ভারতের ১০ জন জনপ্রিয় অভিনেত্রী যারা মুসলিম ধর্ম পালন করেন

আমাদের দেশ ভারতবর্ষ সর্বধর্ম সমন্বয়ের দেশ। এই দেশে কোনও ধর্ম বড় কিংবা ছোট নয়। “সেক্যুলার” দেশের নাগরিকরা তাদের পছন্দমতো ধর্ম বেছে নিতে পারেন এবং সেই ধর্মের পথ অনুসরণ করতে পারেন। ভারতের প্রত্যেক বাসিন্দার ধর্মীয় পরিচয় তাদের মা-বাবার ধর্মপরিচয়ের উপর নির্ভর করে না। প্রত্যেক ব্যক্তির স্বতন্ত্র ধর্মীয় মতাদর্শকে গুরুত্ব দেয় এবং স্বাগত জানায় ভারত। ঠিক এই কারণেই পৃথিবীর আর পাঁচটা দেশের থেকে আলাদা ভারত।

ভারতবর্ষে কোন হিন্দু ধর্মাবলম্বী মানুষ যদি মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করেন এবং সেই পথ অনুসরণ করেন তাহলে তাকে সমাজ “রে রে” করে তেড়ে আসতে পারবে না। ভারতের সংবিধান তার পাশে এসে দাঁড়াবে। সাধারণ হোক বা সেলিব্রিটি, সকলেই নিজের নিজের পছন্দমত ধর্মের অনুসরণ করতে পারেন ভারতে। আজ জেনে নিন বলিউডের সেই সমস্ত জনপ্রিয় অভিনেত্রীর কথা যারা ইসলাম ধর্ম পালন করেন। এই তথ্যগুলি নির্ঘাত আপনার জানা ছিল না।

আলিয়া ভাট : মহেশ ভাট এবং সোনি রাজদানের কনিষ্ঠ সন্তান আলিয়া ভাট। উল্লেখ্য মহেশ এবং সোনি উভয়েই কিন্তু জন্মগতভাবে হিন্দু ধর্মাবলম্বী। মহেশ ভাট জন্মসূত্রে গুজরাটি এবং সোনি রাজদান কাশ্মীরী জার্মান। তবে মহেশ এবং সোনি বিবাহসূত্রে আবদ্ধ হওয়ার সময় ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। ঠিক এই কারণেই আলিয়া ইসলাম ধর্ম অনুসরণ করেন।

ক্যাটরিনা কাইফ : এই বিদেশী সুন্দরী কিন্তু ভারতীয় বংশোদ্ভূত। ক্যাটরিনা ব্রিটিশ চলচ্চিত্র অভিনেত্রী এবং একজন মডেলও বটে। ক্যাটরিনা ভারতে এসে বলিউডের বহু ছবিতে অভিনয় করেছেন। হিন্দি ছাড়াও তেলেগু এবং মালায়ালাম ভাষাতেও বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী। ক্যাটরিনার বাবা মোহম্মদ কাইফ ব্রিটিশ নাগরিকত্ব নিয়ে লন্ডনে পাড়ি দেন। সেখানেই সুজানা টারকুটের সঙ্গে বিবাহসূত্রে আবদ্ধ হন তিনি।

মোহাম্মদ কাইফ এবং সুজানা টারকুটের একমাত্র কন্যা ক্যাটরিনা। তার জন্ম হয়েছিল হংকংয়ে। তবে শৈশবেই মা-বাবার মধ্যে বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যাওয়াতে ক্যাটরিনা তার মায়ের সঙ্গেই থাকতে শুরু করেন। তবে বাবার থেকে প্রাপ্ত ইসলাম ধর্মের প্রতি তেমন কোনও টান না থাকলেও ইসলাম ধর্মের অনুসারী ক্যাটরিনা।

নাজরিয়া নাজিন : মালায়ালাম এবং তামিল ভাষার বহু সিনেমাতে অভিনয় করেছেন এই অভিনেত্রী। কেরিয়ারের প্রথম দিকে তিনি একটি ইসলামধর্মী টিভি শোতে সঞ্চালনা করতেন। মালায়লাম অভিনেতা ফাওয়াদ ফাজিলের সঙ্গে বিবাহসূত্রে আবদ্ধ হন নাজরিয়া। জন্মগত এবং বিবাহসূত্রেই তিনি ইসলাম ধর্মের অনুসারী।

আয়েশা টাকিয়া : বলিউডের “টারজেন দ্য ওয়ান্ডার কার” সিনেমায় অভিনয় মারফত প্রথম বলিউডে ডেবিউ করেন আয়েশা। প্রথম ছবির জন্য ফিল্ম ফেয়ার বেস্ট ডেবিউ অ্যাক্টর অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিলেন তিনি। তার বাবা ছিলেন গুজরাটি হিন্দু। মা ইসলাম ধর্মাবলম্বী ছিলেন। আয়েশার স্বামীও ছিলেন ইসলাম ধর্মাবলম্বী। ফারহান আজমিকে বিয়ে করার পর ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন আয়েশা। তখন তার নাম হয় আয়েশা টাকিয়া আজমি।

সাদাফ মোহাম্মদ সাইফ : দক্ষিণী সিনেমা জগতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাদাফ। তেলেগু, তামিল এবং কিছু হিন্দি ছবিতে চুটিয়ে অভিনয় করেছেন তিনি। তিনি জন্মসূত্রেই ইসলাম ধর্মের অনুসারী।

দিয়া মির্জা : এই তালিকায় এই নামটি নিশ্চয়ই অবাক করবে আপনাকে। ভারতীয় মডেল-অভিনেত্রী, মিস এশিয়া প্যাসিফিক ২০০০ খেতাব বিজয়িনী তথা বলিউডের অন্যতম প্রযোজক দিয়া মির্জা ইতিমধ্যেই বলিউডের অন্তত ৩০টিরও বেশি ছবিতে কাজ করে ফেলেছেন। তার বাবা ফ্রাঙ্ক হ্রাডরিচ জার্মান বংশোদ্ভূত। মা দীপা মির্জা বাঙালি। তবে বাবার সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হওয়ার পর দিয়ার মা দীপা আহমেদ মির্জাকে বিবাহ করেন। সেই সূত্রে ইসলাম ধর্মের অনুসারী হয়ে ওঠেন দিয়া।

Here is Why Bollywood Actress Tabu is not married yet

টাবু : এই সুন্দরী অভিনেত্রী বলিউড এবং দক্ষিণী‌ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ। টাবুর আসল নাম কিন্তু তাবাসসুম ফাতিমা হাসমিন। তিনি জন্মসূত্রে ইসলাম ধর্মের অনুসারী। বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী শাবানা আজমি সম্পর্কে টাবুর পিসি হন।

নুসরাত জাহান : এই বাঙালি অভিনেত্রী বর্তমানে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের বসিরহাট কেন্দ্রের লোকসভার সাংসদ। টলিউড এবং বাংলাদেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে বহু ছবিতে অভিনয় করেছেন নুসরাত। তিনিও জন্মসূত্রে ইসলাম ধর্মের অনুসারী। তবে মারোয়ারি বংশোদ্ভূত নিখিল জৈনের সঙ্গে বিবাহসূত্রে আবদ্ধ হওয়ার পর নুসরাতকে হিন্দু এবং মুসলিম, উভয়ধর্মই সমান তালে পালন করতে দেখা যায়।

হুমা কুরেশি : বলিউডের এই সুন্দরী অভিনেত্রী ইতিমধ্যেই হিন্দি মাধ্যমে ২০টিরও বেশি ছবিতে অভিনয় করে ফেলেছেন। হুমার বাবা একজন কাশ্মীরি। হুমা জন্মগতভাবে ইসলাম ধর্মের অনুসারী।

সোহা আলী খান : পতৌদি নবাব বংশোদ্ভূত সোহা আলী খান জন্মসূত্রেই ইসলাম ধর্মের অনুসারী। একটি বাংলা চলচ্চিত্র মারফত তিনি তার ফিল্মি কেরিয়ার শুরু করেন। সোহার মা শর্মিলা ঠাকুর জন্মগতভাবে হিন্দু এবং তার বাবা মনসুর আলী খান পতৌদি জন্মসূত্রে ইসলাম ধর্মাবলম্বী। সোহা তার বাবার ধর্ম মত অনুসরণ করেছেন।

জারিন খান : তামিল, পাঞ্জাবি এবং হিন্দি মাধ্যমের ছবিগুলিতে চুটিয়ে অভিনয় করেছেন এই সুন্দরী। মুম্বাই মহারাষ্ট্রের একটি মুসলিম পাঠান পরিবারে জন্ম জারিনের।

 

নার্গিস ফাখরি : এই সুন্দরীকে বলিউডের বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে। তার জন্ম নিউইয়র্কে। তার বাবা ছিলেন পাকিস্তানি। তিনিও ইসলাম ধর্মের অনুসারী।

সারা আলি খান : পতৌদি নবাবের বংশোদ্ভূত সারা আলি খান সেইফ আলী খানের কন্যা। তার মা অমৃতা সিং হিন্দু ধর্মাবলম্বী হলেও বাবা যেহেতু ইসলাম ধর্মাবলম্বী তাই সারা ইসলাম ধর্ম পথ অনুসরণ করেন।

নোরা ফাতেহি : বলিউডে নোরার নাচ মানেই হিট। তিনি যে গানের নাচের সঙ্গেই কোমর দোলান না কেন, তা দর্শকদের মধ্যে ভাইরাল হয়ে পড়বে। বলিউডের আইটেম সং ডান্সার নোরা ফাতেহির নাচের জাদুতে ভারত তথা সমগ্র বিশ্ব মাতোয়ারা। তিনিও জন্মসূত্রেই ইসলাম ধর্মের অনুসারী।