসময় বলিউডে দাপিয়ে রাজত্ব করেছেন অমিতাভ বচ্চন। এখনও ইন্ডাস্ট্রিতে প্রচুর নাম-ডাক এবং সম্মান রয়েছে। কিন্তু একটা সময় ছিল যখন টাকার অভাবে তাকে বি গ্রেড ছবিতেও অভিনয় করতে হয়েছিল। তখন ‘বুম’ এর মত ছবিতেও অভিনয় করেছিলেন বলিউড শাহেনশাহ। কারণ তখন প্রায় দেউলিয়া হতে বসেছিলেন অমিতাভ। বচ্চন পরিবারের উপর এই অন্ধকার নেমে আসে ২০০০ সালের পর।

জয়া বচ্চন এবং শ্বেতা বচ্চনের ঝামেলা : ক্যামেরার সামনে যতই আদর্শ মা-মেয়ের অভিনয় করুন না কেন, বাস্তবে নাকি তাদের সম্পর্ক একেবারেই ভাল না। শোনা যায় মা-মেয়ের মধ্যে নাকি মুখ দেখাদেখিও বন্ধ। জয়া নাকি মাত্র ২১ বছর বয়সে শ্বেতাকে একপ্রকার জোর করেই বিয়ে দিয়েছিলেন নিখিল নন্দার সঙ্গে। তবে তাদের বিবাহিত জীবন সুখের হয়নি। যে কারণে মা-মেয়ের সম্পর্কটাও খারাপ হয়ে যায়।

রেখার সঙ্গে অমিতাভের প্রেম : রেখার সঙ্গে অমিতাভের প্রেম বলিউডের ওপেন সিক্রেট। প্রকাশ্যে অবশ্য কখনও তারা এই সম্পর্ককে স্বীকৃতি দেননি। কিন্তু রেখা এবং অমিতাভের সম্পর্কের খবর দাবানলের মত ছড়িয়ে পড়েছিল ইন্ডাস্ট্রিতে। রেখা অমিতাভকে মনে মনে স্বামী বলেই মানেন। সেই কারণেই নাকি নিজের স্বামীর মৃত্যুর পরও রেখার সিঁথিতে জ্বলজ্বল করে সিঁদুর।

ঐশ্বর্যর সঙ্গে জয়ার সম্পর্ক : মেয়ের পর ছেলে অভিষেকের বউকে নিয়েও জয়ার অনেক বাছবিচার ছিল। শোনা যায় করিশ্মা কাপুরের সঙ্গে বিয়ে ভেঙে যাওয়ার পর নাকি রানী মুখোপাধ্যায়কেই ছেলের বউ করে আনার কথা ভেবেছিলেন জয়া। কারণ ঐশ্বর্যর জনপ্রিয়তা অভিষেকের তুলনায় বেশি। যদিও শেষমেষ ঐশ্বর্য-অভিষেকের ভালবাসার কাছে মাথা নত করে তিনি তার সিদ্ধান্ত বদল করেন।

অমিতাভ বচ্চন এবং ঐশ্বর্যের সম্পর্কে : সম্পর্কে শ্বশুর-বউমা হলেও অমিতাভ এবং ঐশ্বর্যর ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে বহুবার। শোনা যায় বাস্তবে নাকি অমিতাভ এবং ঐশ্বর্য একে অপরের অনেক বেশি ঘনিষ্ঠ। শুধু অমিতাভের প্রতি অনুরাগের কারণেই নাকি বচ্চন পরিবারের বউ হয়ে এসেছিলেন ঐশ্বর্য। যদিও ঐশ্বর্য এবং অমিতাভের ভক্তরা এই খবরকে স্রেফ রটনা বলেই মনে করেন।