চিকেন রান্না করার সময় এড়িয়ে চলুন এই ৭টি ভুল, স্বাদ বেড়ে যাবে ১০ গুণ

চিকেন রান্নার সময় এই ৭টি ভুল এড়িয়ে চললে আঙুল না চাটতে হবেই

Chicken Maharani Recipe

বাড়িতে রেস্টুরেন্ট স্টাইলের চিকেন কারি বানানো কিন্তু বেশ সহজ। তবে এই রান্নার সময় বেশ কিছু দিকে অবশ্যই নজর দেওয়া দরকার। নতুবা রান্নাটা ঠিক জমে না। বাড়িতে চিকেন কারি বানানোর সময় অনেকেই নিজের অজান্তে বেশ কিছু ভুল করে ফেলেন। যার ফলে চিকেন কারিতে মনের মত স্বাদ আসে না। তবে আজকের এই প্রতিবেদনের পর থেকে আর চিকেন রান্নার সময় এই সমস্যা হবে না। চিকেন কারি রান্নার সময় কোন কোন ভুল (7 Common Cooking Mistakes While Preparing Chicken Curry) সাধারণত করে থাকেন রাঁধুনীরা? দেখে নিন এক নজরে।

পেঁয়াজ এবং টমেটো বড় বড় করে কাটা : চিকেন কারি রান্নার সময় কখনই পেঁয়াজ এবং টমেটো বড় বড় সাইজ করে কেটে দেওয়া যাবে না। এতেই রান্নার স্বাদ ভালো হয় না এবং দেখতেও খারাপ লাগে। চিকেন কারি রান্নায় পেঁয়াজ এবং টমেটো গ্রেভি ঘন করতে ব্যবহার করা হয়। বড় সাইজের পেঁয়াজ, টমেটো মুখে পড়লে খাবার বিস্বাদ ঠেকে। তাই রান্নায় ব্যবহার করতে হলে মিহি করে পেঁয়াজ কাটুন অথবা বেটে নিন। ব্যবহার করুন টমেটো পিউরি। গ্রেভি আরও পাতলা করতে চাইলে জল ঢেলে নিন।

মশলা দেওয়ার সঠিক সময় : যেকোনও রান্নার ক্ষেত্রে মশলা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। চিকেন কারি রান্নার সময় কোন মশলা কখন দিতে হয় তা অনেকেরই জানা থাকে না। রান্নার সঠিক পদ্ধতি হল তেল গরম করে গোটা মশলার ফোড়ন দেওয়া। তারপর গন্ধ বের হলে পেঁয়াজ দিয়ে কষে নিয়ে গুঁড়ো মশলা, নুন, আদা, হলুদ, কাঁচালঙ্কা দিতে হবে। মশশা যেন কোনওভাবেই পুড়ে না যায়। সেইমতো কষার সময় আঁচ বাড়িয়ে কিংবা কমিয়ে নিতে হবে। তবে কষার সময় রান্না মাঝারি আঁচে রাখাটাই ভালো।

গরম মশলা গুঁড়ো দেওয়ার সঠিক সময় : গরম মশলা কখনও রান্না শুরুতে বা কষানোর সময় দেওয়া যাবে না। এতে স্বাদ ও গন্ধ দুটোই চলে যাবে। টমেটো পিউরি দিয়ে রান্না ভালোমতো কষানো হয়ে যাওয়ার পরই গরম মশলা দেওয়া উচিত। রান্নার শেষে আরও একবার উপর থেকে গরম মশলার গুঁড়ো ছড়িয়ে দেওয়া যেতে পারে।

রান্নার সময় তাড়াহুড়ো করা যাবে না : চিকেন কারি বানানোর সময় ধৈর্য রাখতে হবে। মাঝারি আঁচে ধীরে ধীরে মশলা কষাতে হবে। প্রথমে মশলা কষিয়ে নিয়ে তারপর চিকেন দিয়ে ঢাকা দিয়ে ধীমে আঁচে কষতে হবে। কষা হয়ে গেলে উপরে তেল ভাসতে শুরু করবে। এটাই পারফেক্ট রান্নার লক্ষণ।

গন্ধ শুঁকে রান্না করতে হবে : রান্না করার সময় অবশ্যই গন্ধ নিয়ে দেখতে হবে যে রান্না ঠিক হচ্ছে কিনা। প্রত্যেকটা উপকরণ মিশিয়ে নেওয়ার পর মশলার গন্ধ নিতে হবে।

সঠিক পরিমাণে নুন মেশাতে হবে : নুন বেশি হলে যে কোনও রান্নার স্বাদ হয়ে যায়। নুন যদি বেশি হয়ে যায় সে ক্ষেত্রে খোসা ছাড়িয়ে আলুর টুকরো গ্রেভির মধ্যে ফেলে দিন। তারপর কিছুক্ষণ রেখে দিলেই আলু বাড়তি নুন শুষে নেবে।

পেঁয়াজ ঠিক মত ভাজতে হবে : পেঁয়াজ যদি ঠিকমত ভাজা না হয় তাহলে চিকেন কারির টেস্ট খারাপ হয়ে যায়। তাই পেঁয়াজ কুচি করে কেটে নিয়ে, বেটে নিয়ে বা স্লাইস করে ভাল করে ভেজে নিতে হবে। আবার পেঁয়াজ অতিরিক্ত ভাজলেও রান্নার স্বাদ খারাপ হয়ে যায়। তাই মাঝারি আঁচে রেখেই পেঁয়াজ ভেজে নিতে হবে।