জুন আন্টিকে ‘জুতোপেটা’ করে উচিত শিক্ষা দিলেন এক মহিলা, তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া

আমাদের দৈনন্দিন জীবনের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে বিনোদন জগৎ। বিনোদন জগতের শিল্পীদের দায়িত্ব তাই তাদের অনুরাগীদের জন্য অনেক বেশি। পর্দায় ধারাবাহিকের সেই কাল্পনিক চরিত্রগুলি ফুটিয়ে তুলতে তাদের কম কসরত করতে হয় না। তাদের দিন-রাতের পরিশ্রমের ফলাফলের ছাপ ফুটে ওঠে পর্দায়। তার বদলে দর্শকের একটু সমর্থন আর অনেকটা ভালোবাসা পেতে চান কলাকুশলীরা।

দর্শকের প্রতিক্রিয়ার উপরেই নির্ভর করে ধারাবাহিকের সফলতা কিংবা ব্যর্থতা। যে ধারাবাহিক দর্শককে যত বেশি আকর্ষণ করতে পারবে, বলা ভালো যে ধারাবাহিকের চরিত্রগুলির সঙ্গে দর্শক যত বেশি সংযোগ স্থাপন করতে পারবেন, সেই ধারাবাহিক ততবেশি হিট, ততো বেশি জনপ্রিয়। অতএব ধারাবাহিকের গল্পের প্লট, পরিচালনা এবং কলাকুশলীদের পারফরমেন্সের উপরেই নির্ভর করছে সেই ধারাবাহিক দর্শকদের কাছে ঠিক কতটা জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারে।

স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক “শ্রীময়ী”ও তার ব্যতিক্রম নয়। “শ্রীময়ী” ধারাবাহিকের প্রধান আকর্ষণ ধারাবাহিকের প্লট। যার সঙ্গে বাংলার প্রায় প্রতিটি নারীই কমবেশি নিজেদের সংযোগ স্থাপন করতে পারেন। তবে ধারাবাহিকের প্লট ছাড়াও “শ্রীময়ী” ধারাবাহিকের কিন্তু আরও একটি আকর্ষণ রয়েছে। তাহলো ধারাবাহিকের “জুন আন্টি” চরিত্রটি। “জুন আন্টি” খলচরিত্র হলেও তার জনপ্রিয়তা কিন্তু ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্র “শ্রীময়ী”র তুলনায় কোনও অংশেই কম নয়।

ushoshi sengupta june aunty

পর্দায় “জুন আন্টি”র উপস্থিতি মানেই টানটান উত্তেজনা! বিশেষত “শ্রীময়ী”র সঙ্গে “জুন আন্টি”র “ক্ল্যাশ অফ ক্ল্যান” দর্শকের প্রধান উপভোগ্য বিষয়। তাই যে দৃশ্যগুলিতে “শ্রীময়ী”র সঙ্গে “জুন আন্টি”র লড়াই থাকে, দর্শক তা অত্যন্ত মনোযোগ দিয়ে দেখেন। “জুন আন্টি”কে “শ্রীময়ী” এবং “শ্রীময়ী”র সমর্থনকারীদের (যেমন ডিংকা, মিঠু দি, অঙ্কিতা, রোহিত সেন) কাছে অপদস্থ হতে দেখলে দর্শক বেশ মজা পান।

“জুন আন্টি”কে পর্দায় দেখলেই দর্শকের রীতিমতো গা পিত্তি জ্বলে ওঠে! সোশ্যাল মিডিয়ায় “জুন আন্টি” চরিত্রটির জন্য বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন অভিনেত্রী উষসী চক্রবর্তী। সম্প্রতি তাকে এক দর্শকের থেকে জুতো-পেটাও হতে হলো! দৃশ্যটি ধরা পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেখানে দেখা যাচ্ছে এক মহিলা অত্যন্ত মনোযোগ সহকারে “শ্রীময়ী” ধারাবাহিকটি দেখছেন। তারপরের দৃশ্যেই দেখা যাচ্ছে পর্দায় জুনকে দেখেই জুনের দিকে তেড়ে তেড়ে যাচ্ছেন ওই মহিলা!

Shreemoyee and June Aunty Star Jalsha

কখনও রিমোট ছুঁড়ে, কখনও আবার জুতো হাতে তুলে নিয়ে পর্দায় “জুন আন্টি” এবং “শ্রীময়ী”র প্রাক্তন স্বামী “অনিন্দ্য সেনগুপ্ত” এর দিকে তেড়ে যাচ্ছেন ধারাবাহিকের ওই অনুরাগী। শুধু তেড়েই যাচ্ছেন না, রিমোট এবং জুতো টিভির পর্দায় ঠুকে ঠুকে “জুন আন্টি” এবং “অনিন্দ্য সেনগুপ্ত”কে পেটাতেও দেখা গেল ওই মহিলাকে। ভিডিওটি ক্যামেরাবন্দি করেছেন মহিলার ছেলে। এরপর তিনিই সেটিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে দেন।

“জুন আন্টি” চরিত্রটি যে দর্শকের মনে কেমন প্রভাব ফেলছে, তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ এই দৃশ্য। স্বভাবতই যে কোনও কলাকুশলী বিশেষত খল চরিত্রের অভিনেতা কিংবা অভিনেত্রীর জন্যই দর্শকের এমন প্রতিক্রিয়া কার্যত তাদের অভিনয় দক্ষতার উপর বিরাট বড় কমপ্লিমেন্ট। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওটি “জুন আন্টি ”অর্থাৎ উষসীও কিন্তু অনেক বড় কমপ্লিমেন্ট হিসেবেই দেখছেন।

এক বছর পরেও এই ভিডিওটির জনপ্রিয়তা কমেনি। খোদ “জুন আন্টি” নিজের সোশ্যাল মিডিয়া ওয়াল থেকে ভিডিও রি-পোস্ট করেন। পোস্টের ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, “আঘাত পেলে পরশ তব, সেই তো পুরস্কার”! সত্যিই তো, খলচরিত্রের একজন অভিনেত্রীর কাছে এর থেকে বড় পুরস্কার আর কি হতে পারে? দর্শকের জুতোও তাই মাথায় করে নিতে চান উষসী চক্রবর্তী।

পোস্টের নিচে কমেন্ট বক্স ভরে উঠছে মজার মজার কমেন্টে। সকলে উষসীকে বাহবা দিচ্ছেন তার এই সাফল্যের জন্য। জনৈক নেটিজেন লিখেছেন, “সত্যিই তোমার অভিনয় গা জ্বলিয়ে দেয়, দারুন অভিনয় করছো”। আরেকজন উৎপল দত্তের প্রসঙ্গ তুলে লিখেছেন, “উৎপল দত্ত একবার বলেছিলেন, দর্শক যদি আমায় জুতো ছোড়ে, সেটাই আমার শ্রেষ্ঠ পাওনা। তাই ওনার এই অভিব্যক্তি গুলিই হয়তো আপনার শ্রেষ্ঠ পুরস্কার”।

পর্দায় “জুন আন্টি”কে ফিরতে দেখে সকলেই বেশ খুশি। অনেকেই এক বাক্যে বলছেন, “জুন আন্টি” এতদিন ছিল না বলেই “শ্রীময়ী” ধারাবাহিকের টিআরপি কমেছে। “জুন”কে এতদিন বেশ মিস করেছেন দর্শক। সকলের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে পর্দায় “শ্রীময়ী”র সঙ্গে লড়াই করতে তাই আবার ফিরেছেন “জুন আন্টি”। দর্শক তাকে আবার স্বাগত জানাচ্ছেন।