বিশ্বের সবথেকে দামি সবজি, ১ লক্ষ টাকা কেজি! ১ কাঠা চাষ করলেই কোটিপতি

১ কেজি সবজির দাম ১ লক্ষ টাকা! বিশ্বের সবথেকে দামি সবজি এটাই

হিউমুলাস লুপুলাস (Humulus Lupulus) বা হপ শুটস (Hop Shoots), খুব কম মানুষই এই গাছের নাম শুনেছেন। ভারতের কথা বলতে গেলে অধিকাংশ ভারতবাসীই এই সবজির নাম কখনও শোনেননি। তবে সারা বিশ্বের কাছে হপ শুটস গাছটির আলাদা পরিচয় রয়েছে। এটি বিশ্বের সবথেকে দামি সবজির গাছ। এর এক কেজির দাম প্রায় ১ লক্ষ টাকার কাছাকাছি! ভারতে নয়, আমেরিকা-ইউরোপের মত দেশগুলিতে এই সবজির প্রচুর চাষ হয়ে থাকে।

হপ শুটসের বিজ্ঞানসম্মত নাম হিউমুলাস লুপুলাস (Humulus Lupulus)। এটি একটি বহুবর্ষজীবী ঝোপ জাতীয় উদ্ভিদ। ৭৩৬ সালে জার্মানিতে প্রথম এই সবজির চাষ করা হয়েছিল। ১০৭৯ সালে প্রথমবার পানীয় প্রস্তুতিতে ব্যবহার করা হয় এই গাছ। তারপর গবেষণা করে এর আরও অনেক ঔষধি গুণের কথা জানা গিয়েছে। এই সবজি দেখতে অনেকটা অ্যাসপারাগাসের মত এবং স্বাদেও নাকি অনেকটাই অ্যাসপারাগাসের মতোই।

Hop Shots

অ্যাসপারাগাস যে পদ্ধতিতে রান্না করা হয়, হপ শুটসও সেই একই পদ্ধতিতে রান্না করা যায়। তবে রান্না ছাড়াও এর আরও অনেক ব্যবহার রয়েছে। এই সবজি ঔষধি গুণে ভরা। এই গাছের ফুল হপ নামে পরিচিত। এর রং সবুজ রঙের এবং ভীষণ নরম। গাছ থেকে ফুল তোলার সময় অনেক সাবধান হতে হয়। তোলার সময় ফুল ক্ষতিগ্রস্ত হলে তা বিক্রয়যোগ্য থাকে না।

এই গাছের ফুল দিয়ে বিয়ার প্রস্তুত করা হয়। আবার পানীয়তে সুগন্ধি হিসেবেও কাজে লাগে এই ফুল। হপ ফুল দিয়ে তৈরি বিয়ার সহজে নষ্ট হয় না। প্রধানত পানীয় প্রস্তুতি করার জন্য গোটা বিশ্ব জুড়েই এই গাছের জনপ্রিয়তা রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ।

টিবি রোগের ওষুধ প্রস্তুতিতে এবং ক্যান্সার রোগের চিকিৎসায় হপ শুটস কাজে লাগে। সব সবজির মধ্যে থাকা একটি বিশেষ ধরনের অ্যাসিড ক্যান্সার আক্রান্ত কোশ নষ্ট করে। ক্যান্সারের ওষুধ তৈরি করার জন্য বিজ্ঞানীরা হপ শুটস নিয়ে নানা গবেষণা করছেন। এই কারণে এই গাছের এমন আকাশছোঁয়া দাম।

এই সবজির দাম অত্যন্ত বেশি হওয়ার কারণে স্বভাবতই ভারতে এর ভাল বাজার নেই। তবে নেট মাধ্যমে সম্প্রতি একজন আইএএস অফিসার এই সবজির ছবিসহ দাম উল্লেখ করার পর থেকেই কার্যত হপ শুটস নিয়ে দেশজুড়ে হইচই পড়ে গিয়েছে। পাতে না পড়ুক, পৃথিবীর সবথেকে দামি সবজির ছবি এক ঝলক স্রেফ চোখে দেখার জন্য উদগ্রীব হয়েছেন নেটিজেনরা।