‘গতজন্মের পুণ্যে মামনির মতো শাশুড়ি পেয়েছি’, নেট মাধ্যমে আবেগে ভাসলেন মধুবনী

Madhubani-with-Mother-in-law.

শাশুড়ি-বৌমার অন্তর্কলহ, বিবাদ, অশান্তি, সম্পর্কের টানাপোড়েন, প্রায় প্রতিটি ঘরেরই এক সমস্যা। ঘরে ঘরে শাশুড়ি-বৌমার ঠোকাঠুকি লেগেই আছে। তবে এই সব অশান্তিকে ছাপিয়ে শাশুড়ি-বৌমার মাঝের মধুর সম্পর্কের কথাও কদাচিত কানে আসে। তেমনই এক সম্পর্কের কথা তুলে ধরলেন টেলিভিশন (Telivision) জগতের একসময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মধুবনী গোস্বামী (Madhubani Goswami)। শাশুড়ি-বৌমার সম্পর্ক যে কতটা মধুর হতে পারে, তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ রয়েছে তার শ্বশুরবাড়িতেই।

টেলি অভিনেত্রী মধুবনী গোস্বামী আজ থেকে প্রায় ৪ বছর আগে টেলিভিশন জগতের আরেক অভিনেতা তথা নিজের সহকর্মী রাজা গোস্বামীকে (Raja Goswami) বিয়ে করেছেন। বিয়ের আগে বেশ কিছু বছর চলেছে তাদের প্রেম। রাজা এবং মধুবনী জুটি বিয়ের আগেও ছিল সুপারহিট। বিশিষ্ট টেলিভিশন চ্যানেলের জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ভালোবাসার ডট কম’ (Valobasa Dot Com) রাজা-মধুবনীর ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে ওঠার প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠেছিল।

Madhubani-with-Mother-in-law

রিল লাইফের প্রেমিক-প্রেমিকা জুটি কখন যেন রিয়েল লাইফেও একে অপরকে মন দিয়ে বসলেন। তার ফলশ্রুতিতে ৪ বছর আগে দুই পরিবারের সম্মতিতেই ৪ হাত এক হয়ে গেল। আজ তারা সুখী দম্পতি। তাদের ঘরে পা রেখেছে ছোট্ট কেশব। কেশবকে নিয়েই সুখের ঘরকন্নায় মেতে উঠেছেন অভিনেত্রী। আর বিয়ের পর সংসার থেকে শুরু করে জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই তিনি পাশে পেয়েছেন তার মামুনিকে, রাজার মা অর্থাৎ নিজের শাশুড়িকে।

Madhubani-Marriage

সাধারণত যে কোনও পরিবারের শাশুড়ি-বৌমারা পরস্পরের নিন্দা করতেই ব্যস্ত থাকেন। তবে মধুবনীর ক্ষেত্রে কিন্তু ব্যাপারটা সম্পূর্ণ আলাদা। তিনি তার মামুনিকে মন থেকে ভীষণ ভালোবাসেন এবং শ্রদ্ধাও করেন। আবার মামুনিও তার আদরের বৌমাকে আদর, ভালোবাসা ও যত্নে ভরিয়ে রেখেছেন। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় মধুবনী নিজের বিয়ের কিছু মুহূর্তের ছবি তুলে ধরেছেন। বিয়ের পর শ্বশুরবাড়িতে পা রাখার মুহূর্তে মামুনির সঙ্গে কিছু ছবি সোশ্যাল সাইটে তুলে ধরে শাশুড়ি-মাকে উদ্দেশ্য করে নিজের মনের কথা লিখেছেন মধুবনী।

Madhubani-with-Mother-in-law

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, শ্বশুরবাড়িতে পা রাখার ঠিক আগের মুহূর্তে নববধূকে মিষ্টি-জল খাইয়ে বরণ করছেন রাজার মা। সেদিনের কথা স্মরণ করে নস্টালজিক মধুবনী ক্যাপশনে লিখেছেন, “আমার মামণি পরম স্নেহময়ী। কেশবের ঠাকুমা ও রাজার মা আর আমার সবচাইতে বড় সাপোর্ট সিস্টেম। বলা যেতে পারে আজ মামণির জন্যই আমি দাঁড়িয়ে আছি। আমায় আদরে ভরিয়ে দিয়ে, জল-মিষ্টি খাইয়ে, গাড়ি থেকে নামাচ্ছেন, ভালোবাসার প্রদীপ জ্বেলে তার ঘরে আমায় বরণ করে তুলবেন বলে।

Madhubani-Marriage-2.jpg

এরপর শাশুড়িমাকে উদ্দেশ্য করে মধুবনী লিখেছেন, “গত জন্মের এই জন্মে আমি নিশ্চয়ই কোনও সুকর্ম করেছি, যার ফলস্বরূপ আমি তোমায় আমার মামুনির রুপে পেয়েছি। সত্যিই আমি ভাগ্যবতী। সত্যিই তোমার মতো মামুনি সবাই পায় না। সবাই কি, কেউই পায়না।” পুরনো দিনের কথা মনে করে শাশুড়ি মায়ের প্রতি এভাবেই সোশ্যাল মাধ্যমে আবেগঘন বার্তা দিলেন মধুবনী। ছবিগুলি ইতিমধ্যেই সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল হয়েছে। একইসঙ্গে ভাইরাল মামুনির প্রতি মধুবনীর এমন আবেগঘন বার্তাটিও।