অভিষেকের বিবাহবার্ষিকী, ১৩ বছর পর প্রকাশ্যে এল গুনগুনের ড্যাডির বিয়ের ছবি

৯০ এর দশকে টলিউডের (Tollywood) সুদর্শন অভিনেতা হিসেবে দর্শকের অত্যন্ত পছন্দের অভিনেতা ছিলেন অভিষেক চ্যাটার্জী (Abhisekh Chatterjee)। অবশ্য আজও দর্শকের মনের মণিকোঠায় আগের মতোই উজ্জ্বল তার অস্তিত্ব। যদিও ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি নিজেকে ব্রাত্য, অপমানিত, অবহেলিত, ষড়যন্ত্রের শিকার বলেই মনে করেন। তবুও দর্শক অবশ্য তাদের পছন্দের অভিনেতাকে আজও বড় ভালোবাসেন। তাইতো বড়পর্দা ছেড়ে ছোটপর্দায় অভিনয় করে দর্শকের সঙ্গে সংযোগ বজায় রেখেছেন অভিষেক চ্যাটার্জী।

হালফিলে তাকে স্টার জলসার দুটি ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে। ‘মোহর’ এবং ‘খড়কুটো’ ধারাবাহিকে যথাক্রমে নায়ক এবং নায়িকার বাবার ভূমিকায় অভিষেকের অভিনয় দর্শকের নজর কেড়েছে। বিশেষত ‘খড়কুটো’ ধারাবাহিকে ‘গুনগুন’ এর বাবা ‘ডঃ কৌশিক সেন’ এর মতো গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। ধারাবাহিকে অবশ্য স্ত্রীর সঙ্গে তার মনোমালিন্য লেগেই থাকে। তবে বাস্তবে কিন্তু অভিষেক একেবারেই ‘পত্নীনিষ্ঠ ভদ্রলোক’।

স্ত্রী সংযুক্তা চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখতে দেখতে ১৩টি বসন্ত অতিক্রম করে ফেললেন অভিষেক। সম্প্রতি তাদের ১৩ তম বিবাহবার্ষিকী ছিল। এই বিশেষ দিনটি উপলক্ষে সোশ্যাল মিডিয়ায় সংযুক্তার সঙ্গে তার বিয়ের একাধিক ছবি আপলোড করেছেন অভিনেতা। মালাবদল, সিঁদুর দানসহ বিয়ের একাধিক বিশেষ বিশেষ মুহূর্তের ছবি একসঙ্গে কোলাজ করে নেট মাধ্যমে শেয়ার করেছেন তিনি।

একই সঙ্গে বিবাহ বার্ষিকী উপলক্ষে নেটিজেনদের থেকে শুভকামনাও চেয়ে নিয়েছেন তিনি। পোস্টের ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, “সাঁই রায়ার আশীর্বাদ এবং আপনাদের শুভকামনায় আমরা হাতে হাত রেখে ১৩ বছরে পা দিলাম। আশীর্বাদ করবেন”। অভিষেকের এই পোস্টটি শেয়ার হওয়ার পরেই লাইক কমেন্টের বন্যা বয়ে গিয়েছে। অনুরাগীরা সকলেই অভিষেক এবং সংযুক্তাকে বিবাহবার্ষিকী উপলক্ষে শুভেচ্ছা বার্তায় ভরিয়ে দিচ্ছেন।

Abhisekh Chatterjee Marriage

এই বিশেষ দিনটি একটু আলাদাভাবেই পালন করে থাকেন সকলে। অভিষেক-সংযুক্তা ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হয়নি। এই দিনটিতে তারা মেয়েকে নিয়ে গিয়েছিলেন J.w marriott – পাঁচতারা হোটেলে। সেই হোটেলে থাকাকালীন মুহূর্তের কিছু ছবিও ক্যামেরাবন্দি করে নেট মাধ্যমে শেয়ার করেছেন অভিনেতা। সেই ছবিতেও অনুরাগীরা শুভেচ্ছাবার্তায় ভরিয়ে দিয়েছেন এই দম্পতিকে।

অনুরাগীদের মধ্যে অনেকেই আবার এই বলে আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন যে, “অভিষেক দা’র মতো একজন দারুণ অভিনেতাকে আমাদের ইন্ডাস্ট্রি যোগ্য সম্মানই দিতে পারেননি।” প্রসঙ্গত, এই নিয়ে খেদ রয়েছে অভিষেকের মনেও। ইন্ডাস্ট্রির এই একচোখামির বিরুদ্ধে একসময় অভিষেক নিজেই অভিযোগ তুলেছিলেন। তার অভিযোগের আঙুল সোজা টলিউড অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় এবং অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকেই নির্দেশ করেছে।