ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়েছিল মাথাতেও? কীভাবে মৃত্যু ঐন্দ্রিলার? চমকে দিচ্ছে হাসপাতালের বয়ান

মস্তিষ্কের ক্যানসারই কি কেড়ে নিল ঐন্দ্রিলার প্রাণ? চমকে দিচ্ছে হাসপাতালের বয়ান

Aindrila Sharma's death reason revealed by her doctors

পরপর ২ বার মারণ রোগ ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়ে জিতে ফিরে এসেছিলেন ঐন্দ্রিলা শর্মা (Aindrila Sharma)। টলিউডের (Tollywood) এই অভিনেত্রী আশা দেখিয়েছিলেন তারই মত হাজার হাজার রোগী এবং তাদের পরিবারকে। সমস্ত খারাপের সঙ্গে হাসিমুখে লড়াই করেছিলেন তিনি। তবে শেষ রক্ষা হল না। মাত্র ২৪ বছর বয়সেই নিভে গেল তার জীবন প্রদীপ।অথচ এমনটা তো হওয়ার কথা ছিল না। পুরোপুরি সুস্থই হয়ে উঠেছিলেন অভিনেত্রী। কেন হল ঐন্দ্রিলার এমন পরিণতি?

গত ১লা নভেম্বর বাড়িতেই ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হন ঐন্দ্রিলা। এরপর তাকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। দ্রুত অপারেশনের ব্যবস্থা করেন চিকিৎসকরা। সাময়িকভাবে তিনি স্থিতিশীল হন কিন্তু কোমাতে সংজ্ঞাহীন অবস্থাতেই থাকতে হয়েছে জীবনের শেষ কয়েকটা দিন। ভেন্টিলেশনে কড়া নজরদারিতে রাখা হয় তাকে। সিটি স্ক্যান থেকে জানা যায় তার মস্তিষ্কের বাম অংশে রক্ত জমাট বেঁধেছে।

বিশেষজ্ঞ নিউরো সার্জেন্টের এক হাতে এক কঠিন অপারেশন করানো হয়েছিল ঐন্দ্রিলার। তবে চমকে দিল বায়োপসি রিপোর্ট। কারণ সেখানেই ধরা পড়ে ইউইংয়ের সারকোমা থেকে মস্তিষ্কের মেটাস্টেস হয়েছে তার। ইউইংয়ের সারকোমা, রোগটি অত্যন্ত ভয়ানক। এমন রিপোর্ট দেখে ঐন্দ্রিলার জন্য নিউরোসার্জন, নিউরোলজিস্ট, ক্রিটিকাল কেয়ার বিশেষজ্ঞ, সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ, মেডিকেল অনকোলজিস্ট, রেডিওলজিস্ট এবং রেডিয়েশন অনকোলজিস্টের একটা মেডিকেল টিম গঠন করা হয়।

ভেন্টিলেশনে থাকলেও অস্ত্রপচারের পর কিন্তু সুস্থ হওয়ার লক্ষণ দেখা দিচ্ছিল ঐন্দ্রিলার শরীরে। কিন্তু ঠিক ১০ দিনের মাথায় তার মস্তিষ্কের বাম অংশে একটা বিশাল স্ট্রোক হয়। এরপর তার মস্তিষ্কের ডান দিকেও স্ট্রোক হয়েছিল। পরপর স্ট্রোকের কারণ হিসেবে অন্তর্নিহিত ম্যালিগনেন্সিকেই দায়ী বলে মনে করা হয়েছিল প্রাথমিকভাবে। তখন ভেন্টিলেশনের সাপোর্টের মাত্রাও বাড়াতে হয়।

হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন এরপর থেকে ভেন্টিলেশনে ঐন্দ্রিলার শারীরিক অবস্থার ক্রমশ অবনতি ঘটতে থাকে। অবস্থা সংকটজনক তো ছিলই, সেই সঙ্গে এপিসোড হার্ট অ্যাটাক হতে থাকে তার। এই সময় বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া হয়। আবার ঐন্দ্রিলার পরিবারের অনুরোধে অন্য হাসপাতালের ডাক্তারদের পরামর্শ নেওয়া হয়। হাল ছেড়ে দিয়েছিলেন তারাও।

চিকিৎসকরা ঐন্দ্রিলাকে ফিরিয়ে আনার সর্বান্তকরণে চেষ্টা করেছিলেন। তবুও শেষমেষ ভয়ংকর এই রোগে ভুগে কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ঐন্দ্রিলা শর্মা। রবিবার বেলা ১২.৫৯ মিনিট নাগাদ ঐন্দ্রিলাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। ২০১৫ সালে অস্থিমজ্জার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে দেড় বছরের চিকিৎসায় তিনি সুস্থ হতে পেরেছিলেন। এরপর ২০২১ শে ফের ফুসফুসের টিউমারের অপারেশনের পর সাময়িক সুস্থ থাকলেও ২০২২ এর শেষভাগেই ঐন্দ্রিলার জীবনের অবসান হল।