ভারতীয় না হয়েও বেআইনিভাবে ভারতে রয়েছেন! ফাঁস হয়ে গেল অক্ষয়ের কারচুপি

উড়ে এসে জুড়ে বসেছেন, কুকীর্তি ফাঁস হতেই ফেঁসে গেলেন অক্ষয় কুমার

Akshay Kumar said he is going to get Indian passport very soon

বলিউডে (Bollywood) এমন অনেক মহারথী রয়েছেন যারা এই দেশে থেকে এই দেশের সিনে দুনিয়াতে কাজ করে দুই হাতে কোটি কোটি টাকা উপার্জন করলেও আদতে এই দেশের নাগরিকত্বই (Indian Citizenship) নেই কারও কাছে। অক্ষয় কুমার (Akshay Kumar), ক্যাটরিনা কাইফসহ এই তালিকাটা বেশ দীর্ঘ। অক্ষয় কুমারকে তো এই কারণে নেটিজেনরা খোঁটা দিয়ে ডাকেন ‘কানাডা কুমার’ বলে! বারবার এই কটাক্ষের শিকার হতে হতে তিতিবিরক্ত হয়ে উঠেছেন অক্ষয়।

আসলে অক্ষয় কুমার নিজেকে মনে প্রাণে ভারতীয় বলে দাবী করলেও তিনি কানাডার নাগরিকত্ব ধারণ করেন। ভারতের নাগরিকদের ২ দেশের নাগরিকত্ব ধারণ করার চল নেই। তাহলে তিনি ভারতীয় পাসপোর্টের জন্য আবেদন করছেন না কেন? অবশেষে মুখ খুললেন অক্ষয় কুমার। তিনি নাকি ৩ বছর আগেই ভারতের পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেছিলেন। অবশেষে তার সেই আবেদন নাকি মঞ্জুর হয়েছে।

Akshay Kumar Charge Rs 99 Crores for Bachchan Pandey

অক্ষয় কুমার জানিয়েছেন তিনি এবার খুব তাড়াতাড়িই ভারতের নাগরিকত্ব পেতে চলেছেন। ভারতের পাসপোর্টের জন্য তিনি ২০১৯ সালে আবেদন করেছিলেন। মাঝে করোনার কারণে সেই কাজ কিছুদিনের জন্য থমকে যায়। কিন্তু এরই মধ্যে পুরোদস্তুর কাগজে কলমে ভারতে নাগরিক হয়ে ওঠার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। খুব তাড়াতাড়িই তিনি সেই পাসপোর্ট হাতে পেয়েও যাবেন বলে আশা করছেন।

শনিবার একটি সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেছেন ২০১৯ সালে তিনি ভারতীয় পাসপোর্টের জন্য আবেদন করবেন বলেছিলেন, সেই আবেদন তিনি করেও দিয়েছেন। তবে অতিমারির কারণে আড়াই বছর সবকিছু থমকে থেকেছে। তবে তিনি আশাবাদী খুব তাড়াতাড়িই তার হাতে ভারতীয় পাসপোর্ট পৌঁছে যাবে। এদিকে অক্ষয় কুমার সাংবাদিকদের সামনে এই কথা স্বীকার করে নিতেই সোশ্যাল মিডিয়াতে উঠেছে সমালোচনার ঝড়।

নিন্দুকরা অক্ষয়কে কটাক্ষ করে বলছেন তার মানে উনি স্বীকার করেই নিলেন যে এতদিন বেআইনিভাবে তিনি দেশে ছিলেন। কেউ আবার বলছেন বিদেশের নাগরিক হয়ে এই দেশে চুটিয়ে ব্যবসা করছেন, এদের বেলায় কি আইন অন্ধ থাকে? যদিও অক্ষয়ের এর আগে বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন তিনি মনেপ্রাণে ভারতীয় এবং আজীবন ভারতীয়ই থাকবেন।

Akshay Kumar House

যদিও অক্ষয়ের সেই দাবি শুনে কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছিলেন তাহলে তিনি কানাডার পাসপোর্ট নিয়ে কী করছেন? উত্তরে অক্ষয় জবাব দেন তাকে গত ৭ বছর ধরে কানাডা যাতায়াত করতে হয়। তিনি যেহেতু ভারতে থাকেন এবং এখানেই কাজ করেন তাই তিনি ভারতেই কর দেন। উল্লেখ্য, বলিউডের সর্বাধিক কর দাতা তারকা হিসেবে কিন্তু অক্ষয় কুমারের নামই রয়েছেন। খাতায়-কলমে কানাডার নাগরিক হলেও তিনি যে নেহাত কর ফাঁকি দিয়ে এদেশে রয়েছেন তা নিন্দুকরা বলতে পারবেন না।