সস্তায় মনের মত বাড়ি দেবে প্রধানমন্ত্রী, মঞ্জুর ১ লক্ষ কোটি টাকা

104

নিজস্ব প্রতিবেদন : আগামী ২০২২ সালের মধ্যে প্রতিটি ভারতীয়দের মাথায় যেন ছাদ থাকে, সেই উদ্যোগকে সামনে রেখে মোদি সরকারের প্রকল্প হাউস ফর অল। এজন্য যেমন কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে রয়েছে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা, ঠিক পাশাপাশি কেন্দ্র সরকার নিয়ে এলো হাউস ফর অল প্রকল্প।

একটি বিবৃতি থেকে জানা গিয়েছে, ২০২২ সালের মধ্যে প্রতিটি ভারতীয় নিজস্ব গৃহ নিশ্চিত হতে চলেছে। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পে ২০২২ সালের মধ্যে এক কোটি গৃহ নির্মাণের টার্গেট রয়েছে। এই এক কোটি গৃহ শহর ও গ্রামাঞ্চলে দরিদ্র পরিবারের মাথা ছাদ হয়ে দাঁড়াবে। ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় ৬৮.৫ লক্ষ গৃহ নির্মাণের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে, ১২.৪৫ লক্ষ বাড়ির নির্মাণের কাজ ইতিমধ্যে হয়েও গেছে। ইউ জানা গিয়েছে ৩৫.৬৭ লক্ষ বাড়ির বিভিন্ন অংশের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

তাহলে কি শুধুই দরিদ্ররাই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পের আওতায় এসে গৃহ পাবেন? না। গৃহ সবার জন্য এই লক্ষ্য সামনে রেখে কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে আরো একটি প্রকল্পের সূত্রপাত করা হলো। যাতে দরিদ্ররা ছাড়াও যাদের বার্ষিক পআয় ৬ লক্ষ থেকে ১৮ লক্ষ টাকা তারাও নিজের পছন্দের মত গৃহ নির্মাণের ক্ষেত্রে পেতে চলেছেন বিশেষ সুবিধা।

নিজেদের পছন্দের মত বাড়ি নির্মাণের জন্য এই সমস্ত দেশবাসীদের কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে দেওয়া হবে স্বল্প সুদে, সহজ উপায়ে ঋণ। যাতে করে নিজের পছন্দের বাড়ি তৈরির জন্য সহজেই ব্যয়ভার বহন বহন করতে পারেন। এমনকি ২০১৮ সালের ডিসেম্বর থেকে মার্চ ২০২০ সাল পর্যন্ত সুদে ভর্তুকি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ৷ এখনও পর্যন্ত ৯৩,০০০ মানুষ যাঁরা ১,৯৬০ কোটি টাকার সুদের হারে ভর্তুকির সুবিধা পাচ্ছেন ৷ যা বিভিন্ন ব্যাঙ্কের মাধ্যমে দেওয়া হয়েছে৷ পরিসংখ্যান থেকে জানা গিয়েছে, ৩০শে ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত প্রায় ৩.৩৯ লক্ষ উপভোক্তা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অন্তর্গত ৭,৫৪৩ কোটি টাকার সুবিধা পেয়েছেন৷

এও জানা গিয়েছে, ৩৩,৪৫৫ কোটি টাকা ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজ্যের জন্য দেওয়া হয়েছে৷ এছাড়াও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ক্ষেত্রে ১,০০,২৭৫ কোটি টাকা দাঁড়িয়েছে। এই প্রকল্পের মোট বিনিয়োগ হয়েছে ৩,৫৬,৩৯৭ কোটি টাকা।

Loading...