বিয়ের পিঁড়িতে আলতা ফড়িংয়ের অভিনেত্রী, মালাবদল থেকে সাতপাক, রইল বিয়ের অ্যালবাম

রাতারাতি সাতপাক ঘুরে নিলেন আলতা ফড়িংয়ের অভিনেত্রী, রইল বিয়ের অ্যালবাম

Alta Phoring Radharani Naskar aka Saoli Chatterjee Marriage Album

কিছুদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়াতে সুখবরটি শুনিয়েছিলেন স্টার জলসার (Star Jalsha) আলতা ফড়িংয়ের (Alta Phoring) প্রধান অভিনেত্রী। নভেম্বর মাসের শেষেই সাত পাকে বাঁধা পড়তে চলেছেন তিনি। হবু বরকে নিয়ে কাছের বন্ধুদের বাড়িতে আইবুড়ো ভাতও খেয়েছিলেন এবং সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করেছেন সেই ছবি। অবশেষে বহুদিনের প্রেমিকের সঙ্গে সাত পাক ঘুরলেন অভিনেত্রী শাওলি চ্যাটার্জী (Saoli Chatterjee)।

শাওলি চ্যাটার্জী আলতা ফড়িং ধারাবাহিকের নায়িকার মায়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন। ফড়িংয়ের মা রাধারানী নস্কর চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। নায়িকার মায়ের চরিত্র হলেও রাধারানী নস্করকে দর্শকরা ভীষণ পছন্দ করেন। জীবনে তার সংগ্রাম, বিয়ের আগে গর্ভবতী হওয়া, জিমনাস্টিকের ন্যাশনাল লেভেলের চ্যাম্পিয়ন হওয়া সত্ত্বেও মাঝপথে কেরিয়ার নষ্ট, ফড়িংকে একা হাতে মানুষ করা, সুখে রাখার চেষ্টা সব কিছু মিলিয়ে চরিত্রটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ গল্পের খাতিরে।

তবে ইদানিং ধারাবাহিকে তাকে আর তেমন দেখা যাচ্ছে না। অবশেষে স্পষ্ট হল তার কারণ। পর্দায় রাধারানী সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে কোনদিনও বিয়ে করেননি ঠিকই তবে বাস্তবে তিনি তার মনের মানুষের সঙ্গে সাত পাক ঘুরেই ফেললেন। বিয়ের এই মরসুমে টলিপাড়াতে ফের একবার বিয়ের সানাই বেজে উঠল। আলতা ফড়িংয়ের টিম এ দিন তার বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিল।

শাওলী চ্যাটার্জির স্বামীর নাম প্রতীক। তাদের প্রথম আলাপ হয়েছিল থিয়েটারের মঞ্চে। সেখান থেকে তাদের বন্ধুত্ব এবং প্রেমের সূত্রপাত হয়। ৯ বছর প্রেম করার পর শেষমেষ ২০২০-এর শেষ ভাগে সাত পাকে বাঁধা পড়লেন দুজনে। যদিও প্রথমেই তারা জানিয়ে দিয়েছিলেন বিয়েতে তেমন কোনও জাঁকজমক করবেন না। খুব সাদামাটাভাবেই মালা বদল, সিঁদুর দানের মাধ্যমে সম্পন্ন হল তাদের বিয়ে।

শনিবার দমদমের একটি অনুষ্ঠান বাড়িতে বিয়ের আসর বসেছিল। অতিথি হিসেবে সেখানে হাজির হয়েছিলেন ফড়িং অর্থাৎ খেয়ালী মণ্ডল, তার শাশুড়ি মা অর্থাৎ তুলিকা বসু, মেজ কাকিমা, অমৃতা, অভ্র অর্থাৎ অর্ণব ব্যানার্জীরা সকলেই। অভিনেত্রী একটি সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন বিয়েতে খুব বেশি আচার অনুষ্ঠান তারা করেননি। সবকিছু ঘরোয়াভাবেই হয়েছে। তবে খাওয়া-দাওয়াটা কিন্তু জমিয়েই হয়েছে। সেদিকে কোনও কার্পণ্য করেননি দুজনে।

বিয়ে হলেও আপাতত এখনই কোনও প্ল্যান করে উঠতে পারেননি নব দম্পতি। দুজনেই আপন আপন ক্ষেত্রে কাজ নিয়ে ভীষণ ব্যস্ত। তবে শুটিং থেকে যদি একটু সময় পান তাহলে হয়তো কোথাও থেকে ঘুরে আসতে পারেন। উল্লেখ্য নভেম্বর মাসের শুরুতেই অভিনেতা সস্ত্রীক অনির্বাণ ভট্টাচার্য শাওলি এবং প্রতিককে আইবুড়ো ভাত খাইয়েছেন নিজেদের বাড়িতে। সেই ছবি শেয়ার করেছিলেন অভিনেত্রী। তখনই তাদের বিয়ের খবর জানাজানি হয়।