অ্যাপ ডাউনলোড না করেই হবে Video কল, নতুন অ্যাপ আনল Jio

all you need to know about jio meet app

করোনা মহামারী এক নতুন পৃথিবীর জন্ম দিয়েছে। বিশ্বজুড়ে মানুষ লকডাউনের কারণে গৃহবন্দি। বন্ধ হয়ে গেছে অফিস, আদালত, স্কুল, কলেজের স্বাভাবিক কাজকর্ম। কিন্ত সেই কাজকর্মকে কিছুটা স্বাভাবিক করতে শুরু হয়েছে নতুন প্রযুক্তি অনলাইন মাধ্যম। যদিও এই ব্যবস্থা অনেকদিন আগেই শুরু হয়েছে তবু এর ব্যবহারে তেমন বাধ্যবাধকতা ছিল না। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে এটাই হয়ে উঠেছে কাজকর্ম চালনা ও যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম।

দেশের সবচেয়ে বড় টেলিকম সংস্থা জিও এই অবস্থায় বাজারে আনছে ভিডিও কনফারেন্সের নানা সুযোগ-সুবিধা।
এর আগে জুম অ্যাপ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল। কিন্ত এই ব্যবস্থায় নানা ত্রুটি দেখা দেয়। সতর্ক করে খোদ কেন্দ্রীয় সরকার। এবার জিও নিয়ে এলো এইচডি ভিডিও কনফারেন্সিং জিওমিট (Jio meet ) অ্যাপ। একবছর আগেই এটিকে লঞ্চ করা হয়েছিল। তবে এই প্রথম অফিসিয়ালি জিও প্ল্যাট ফর্মে একে আনা হল।

জিওমিট ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপটি ব্যক্তিগত ও ব্যবসায়িক দুই কারণে ব্যবহার করা যাবে। রিলায়েন্স জিও ইনফোকমের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট পঙ্কজ পাওয়ার সাংবাদিকদের জানান “জিওমিটের বড় সুবিধা হল, যে কোন ডিভাইস ও যেকোন অপারেটিং সিস্টেমে কাজ করবে।”

জিওমিট অ্যাপটাকে গুগল প্লে স্টোর বা আপেল অ্যাপ স্টোর থেকে ডাউনলোড করা সম্ভব হবে। উইন্ডোজ ও ম্যাকের জন্য জিওমিটের অ্যাপ আছে ও আউটলুকের জন্য প্লাগইন ব্যবহার করা যায়। সেগুলো ম্যাক অ্যাপ স্টোর এবং উইন্ডোজ মার্কেট প্লেস থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

জিওমিটে কনফারেন্সে যোগ দেওয়ার ইনভাইটেশন এলে অ্যাপ ডাউনলোড না করেও ভিডিও কলের ইনভাইটেশন লিঙ্কে ক্লিক না করেও গুগল ক্রোম এবং মজিলা ফায়ারফক্স দিয়ে মিটিংয়ে যোগ দেওয়া যাবে। জিওমিটে মিটিং সিডিউল করার অপশনও রয়েছে। যেখানে আগে থেকে মিটিংয়ের জন্য সল্ট বুক করে রাখা যাবে। একসঙ্গে ১০০ জন এই ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দিতে পারবেন জিওমিটের মাধ্যমে।

এছাড়াও আছে ই-হেলথ, ই-এডুকেশনের সুযোগ সুবিধা। ই-হেলথে পাওয়া যাবে চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলা, প্রেসক্রিপসন পাওয়া, ওষুধপত্রের অর্ডার দেওয়ার সুবিধা। চিকিৎসকরা ডিজিটল ওয়েটিং রুম বানাতে পারবেন রোগীদের জন্য।

ই- এডুকেশনের ক্ষেত্রে ভার্চুয়াল ক্লাসরুম বানানো যাবে, শিক্ষকরা নিতে পারবেন ক্লাস, হোম ওয়ার্ক দেওয়া থেকে হোম ওয়ার্ক সাবমিট করা, পরীক্ষা পরিচালনা করা ও স্কুলের প্রশাসনিক কাজকর্ম সহজে এই অ্যাপের মাধ্যমে করা যাবে। জিও রিলায়েন্সের কর্ণধার জানিয়েছেন, খুব সহজে সবাই এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারবেন। তাঁর আরও দাবি, গুগল মিট, হাউজ পার্টির তুলনায় জিওমিট অনেকবেশি কার্যকরী সুযোগ-সুবিধা দেবে।