বহিরাগত তাই কাজ দেয়না বলিউড, ওয়েব সিরিজই একমাত্র ভরসা এই ১০ সেলিব্রিটির

বলিউডের “নেপোটিজম’ বিতর্ক যাদের মেইন স্ট্রিমের থেকে দূরে সরিয়ে রেখেছিল, সেই অভিনেতা-অভিনেত্রীদের প্রতিভাকে কিন্তু ধূলিসাৎ করতে পারেনি বলিউড। স্বজনপোষণের আড়ালে বলিউডের বহু প্রতিভাশালী শিল্পীই অন্ধকারে হারিয়ে গিয়েছেন। তবে এদের মধ্যে বেশ কয়েকজন সেলিব্রিটি আছেন যারা ভাগ্যের সিদ্ধান্তকে মেনে নেননি। তারা ভাগ্যের সাথে লড়াই করে নিজেদের জায়গা ঠিক বানিয়ে নিয়েছেন।

বড় পর্দা তাদের ব্রাত্য করে রেখেছে তো কি হয়েছে? ছোটপর্দা তো আছে। “ছোট পর্দা’! সেও আজ আর খুব ছোট নেই। বরং ওটিটি প্ল্যাটফর্মের দৌলতে বড় পর্দার তুলনায় এখন সবার আকর্ষণ ছোটপর্দাকে কেন্দ্র করেই ঘোরাফেরা করছে। আধুনিক প্রজন্মের কাছে ক্রমশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে “ওয়েব সিরিজ’। ছোটপর্দার দীর্ঘমেয়াদি ধারাবাহিক এখন আর দেখতে পছন্দ করছেন না কেউ। তাই বদলে ৮-১০ এপিসোডের ছোট ছোট সিরিজগুলিই বেশ উপভোগ করছেন দর্শক।

আর এখানেই কিস্তিমাত করছেন বলিউডের তথাকথিত পেছনের সারির অভিনেতারা। জিমি শেরগিল, মিতা বশিষ্ঠ, রাধিকা আপ্তে, শেফালি শাহ, পঙ্কজ ত্রিপাঠী সহ ১১ জন অভিনেতা রয়েছেন যারা ওটিটি প্ল্যাটফর্মে চুটিয়ে কাজ করছেন এবং কাজের মাধ্যমে দর্শকদের মন জিতে নিচ্ছেন।

পঙ্কজ ত্রিপাঠী : বলিউডের এই অভিনেতার সম্পর্কে নতুন করে বলার আর কোনও অবকাশ নেই। ২০০৪ সালে ‘রান’ ছবিতে অভিনয় করে বলিউডে ডেবিউ করেন তিনি। এরপর “আংরেজি মিডিয়াম”, “বরেলি কি বরফি”, “স্ত্রী” সিনেমা মারফত বলিউডে ধীরে ধীরে পরিচিতি পেতে শুরু করেন তিনি। তবে সাসপেন্স-থ্রিলার-অ্যাকশন ওয়েব সিরিজ “মির্জাপুর” তাকে খ্যাতির শীর্ষে শিখরে পৌঁছে দেয়। হটস্টারের “ক্রিমিনাল জাস্টিস” এ উকিলের ভূমিকায় তার অভিনয় অনবদ্য ছিল।

রাধিকা আপ্তে : দক্ষিণের তেলেগু, মালায়ালাম, মারাঠি সিনেমা থেকে শুরু করে বাংলা, হিন্দি সিনেমাতেও রাধিকা নিজের প্রতিভার প্রমাণ রেখেছেন। তবে ইদানিংকালে ওটিটি প্ল্যাটফর্মের জনপ্রিয় মুখ হয়ে উঠেছেন তিনি। থ্রিলার, অ্যাকশন, সাসপেন্স হোক কিংবা রোমান্স বা কমেডি, সব চরিত্রেই ফিট রাধিকা।

কীর্তি কুলহারি :  ‘মিশন মঙ্গল’, ‘উরি: দ্য সার্জিকাল স্ট্রাইক’, এবং ‘পিঙ্ক’-এর মতো ছবিতে অভিনয় করার পরেও বলিউড থেকে সেভাবে খ্যাতি তিনি পাননি, যতটা ওটিটি প্ল্যাটফর্ম থেকে পেয়েছেন। বর্তমানে বিভিন্ন ধারার ওয়েব সিরিজে চুটিয়ে অভিনয় করছেন তিনি।

দিব্যেন্দু শর্মা : ‘প্যায়ার কা পঞ্চনামা’ সিনেমা মারফত কার্তিক আরিয়ানের পাশাপাশি দিব্যেন্দুও বেশ পরিচিতি লাভ করেছিলেন। তবে “মির্জাপুর” তাকে জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছে। একথা অভিনেতা নিজের মুখেই স্বীকার করেছেন।

শেফালি শাহ : বলিউডের বহু সিনেমায় অভিনয় করেছেন শেফালি। তবে নেটফ্লিক্সের ‘দিল্লি ক্রাইম’ তাকে জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছে দিয়েছে। একজন পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় তার অভিনয় দর্শকরা বেশ পছন্দ করেছেন। “৪০ পেরোলেই অভিনেত্রীরা বুড়ি। মা, দিদিমার চরিত্র তাঁদের কপালে জোটে। আমায় শেষ কবে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে দেখেছেন? অনেকেই হয়ত ডাকবেন বলে ভেবেছেন। কিন্তু সাহস করে কেউ ডেকে উঠতে পারেননি। ওটিটি প্ল্যাটফর্ম সেটা পেরেছে।’’, বললেন শেফালি।

মিতা বশিষ্ঠ :  ‘চাঁদনি’, ‘দিল সে’, ‘গুলাম’, ‘তাল’-এর মতো ব্লকবাস্টার ছবির অন্যতম চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিতা। ‘ভারত এক খোঁজ’, ‘মি. যোগী’, ‘কাহানি ঘর ঘর কি’র মতো ধারাবাহিক এবং বাংলা ছবি ‘পাতালঘর’এ তার অভিনয় দর্শক মনে রেখেছেন। জিমি শেরগিলের সঙ্গে “ইওর অনার” ওয়েব সিরিজে একজন মহিলা পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন মিতা।

প্রতীক গাঁধী : বলিউড থেকে প্রত্যাখ্যাত এই অভিনেতা ‘স্ক্যাম ১৯৯২’ সিরিজে অভিনয় মারফত নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছেন। স্বয়ং শাবানা আজমি প্রতীকের অভিনয়ের প্রশংসা করে জানিয়ে ছিলেন, ‘‘২০ বছর পরে মনে রাখার মতো অভিনয় দেখলাম।’’ এর থেকে বড় কমপ্লিমেন্ট একজন অভিনেতার জন্য আর কি হতে পারে?

রসিকা দুগাল : নন্দিতা দাসের ছবি ‘মান্টো’তে অভিনয়ের পর এই অভিনেত্রীকে সেভাবে বলিউডে আর দেখা যায়নি। তবে  ‘মির্জাপুর’, ‘দিল্লি’র মতো ওয়েব সিরিজে অভিনয় করার দৌলতে রসিকা আজ দর্শকদের মধ্যে বেশ পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছেন।

জয়দীপ আহলাওয়াত : বলিউডের প্রত্যাখাত অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম হলেন জয়দীপ। দীর্ঘ এক দশক ধরে তিনি বলিউডে রয়েছেন। তবে সেভাবে খ্যাতি অর্জন করতে পারেননি।করণ জোহরের ‘আজিব দস্তান’ ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। অনুষ্কা শর্মা প্রযোজিত ‘পাতাল লোক’ ওয়েব সিরিজের হাত ধরে তার ফিল্মি কেরিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু হয়েছে।