আসন্ন নির্বাচনে মমতার ভাগ্য বদলে দেবে এই ৩টি সমীকরণ

বছরের শুরু থেকেই রাজ্যজুড়ে চড়ছে নির্বাচনের পারদ। বাংলা দখলের লড়াইয়ে সমানভাবে পথে নামছে দুই প্রতিপক্ষ দল তৃণমূল কংগ্রেস (TMC) এবং বিজেপি (BJP)। পিছিয়ে নেই সিপিএম (CPIM) কংগ্রেসও (Congress)। ইতিমধ্যেই রাজ্যে ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হয়ে গেছে, আর একমাস পরেই ভোট (West Bengal Assembly Election 2021)।

আগামী ২রা মে ভোটের ফল প্রকাশের পরেই রাজ্যে তৈরি হবে সরকার। মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee) হ্যাট্রিক করবেন নাকি এবার রাজ্যে হবে পরিবর্তন, উত্তর মিলবে এই দিনই। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে এইবারের ভোট অন্যান্য বারের ভোটে থেকে অনেকটা আলাদা।বাংলায় বিজেপির উত্থান ছাড়াও এর আরও ৩টি কারণ আছে যা এই নির্বাচনকে আগের নির্বাচনের থেকে আলাদা করছে।

How much seats will TMC win on upcomin assembly election 2021

বহিরাগত বনাম বাঙালি :- এবার ভোটের অন্যতম একটি বড় ইস্যু হলো বাঙালি এবং অবাঙালি। নির্বাচনের বহিরাগত বনাম বাঙালি ইস্যুটিকে ব্যবহার করতে চাইছেন শাসক দল। ভোটের প্রচারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বারংবার বিজেপি নেতাদের অবাঙালি (বহিরগত) বলে কটাক্ষ করেছেন। বিজেপি ও তাদের বাঙালি মনীষীদের প্রতি শ্রদ্ধা এবং বাংলার প্রতি সম্মান প্রদর্শনে মরিয়া হয়ে উঠেছে।

ধর্মের রাজনীতি :- বাংলা বরাবরই ধর্মনিরপেক্ষ একটি রাজ্য। এই প্রথম বাংলার রাজনীতিতে বড় প্রভাব পড়ছে ধর্ম এবং জাতপাতের। আগে কখনোই নির্বাচনী প্রচারের ক্ষেত্রে ধর্ম কোন ইস্যু হয়ে দেখা দেয় নি। এবার ভোটে সংখ্যালঘু ভোট, মতুয়া সম্প্রদায় ভোট,আদিবাসী এবং কুর্মি সম্প্রদায়ের ভোট ইত্যাদি ভোটের গেম চেঞ্জার হতে পারে। দুই দলের কাছেই এই ভোটগুলি খুব বড় ফ্যাক্টর।

আরও পড়ুন : আসন্ন নির্বাচনে মমতার ভবিষ্যত্‍ কী, জ্যোতিষ গননা কী ইঙ্গিত দিচ্ছে

রাজনৈতিক হিংসা ও খুনোখুনি :- এবারের ভোটে রাজনৈতিক হিংসা বহুগুণ বেশি হতে পারে। মনে করা হচ্ছে এই বিষয়টিকে মাথায় রেখেই ৮ দফা নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নির্বাচন কমিশন। পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন যাতে হিংসামুক্ত ভাবে হয় সেটা দেখাই এখন সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ নির্বাচন কমিশনের কাছে। অবশ্য ৮ দফা নির্বাচনে ক্ষুব্ধ হয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন : টলিউডের কোন কোন তারকা তৃণমূলে ভোটের টিকিট পেতে পারে, রইলো তালিকা

৮ দফায় ভোট :- নির্বাচন কমিশনের দিনক্ষণ ঘোষণার পরেই তিনি আক্রমণ শানিয়েছেন বিজেপি এবং নির্বাচন কমিশনের দিকে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কথায় “বিজেপি নির্বাচন কমিশনকে ব্যবহার করেছে। ওরা  পুরো দেশকে বিভক্ত করতে ব্যস্ত এবং বাংলাতেও একই কাজ করবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর দের ক্ষমতার অপব্যবহার করা উচিত নয়। ফের একবার বাঙালি আবেগ তুলেছেন মমতা। দাবি করেছেন ‘বাঙালি বাংলায় রাজত্ব করবে, আমরা বিজেপিকে পরাজিত করব।’

রও পড়ুন : ৩২ টাকার পেট্রোল বিক্রি হচ্ছে ৯১ টাকায়, দেখুন ১ লিটার তেলে কেন্দ্র রাজ্য কত টাকা নেয়