দুধের শিশুকে কোলে নিয়ে অডিশনে বিচারকদের মন জিতলেন মা, সারেগামাপার মঞ্চে এই প্রথম

৫ মাসের মেয়েকে কোলে নিয়ে SaReGaMaPa -তে অডিশন দিলেন মা, কুর্নিশ নেটিজেনদের

A Mother Gave Audition on SaReGaMaPa Holding Her Baby on Her Lap

গত ১৬ ই অক্টোবর থেকে শুরু হয়েছে সারেগামাপা (Sa Re Ga Ma Pa) মিউজিক রিয়েলিটি শো। এই রিয়েলিটি শো মারফত সারাদেশ খুঁজে সংগীতজগতের প্রতিভাদের তুলে আনছেন বিশাল দাদলানি, হিমেশ রেশমিয়া এবং শঙ্কর মহাদেবনরা। চলছে সারেগামাপার অডিশন পর্ব। এই অডিশন পর্বেই সন্তানকে কোলে নিয়ে গান গেয়ে বিচারকদের কার্যত মুগ্ধ করে দিলেন এক মা। নাম তার সঞ্জনা ভাট।

সঞ্জনা ভাট এক ৫ মাসের কন্যা সন্তানের মা। তিনি তার স্বামী এবং সন্তানকে নিয়েই এসেছিলেন অডিশন দেওয়ার জন্য। সঞ্জনা অডিশন দিতে আসার আগে সন্তানকে স্বামীর কাছে রাখতে চাইছিলেন। কিন্তু তার ছোট্ট সন্তান মা ছাড়া বাবার কাছেও থাকতে রাজি ছিল না। অডিশন মঞ্চের শোরগোলে সে মাকে ছাড়তে চাই নি। তাই সন্তানকে কোলে নিয়েই সংগীতের দুনিয়ায় এক পা রাখলেন সঞ্জনা।

সঞ্জনা অডিশনের মঞ্চে হাজির হতেই তার কোলে ছোট্ট সন্তানকে দেখে সঞ্জনা সম্পর্কে কৌতুহলী হয়ে পড়েন বিচারকেরা। অডিশন দেওয়ার আগে সঞ্জনা নিজের পরিচয় দেন। নিজের সম্পর্কে কিছু কথা বলেন। তিনি জানান, তিনি খুব ছোটবেলাতেই নিজের বাবাকে হারিয়েছেন। এরপর মা এবং মামাদের কাছেই মানুষ হয়েছেন তিনি। দারিদ্রতার জন্য তিনি কখনোই গান গাওয়ার সুযোগ পাননি।

সঞ্জনা আরও জানান, ছোটবেলা থেকে টিভিতে সারেগামাপা লিটল চ্যাম্পস দেখেই বড় হয়েছেন তিনি। তার স্বপ্ন ছিল একদিন এই মঞ্চে এসে তিনি গান শোনাবেন। যে স্বপ্ন তার আজ পূরণ হলো। এরপর সন্তানকে কোলে নিয়েই অডিশন দিলেন সঞ্জনা। বিচারকদের শোনালেন, ‘আও তুমহে চান্দ পে লে যায়ে’। তার গান শুনে মুগ্ধ হয়ে গেলেন বিশাল দাদলানি, হিমেশ রেশমিয়া, শঙ্কর মহাদেবনরা। মুগ্ধ দর্শক এবং ওই মঞ্চে উপস্থিত অন্যান্যরাও।

তার গানের মাঝেই মন্ত্রমুগ্ধ বিচারকেরা তার প্রশংসা করছিলেন। গান শেষ হওয়ার পর সকলে উঠে দাঁড়িয়ে হাততালি দিতে শুরু করেন। সঞ্জনা জানিয়েছেন, অর্থের অভাবে তিনি শিক্ষকের কাছে গান শিখতে পারেননি। তবে তার গান শুনলে তা মনেই হবে না। আজ যে তিনি সারেগামাপার মঞ্চে এসে উপস্থিত হতে পেরেছেন তার ক্রেডিট তিনি তার স্বামীকেই দিয়েছেন। বিচারকেরা সঞ্জনার স্বামীকেও মঞ্চে ডেকে নেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by ZEE TV (@zeetv)

সঞ্জনা জানান, তিনি প্রেম করে বিয়ে করেছেন। বিয়ের পর তার পড়াশোনায় কোনও ব্যাঘাত ঘটতে দেননি তার স্বামী। বিয়ের পর পড়াশোনা করে তিনি গ্রাজুয়েশন করেছেন। একথা শুনে সঞ্জনার স্বামীর জন্য হাততালি দেন বিচারকরা। সঞ্জনা জীবনের গল্প বিচারকদের মন ছুঁয়ে যায়। একইসঙ্গে নেটিজেনরাও তার গানের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। বিচারকদের থেকে মেডেল জিতে নিয়েছেন সঞ্জনা। অডিশন পর্বের শেষে মূল প্রতিযোগিতায় তার এন্ট্রি পাকা।