ধন সম্পদে নীতা আম্বানিকেও টেক্কা দেয় সুনীল শেট্টির স্ত্রী, বলিউড ডাকে ‘লেডি আম্বানি’ নামে

Sunil Shetty

বলিউড (Bollywood) অভিনেতা সুনীল শেট্টি (Sunil Shetty) একসময় ছবিতে অভিনয় করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করেছেন। হালফিলে অবশ্য তাকে অভিনয় করতে তেমন দেখা যায় না। তবুও বিলাসিতার সঙ্গে একটুও আপোষ করেন না সুনীল শেট্টি এবং তার পরিবার। বলিউডে কাজ না করেও বিলাসবহুল জীবনযাপন করছেন শিল্পা শেট্টি এবং তার পরিবার। নেপথ্যে রয়েছেন তার স্ত্রী মানা শেট্টি (Mana Shetty)।

সুনীল শেট্টির স্ত্রী মানা একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। মূলত ব্যবসা থেকেই প্রচুর অর্থ উপার্জন করছেন তিনি। একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবে মুম্বাইয়ে তার অনেক নামডাক রয়েছে। তাই তাকে বলা হয় বলিউডের ‘লেডি আম্বানি’! কারণ রিলায়েন্সের কর্ণধার মুকেশ আম্বানি পত্নীর তুলনায় তার সম্পদ কিছু কম নয়।

তবে শুধু ব্যবসা নয়, একাধিক এনজিওর সঙ্গেও যুক্ত তিনি। মানা তার স্বামী সুনীল শেট্টির সঙ্গে ‘S2 Realty & Developers’ নামের একটি রিয়েল এস্টেট ফার্ম খুলেছেন। এই ফার্মের মাধ্যমে মুম্বাইজুড়ে ২১টি বিলাসবহুল ভিলা তৈরি করে ফেলেছেন মানা। ৬৫০০ বর্গফুট জুড়ে বিস্তৃত রয়েছে একেকটি ভিলা। প্রতিটি ভিলার ভেতরে দামি দামি আসবাবপত্রসহ সমস্ত আধুনিক সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা রয়েছে।

ব্যবসার পাশাপাশি সামাজিক কার্যকলাপের সঙ্গেও জড়িত মানা। ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’ নামের একটি এনজিওর সঙ্গে জড়িত তিনি। যেখানে দরিদ্র শিশুদের উন্নতির জন্য কাজ করা হয়। এই দাতব্য সংস্থার জন্য মানা নিয়মিত তহবিল সংগ্রহের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। এছাড়া বিভিন্ন মুম্বাই শহরজুড়ে প্রদর্শনীর আয়োজন করে সেখান থেকে সংগৃহীত অর্থ ‌তিনি অভাবী মহিলাদের হাতে তুলে দেন।

আসলে অভিনয়ের থেকেও শেট্টি পরিবারের হাতে বেশি অর্থ আসে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান থেকে। ভিলা ছাড়াও প্রোডাকশন হাউস, বুটিক, রিয়েল এস্টেট এবং রেস্তোরাঁর মতো একাধিক ব্যবসা রয়েছে শেট্টি পরিবারের। মানা যদি না থাকতেন তাহলে সুনীলের পক্ষে এত ব্যবসার দেখভাল করা সম্ভব ছিল না। এই কারণেই তাকে বলিউডের ‘লেডি আম্বানি’ বলা হয়।