অবশেষে নতিস্বীকার পাকিস্তানের! ৪৪ জঙ্গিকে গ্রেফতার করল পাকিস্তান

580

গত ১৪ই ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জওয়ানদের কনভয়ে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলার পর সেই হামলার দায়ভার নেয় জইশ-ই-মহম্মদ প্রধান মাসুদ। পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জওয়ানদের উপর জঙ্গি হামলার পর গোটা দেশ এক জোট হয়। গোটা দেশ ফুঁসতে থাকে পাক মদদপুষ্ট জঙ্গী সংগঠন জৈস-ই-মহম্মদ এবং পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বদলা নেওয়ার। তারপরই ২৬ শে ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বায়ুসেনার অতর্কিতে হানা পরে পাকিস্তানের আকাশে। ভারতীয় বায়ুসেনার সেই এয়ার স্ট্রাইকে ধ্বংস হয়ে যায় পাকিস্তানের মাটিতে থাকা বেশ কয়েকটি জঙ্গি সংগঠনের কন্ট্রোল রুম এবং সদর দপ্তর। সূত্রের খবর নিহত হয় কমপক্ষে ৩০০ জন জঙ্গি।

তারপর ১২ দিন মাথায় সেই জঙ্গি হামলার বদলা নিতে ভারতীয় বায়ুসেনা পাকিস্তানের মাটিতে চালায় এয়ার স্ট্রাইক। বোমার আঘাতে গুঁড়িয়ে দেয় বালাকোটে অবস্থিত জইশের সবচেয়ে বড় এবং অন্যতম ঘাঁটি বালাকোট ঘাঁটিতে|  এয়ারস্ট্রাইকের পর খবর আসে মাসুদের ২ আত্মীয় সহ ৫ জইশ কম্যান্ডারের মৃত্যু হয়েছে।

তবে ভারতীয় বায়ুসেনা দের হামলার সময় মাসুদ ওই ঘাঁটিতে ছিলেন বলেই বিভিন্ন সূত্র দাবি করছে। আর হামলার পরই আহত হন ওই জঙ্গি নেতা। যদিও অন্য সূত্র এমনটা দাবি উড়িয়ে দিয়েছে। তাদের দাবি হামলার সময় সেখানে ছিলেন না মাসুদ। শারীরিক অসুস্থতার কারণে তার চিকিৎসা চলছিল।

বালাকোটে জইশ-ই-মহম্মদের ক্যাম্পে ভারতীয় বায়ু সেনার হামলা প্রমাণ করে দিয়েছে, পাকিস্তানের জঙ্গি গোষ্ঠীগুলির ওপর  হামলার উদ্দেশ্য ও ক্ষমতা দুটোই রয়েছে ভারতের। ভারতের এখন মূল লক্ষ্য সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই। পাকিস্তান যতই দাবি করুক, তাদের মাটিকে জঙ্গিদের জন্য ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না, তা মানা হচ্ছে না। তাই চাপে পড়ে হলেও জামাত-উদ-দওয়া এবং ফায়া-ই-ইনসানিয়ত ফাউন্ডেশনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে।

পাকিস্তানের মাটি থেকে জঙ্গিদের উচ্ছেদ করতে চাপ বাড়ছে। বলা ভাল, গঠনমূলক পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য চাপ বাড়ছে।  বিশ্বব্যাপী সেই চাপেরই অন্যরূপ হল ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি দেওয়া। পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মহম্মদ কুরেশি বলেছিলেন, মাসুদ আজহার পাকিস্তানে আর সরকারের সঙ্গে জইশ-ই-মহম্মদের যোগাযোগ রয়েছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, ভারতের এইসব পদক্ষেপের ফলেই মাসুদ আজহারকে  রাষ্ট্রসংঘের নিষেধাজ্ঞার তালিকায় স্থান পেতে চলেছে।

all you need to know about mirage-2000

ভারত-পাকিস্তানের ভবিষ্যত আলোচনা নির্ভর করছে, পাকিস্তান এই জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেয় তার ওপর। এই সংক্রান্ত ব্যবস্থা পাকিস্তানকে ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সের ৩৬ সদস্য দেশের সঙ্গে শেয়ার করতে হবে। ফলে আন্তর্জাতিক মহলে প্রচুর চাপে  রয়েছে পাকিস্তান।

পাকিস্তানে ৫৮ ঘণ্টা! কীভাবে কাটালেন অভিনন্দন? শুনে নিন ওনার মুখেই

লাদেনের ছেলের সম্পর্কে কেউ খবর দিলেই ৮০ কোটি টাকা দেবে আমেরিকা

চরম অস্বস্তিতে পাকিস্তান ! সন্ত্রাস দমনে ভারতের পাশে দাঁড়াল চীন

তাই একপ্রকার বাধ্য হয়েই মাসুদ আজহারের দুই ভাই-সহ অন্তত ৪৪ জন জঙ্গিকে পাক সরকার গ্রেফতার করেছে বলে খবর। পাক অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী শাহরিয়র আফ্রিদি এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। মাসুদ আজহারের দুই ভাই হামাদ আনসারি, আবদুল রউফ আজগর-সহ নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠনের মোট ৪৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পাক সরকার। তবে ধৃতদের কোথায় রাখা হয়েছে, কী ভাবে গ্রেফতার করা হল, সে বিষয়ে সবিস্তারে কিছু জানানো হয়নি।

পুলওয়ামায় হামলার পর থেকেই পাকিস্তানের উপর জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য চাপ বাড়তে থাকে। সেই চাপেই এ বার ইসলামাবাদ সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে শুরু করল বলে কূটনৈতিক শিবিরের একটা অংশ মনে করছে। পাশাপাশি পুরো বিষয়টিই পাক সরকারের ‘আই ওয়াশ’ বা লোক দেখানো হতে পারে বলেও মনে করছেন অনেক কূটনীতিবিদ।