ভারতের রহস্যময় ও অলৌকিক ৯ মন্দির

ধর্মের দেশ ভারত। কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারিকা- সর্বত্র বিরাজ করছে মন্দির। প্রাচীন এইসব মন্দির জুড়ে ছড়িয়ে আছে নানা রহস্য। এলাকাবাসীর দাবি, কিছু মন্দিরে কালা জাদু চলে। আবার কিছু মন্দিরে ভূতের অস্তিত্বও মেলে। তেমনই কয়েকটি মন্দিরের তালিকা করেছি আমরা যেগুলি দেশের অন্যান্য মন্দিরের তুলনায় অন্যরকম।

Kamakhya Temple
Source

১) কামাখ্যা মন্দির

আসামের গুয়াহাটির এই মন্দির হিন্দুদের অন্যতম তীর্থক্ষেত্র। পুরাণ মতে, দেবাদিদেব শিবের প্রথম স্ত্রী সতী আগুনে ঝাঁপ দিয়ে নিজেকে শেষ করেন। এটা দেখে নিজের ক্রোধ সংবরণ করতে না পেরে সতীর মৃতদেহ কাঁধে শিব তাণ্ডব শুরু করেন। পৃথিবীকে বাঁচাতে বিষ্ণু সুদর্শন চক্র দিয়ে সতীর দেহ খণ্ড খণ্ড করে কেটে ফেলতে থাকেন। মনে করা হয়, এখানে সতীর গর্ভ এবং যোনী পড়েছিল।

Goddess who bleeds
Source

বিশ্বাস এই মন্দিরের প্রতিমা প্রতিবছর জুলাই মাসে রজঃস্বলা হন। সেইসময় মন্দিরের পাশের ব্রক্ষ্মপুত্র নদী লাল হয়ে যায়। উপস্থিত ভক্তমন্ডলীকে দেওয়া হয় নদীর পবিত্র জল।

Kedernath Temple
Source

২) কেদারনাথ মন্দির

বহুবার প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার হয়েছে কেদারনাথ মন্দির। পাহাড় ধ্বসে ক্ষতি হয়েছে গোটা রাজ্যের। অথচ কেদারনাথের নন্দী মূর্তির গায়ে আঁচড়ও লাগেনি। এই ঘটনা দেখে বিজ্ঞানীরা পর্যন্ত কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে গেছেন।

Hanuman Temple
Source

৩) হনুমান মন্দির

উত্তরপ্রদেশের জালাউন জেলার জাগ্নেও গ্রামের হনুমান মন্দির ঘিরে আছে বহু অলৌকিক ঘটনা। সম্প্রতি এই মন্দিরের একটি হ্যান্ডপাম্প ঘিরে রহস্য জমাট বেঁধেছে। কারণ, এই পাম্পের জল খেলে উপশম হচ্ছে সর্ব রোগের। এলাকাবাসীর কথায়, মধ্যপ্রদেশের এক সাধু এসেছিলেন মন্দিরে। ছিলেন বেশ কয়েকদিন। তারপর থেকেই মন্দিরের ওই হ্যান্ডপাম্প এমন বিশল্যকরণীর মতো আচরণ করছে।

Source

৪) বাতিয়ালা দেউল মন্দির

ভুবনেশ্বরের এই মন্দির প্রসিদ্ধ তন্ত্রসাধকদের জন্য। সারা দেশের তান্ত্রিকরা এই মন্দিরে জড়ো হয়ে হোম যজ্ঞ করেন। চলে সাধনা।

Balaji Temple
Source

৫) বালাজি মন্দির

রাজস্থানের দৌসা জেলায় অবস্থিত এই মন্দির। গোটা মন্দির চত্বর জুড়ে বিরাজ করছে এক অলৌকিক বাতাবরণ। বিশেষত এই মন্দিরে ভূতের আনাগোনা থাকে বলে বিশ্বাস স্থানীয়দের।

আরো পড়ুন : হিন্দুধর্মের সাথে পৃথিবীর অন্য ধর্মের যোগসূত্র

Source

এই মন্দির পরিদর্শনের সময় ভক্তরা অনেক আজব জিনিস দেখতে পান। যার কোনও ব্যাখ্যা হয় না। অনেকে ফুটন্ত জলের ভেতর নিজেদের আবিষ্কার করে। বিভিন্ন রোগের উপশমের জন্য মানুষকে চেন দিয়ে বেঁধে রাখা হয়।

আরো পরুব : কীভাবে শুরু হয়েছিল শিবরাত্রি ব্রত? জেনে নিন পুরো কাহিনী

৬) জওলাজি মন্দির

এই মন্দিরের শিখা সারাক্ষন আপনা থেকেই জ্বলে। কখনও নির্বাপিত হয় না। বিজ্ঞান মঞ্চের প্রতিনিধিরা এসে অনেক পরীক্ষা করেও এর কারণ নির্নয় করতে পারেননি।

৭) ভেঙ্কটেশ্বর মন্দির

দক্ষিণ ভারতের তিরুমালার ভেঙ্কটেশ্বর মন্দি্রের ঘণ্টা আপনা থেকেই বাজে। ভক্তদের বিশ্বাস, এই মন্দিরে শ্রীভেঙ্কটেশ্বরজি নিজে বিরাজ করেন। তাই জাগ্রত মন্দিরে তাঁর আর্শীবাদে ঘণ্টা বাজে।

আরো পড়ুন : শিব পুজো যেসব দিয়ে করলে সকল মনস্কামনা পূর্ন হবে

৮) ওম বানা মন্দির

রাজস্থানের যোধপুরের কাছে অবস্থিত ওম বানা মন্দির বা বুলেট বাবার মন্দির। ১৯৯১ সালের অক্টোবরে মোটরবাইক চালানোর সময় মৃত্যু হয় ওম সিং রাঠোর নামে এক ব্যাক্তির। দূর্ঘটনার পর বাইক ও দেহ থানায় নিয়ে যাওয়া হলে অদৃশ্য হয়ে যায় সব। আগুনের মতো ছড়িয়ে পড়ে এই খবর। এরপরেই তাঁর স্মৃতিতে স্থানীয় মানুষ তৈরি করেন মন্দির।

আরো পড়ুন : ভারতের সবচেয়ে পবিত্র ১২টি জ্যোতির্লিঙ্গ এর নাম, অবস্থান ও তাদের সৃষ্টির ইতিহাস

Om Banna Temple
Source

৯) করনীমাতা মন্দির

ইদুর মন্দির বলেও পরিচিতি এই মন্দিরের। রাজস্থানের বিকানির থেকে ৩০ কিমি দক্ষিণে দেশানকে এই মন্দির অবস্থিত। প্রায় ২০,০০০ ইদুর রাখা আছে এই মন্দিরে। তাদের খাওয়া-দাওয়া, দেখভাল এবনহ পুজো করা হয়। এত ইঁদুর কোথা থেকে প্রতিদিন আসে সেটা রহস্য। তবে স্থানীয়রা এই মন্দিরকে দূর্গার অবতার বলে মানেন।

আরো পড়ুন : ভারতের ১০টি সবচেয়ে ধনী মন্দিরের নাম ও তাদের ধন সম্পদের পরিমান

আমাদের প্রতিটি পোস্ট WhatsApp-এ পেতে ⇒  এখানে ক্লিক করুন